লিটনের ব্যাট যেন দুধারী তলোয়ার!

0

ক্রীড়া ডেস্ক :

ডাবল সেঞ্চুরিটা পূরণ করেছেন রাজসিক ভঙ্গিতে, তাইজুল ইসলামকে এক ছক্কায় ১৯৩ থেকে ১৯৯। ঠিক পরের বলেই বাউন্ডারি মেরে ডাবল সেঞ্চুরি। লিটন ১৫০ পূর্ণ করেছেন ছক্কা মেরে, সেঞ্চুরি করেছেন বাউন্ডারি মেরে। লিটনের ব্যাট যেন আজ দুধারি তলোয়ার! তাইজুলের বলে আউট হওয়ার আগে ১৪২ বলে ৩২ চার ও ৪ ছক্কায় করেছেন ২০৩ রান। স্ট্রাইকরেট ১৪২.৯৫!

যে টর্নেডো গতিতে ব্যাট চালিয়েছেন তাতে বলাই চলে এশিয়া কাপের দুর্দান্ত পারফরমেন্স ধরেই রেখেছেন দেশের এই ওপেনার।জাতীয় লিগের দ্বিতীয় পর্বের তৃতীয় দিনে রাজশাহীর বিপক্ষে শুধু দুর্দান্ত ইনিংসই খেলেননি, গড়েছেন অনন্য এক রেকর্ড। বাংলাদেশে প্রথম শ্রেণির ক্রিকেটে সবচেয়ে দ্রুততম ডাবল সেঞ্চুরির রেকর্ড এখন লিটনেরই। রংপুর ওপেনার থেমেছেন ২০৩ রান করে।

এশিয়া কাপের পর বিশ্রাম নিতে গিয়েছিলেন দিনাজপুর। বাড়িতে কটা দিন ‘জিরিয়ে’ দিলেন গা ঝাড়া! আর তাতেই খড়কুটোর মতো উড়ে গেলেন রাজশাহীর বোলাররা। এশিয়া কাপে যেখানে শেষ করেছিলেন সেখান থেকেই শুরু করলেন লিটন। প্রথম ইনিংসে আউট হয়েছেন ১৭ রানে। দল অলআউট ১৫১ রানে। বিপরীতে প্রথম ইনিংসে রাজশাহী গড়ল ৪ উইকেটে ৫৮৯ রানের পাহাড়। এমন রান উৎসবে যোগ না দেওয়াটা যেন অন্যায়!

তবে লিটন যেভাবে রান-বন্যায় গা ভাসালেন সেটি তাক লাগিয়ে দেওয়ার মতো। ৪৪ বলে ফিফটি। ১৬ চার ও ১ ছক্কায় সেঞ্চুরি করলেন ৮১ বলে। ১৫০ করতে বল খেললেন আরও ২৭ বল। লিটনের রেকর্ডটা হলো কোথায় সেটা বলা যাক। ডাবল সেঞ্চুরি করেছেন ১৪০ বলে। অর্থাৎ সেঞ্চুরিকে ডাবলে রূপ দিতে খেলেছেন মাত্র ৫৯ বল। বাংলাদেশের মাটিতে প্রথম শ্রেণির ক্রিকেটে সবচেয়ে দ্রুততম ডাবল সেঞ্চুরির রেকর্ড এখন লিটনের। আগেরটিও তার অধিকারে ছিল, গত এপ্রিলে বিসিএলে ডাবল সেঞ্চুরিটা করেছিলেন ১৯০ বলে। প্রথম শ্রেণির ক্রিকেটে দ্রুততম ডাবল সেঞ্চুরির বিশ্বরেকর্ড ৮৯ বলে! আফগানিস্তানের শফিকউল্লাহ শেনওয়ারি।

লিটনের অসাধারণ এক রেকর্ডের পরও একটা প্রশ্ন আসছে, রাজশাহীর উইকেট কি শুধু রানবন্যার জন্য তৈরি হয়েছে? প্রথম পর্বে এই ভেন্যু সেঞ্চুরি দেখল ছয়টি। দ্বিতীয় পর্বের তৃতীয় দিন পর্যন্ত সেঞ্চুরি হয়ে গেছে চারটি। সেঞ্চুরির এ মেলায় এদিন দুপুরে যোগ দিয়েছেন জুনায়েদ সিদ্দিক। বিকেলে লিটন দাস। লিটনের ডাবল সেঞ্চুরিতে রংপুর দিন শেষ করেছে ২ উইকেটে ৩১৯ রান।

সাব্বির// এসএমএইচ//১১ই অক্টোবর, ২০১৮ ইং ২৬শে আশ্বিন, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ

Share.

Comments are closed.