বিচার শুরু হয়েছে আরো বেশি কাঁদতে প্রস্তুত থাকুন:হানিফ

0
বিডিজার্নাল প্রতিবেদক :
দেশের বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্র করার জন্য বিএনপি নেত্রী খালেদা জিয়া চিকিৎসার নাম করে লন্ডনে যায়। সেখানে তারেক জিয়ার সাথে বৈঠক করে দেশে ফিরে অস্থিতিশীল পরিবেশ সৃষ্টির মাধ্যমে নীলনকশা তৈরি করে বিশৃঙ্খলা তৈরি করতে চায়’ বলে মন্তব্য করেছেন আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মাহবুব-উল-আলম হানিফ।
তিনি বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলামের সম্প্রতি কান্না করা নিয়ে বলেন, ‘কান্না মাত্র শুরু হয়েছে, ২০০১ সাল থেকে ২০০৬ পর্যন্ত আওয়ামী লীগের ২১ হাজার নেতাকর্মী হত্যা করেছেন। সে সময় কোথায় ছিল মায়াকান্না, বিচার যখন শুরু হয়েছে আরো বেশি কাঁদতে প্রস্তুত থাকুন।’
শনিবার লক্ষ্মীপুরের রামগঞ্জ শিশুপার্কে উপজেলা আওয়ামী লীগের ত্রি-বার্ষিক সম্মেলনে কেন্দ্রীয় মাহবুব-উল-আলম হানিফ প্রধান অতিথির বক্তব্যে এসব কথা বলেন।
আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীদের উদ্দেশ্যে বলেন, ‘সরকারের উন্নয়ন কর্মকাণ্ড জনগণের কানে পৌঁছে দিতে পারলে মানুষ অন্য কোন দলকে ভোট দেবেনা।আওয়ামী লীগ ক্ষমতায় আসার পর বিদ্যুৎ ৩১০০ মেগাওয়াট থেকে বাড়িয়ে ১৬ হাজার মেগাওয়াট, বৈদেশিক মুদ্রা চার হাজার থেকে বাড়িয়ে করেছে ৩২ হাজার, মাথা পিছু ৫৫০ ডলার থেকে বাড়িয়ে করেছে ১৬০০ মার্কিন ডলার দেশকে মধ্যম আয়ে পরিণত করেছে। এসব কারণে শেখ হাসিনা ২৯টি আন্তর্জাতিক পুরস্কার পেয়েছে।’
কেন্দ্রীয় আওয়ামী লীগের উপকমিটির সাবেক সহ-সম্পাদক এমএ মমিন পাটোয়ারীর সঞ্চালনায় ও উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি আলহাজ্ব মোহাম্মদ শাহজাহানের সভাপতিত্বে সম্মেলনে বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন কেন্দ্রীয় আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক একেএম এনামুল হক শামীম, কৃষি ও সমাজসেবা বিষয়ক সম্পাদক ফরিদুন নাহার লাইলী, যুব ও মহিলা বিষয়ক সম্পাদক নাজমা আক্তার, লক্ষ্মীপুর-১ আসনের এমপি ও বাংলাদেশ তরিকত ফেডারেশনের মহাসচিব লায়ন এম.এ আউয়াল, লক্ষ্মীপুর-৩ আসনের এমপি শাহাজান কামাল, লক্ষ্মীপুর জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি গোলাম ফারুক ফিংকু, সিনিয়র সহ-সভাপতি সফিকুল ইসলাম, সাধারণ সম্পাদক নুর উদ্দিন চৌধুরী নয়ন, আনোয়ার খান মডার্ন মেডিকেল কলেজের চেয়ারম্যান আনোয়ার হোসেন খাঁন বাবুল, রামগঞ্জ উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আকম রুহুল আমিন, পৌর মেয়র আবুল খায়ের পাটোয়ারী, সাবেক মেয়র বেলাল আহমেদ, ভাইস চেয়ারম্যান দেলোয়ার হোসেন বাচ্চু, সম্মেলন বাস্তবায়ন কমিটির যুগ্ম আহ্বায়ক মহিউদ্দিন মাইনু প্রমুখ।  সম্মেলন শেষে সকলের সম্মতিক্রমে সফিক মাহমুদ পিন্টুকে উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও আনোয়ার হোসেন খানকে সিনিয়র সহ-সভাপতি এবং বীর মুক্তিযোদ্ধা আ ক ম রুহল আমিনকে সাধারণ সম্পাদক ঘোষণা করা হয়।
Share.

Comments are closed.