সাত বছরের শিশুকে ধর্ষণের পর হত্যা, উত্তাল পাকিস্তান

0

আন্তর্জাতিক ডেস্ক

 পাকিস্তানের পাঞ্জাব প্রদেশের কাসুরে জয়নাব নামে ছয় বছরের এক শিশু ধর্ষণ ও হত্যার প্রতিবাদে সরব হয়ে উঠেছে স্থানীয়রা। এ ঘটনার প্রতিবাদে বিক্ষোভে পুলিশ গুলিবর্ষণ করলে তাতে দুজন নিহত হয়।

ময়নাতদন্ত রিপোর্টে শিশুটিকে ধর্ষণ ও হত্যার প্রমাণ মিলেছে। নিখোঁজ হওয়ার পর তার দেহ একটি ময়লার স্তুপে পাওয়া যায়।

এ ঘটনার প্রতিবাদে স্থানীয়রা রাস্তায় নেমে আসে। বিক্ষুব্ধ জনতার ওপর পুলিশ গুলি চালালে দু’জন নিহত হয়। শহরটিতে শিশু ধর্ষণ ও হত্যার ঘটনা বেড়ে চললেও, প্রশাসন কোনো ভূমিকা রাখছে না বলে দাবি বিক্ষোভকারীদের।

গত ৪ জানুয়ারি নিখোঁজ হয় জয়নাব। তবে তার মৃতদেহ পাওয়া যায় ৯ জানুয়ারি। এর মধ্যে কমপক্ষে দুই দিন অপহরণকারীদের হাতে সে বেঁচে ছিল এবং নির্যাতিত হয়েছে বলে ধারণা করছে সংশ্লিষ্টরা।

জয়নাবের পরিবারের দাবি, মেয়ে নিখোঁজ হওয়ার পরই পুলিশকে জানায় তারা। কিন্তু কোনো ব্যবস্থা নেয়া হয়নি।

সম্প্রতি জয়নাব নামে সে শিশুটিকে হত্যার প্রতিবাদে মুখর হয়ে উঠেছে গোটা পাকিস্তান। সাধারণ মানুষই নয়, সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে সরব হয়েছেন তারকারাও। সাবেক ক্রিকেটার ও রাজনীতিবিদ ইমরান খান, সাবেক রাষ্ট্রপতি পারভেজ মুশাররফ, ক্রিকেটার শোয়েব মালিক, মোহাম্মদ হাফিজের মতো তারকারাও আছেন সে তালিকায়।

সিসিটিভি ফুটেজ থাকা সত্ত্বেও কেন পুলিশ মূল অভিযুক্তকে ধরতে পারছে না, সে প্রশ্নই বার বার তুলছে বিক্ষুব্ধ জনতা।

জানা গেছে, গত দুই বছরে কাসুরে ধর্ষণ ও হত্যার শিকার হয়েছে অন্তত ১২ শিশু। এদের মধ্যে পাঁচজনের হত্যার ঘটনায় একজনকেই সন্দেহ করছে পুলিশ। এ পর্যন্ত ৯০ সন্দেহভাজনের ডিএনএ নমুনা সংগ্রহ করা হয়েছে। তবে এখনও এসব ঘটনার কোনো কূলকিনারা মেলেনি।

কাওছার আক্তার মুক্তা// এসএমএইচ// বৃহস্পতিবার ১১ জানুয়ারি ২০১৮ ২৮ পৌষ ১৪২৪

Share.

Comments are closed.