শাকিব এক সময় যৌথ প্রযোজনার ছবির বিরোধী ছিলেন: নিপুণ

0

বিডিজার্নাল প্রতিবেদক :

দুই দফা জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার পাওয়া চিত্রনায়িকা নাসরিন আক্তার নিপুণ। ২০০৬ সালে তিনি ঢালিউডে পা রাখেন। এখন বড়পর্দায় নিয়মিত নন। তবে সম্প্রতি শাকিব-অপু ইস্যুতে শাকিব খানের বিরুদ্ধে ফেসবুকে মন্তব্য দিয়ে আলোচনায় এসেছেন।

ঢাকাই চলচ্চিত্রে এখন গ্রুপিং স্পষ্ট। এ থেকে উত্তরণের পথ কী?

নিপুণ: হলের মেশিন ব্যবস্থাপনাটা চলে গেছে কিছু সিন্ডিকেটের হাতে। এই সিন্ডিকেটটা ভাঙ্গতে হবে। এভাবেতো চলতে পারে না। তাদের যে ছবি ভালো লাগবে সেটিকে হল দিবে, অন্য ছবিগুলোকে হল দিবে না এভাবে হয় না। বিএফডিসিকে সবকিছুর নিয়ন্ত্রণ নিতে হবে। সরকার এ বিষয়ে হস্তক্ষেপ না করলে কোনো সমাধান দেখছি না। কোন সিনেমা কয়টা হলে চলবে বা চলবে না- তা নির্ভর করবে দর্শকদের ভালোলাগার উপর। কেউ দর্শকদের ভালোলাগার উপর খড়্গ চালাতে পারে না। আমি মনে করি ইন্ডাস্ট্রিকে বাঁচাতে হলে। সিন্ডিকেট সিস্টেম ভাঙতে হবে।

14702294_1152081074873377_3422867813750695860_n

বর্তমান পরিস্থিতি থাকলে কারা লাভবান হবে?

নিপুণ: আমরা আসলে চলচ্চিত্রকে ভালোবাসি। ভালোবাসি বলেই এর জন্য মন্দ যে কোনো কিছু আমাদের কষ্ট দেয়। এই ইন্ডাস্ট্রিতে কিন্তু এক বা দুই জন কাজ করে না। আমার মতো হাজারো মানুষ এর সঙ্গে জড়িত। তাদের সংসার চলে চলচ্চিত্রকে কেন্দ্র করেই। আমিও এমন একজন চলচ্চিত্র পেশাজীবী। তবে আমাকে চলচ্চিত্রের সবার কথা ভাবতে হবে। নিজের লাভের জন্য সবার ক্ষতি চাওয়ার প্রবণতা ঠিক নয়।

যৌথ প্রযোজনার সিনেমা নিয়ে আপনার অবস্থান কী?

নিপুণ: যৌথ প্রযোজনার সিনেমাতে কিন্তু আমি কোনো সমস্যা দেখছি না। আমি এটাকে ভালোই মনে করছি। কিন্তু যৌথ প্রযোজনাকে ঘিরে যে রাজনীতি হচ্ছে, যে সিন্ডিকেট হচ্ছে- সেটা বাংলাদেশের চলচ্চিত্রের জন্য মোটেও মঙ্গলজনক নয়। একটি গোষ্ঠী বা স্বার্থান্বেষী মহলের কাছে আমরা সবাই জিম্মি হতে পারি না। যৌথ প্রযোজনার যে নিয়মনীতি সেগুলো মানা হচ্ছে না। এটাকে যৌথ প্রযোজনা বলার কোনো কারণ দেখি না। তাই যৌথ প্রযোজনা হলে ইন্ডাস্ট্রি বড় হবে, যে কথাটি বলা হচ্ছে, বাস্তবে কিন্তু তা হচ্ছে না। আমরা এই কথাটাই বারবার বলার চেষ্টা করছি।

1010119_734593489955473_7496707332863825755_n

সম্প্রতি আপনি শাকিব খানকে নিয়ে একটি স্ট্যাটাস দিয়েছেন। এটি ভাইরাল হয়েছে। তার উপর কী আপনি ক্ষিপ্ত?

নিপুণ: শাকিব খান বলেন, আর বুবলি বলেন, আমার তাদের কারও সঙ্গেই ব্যক্তিগত শত্রুতা নেই। তবে সাংবাদিকদের সামনে প্রেস কনফারেন্সে যেভাবে অন্যদেরকে হেয় করে শাকিব বক্তব্য দিয়েছেন, সেটা একজন শিল্পীর জন্য সম্মানজনক না। তার ব্যক্তিগত পছন্দ-অপছন্দ থাকতে পারে, সেটা দোষের না। তবে এই বিষয়টা নিজের মধ্যে রাখা আর দেশের গণমাধ্যম আনা ঠিক নয়। গণমাধ্যমকর্মীদের সামনে অন্যদের ছোট করার অধিকার তার নেই।

10351309_734593333288822_7881366414759978399_n

যৌথ প্রযোজনার বিষয়ে শাকিব খানের বর্তমান অবস্থান নিয়ে আপনি কী অসন্তুষ্ট?

নিপুণ: তিনিতো নিজেও এক সময় যৌথ প্রযোজনার ছবির বিরোধী ছিলেন। কয়েক বছর আগে তো তিনিও কাফনের কাপড় বেধে আন্দোলন করেছেন। উনি যখন নিজেই নিজেকে ‘স্টার’ বলেন আর সাংবাদিকদের সামনে সিনিয়রদের সম্পর্কে যা-তা বলেন, তা তার সঙ্গে যায় না। একটি গাছ যখন বড় হতে থাকে, তখন তাকে নুতে হয়। যে যত গুণী সে তত বিনয়ী হবে। এটা না হলে বড় হতে হতে এক সময় বড়ো গাছ ভেঙে পড়ে। শিল্পী সমাজও কিন্তু এই নিয়মের বাইরে না।

সাব্বির// এসএমএইচ // ২৫ জুলাই ২০১৭

Share.

Comments are closed.