নয়াপল্টনে সংঘর্ষ: পুলিশের প্রতিবেদন ইসিতে, সিদ্ধান্ত কমিশন সভায়

0

নিজস্ব প্রতিবেদক:

 রাজধানীর নয়াপল্টনে পুলিশের সঙ্গে বিএনপির নেতাকর্মীদের সংঘর্ষের ঘটনার তদন্ত প্রতিবেদন নির্বাচন কমিশনে (ইসি) জমা দিয়েছে পুলিশ। নির্বাচন কমিশনের চিঠির প্রেক্ষিতে গতকাল (রোববার) রাতে পুলিশের পক্ষ থেকে এ সংক্রান্ত প্রতিবেদন ইসিতে পাঠানো হয়েছে। প্রতিবেদনে ঘটনার বেশ কয়েকটি ভিডিও চিত্র, স্থির চিত্রও পাঠানো হয়েছে।

সোমবার (১৯ নভেম্বর) নির্বাচন কমিশন সচিব হেলালুদ্দীন আহমদ সারাবাংলাকে বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। তিনি বলেন, ‘নয়াপল্টনের ঘটনায় পুলিশের পক্ষ থেকে রোববার রাতে আমাদের কাছে প্রতিবেদন পাঠানো হয়েছে। এই প্রতিবেদনের আলোকে কমিশন বসে সিদ্ধান্ত নেবেন।’

পুলিশের প্রতিবেদনে কি রয়েছে জানতে চাইলে ইসি সচিব হেলালুদ্দীন আহমদ বলেন, ‘এটি একটি সিলগালা প্রতিবেদন। প্রধান নির্বাচন কমিশনার (সিইসি) বরাবর পাঠানো হয়েছে। ভিতরে কি রয়েছে আমরা এই মুহূর্তে বলতে পারছি না। কমিশন চিঠিটি খোলার পর বোঝা যাবে এতে কি সুপারিশ বা ব্যাখ্যা রয়েছে। প্রতিবেদনের আলোকে কমিশন প্রয়োজনীয় সিদ্ধান্ত নিবেন।’

ইসি সচিব আরও বলেন, ‘পুলিশের লিখিত প্রতিবেদনের পাশাপাশি বেশ কিছু ভিডিও ফুটেজ এবং স্থির চিত্রও পাঠানো হয়েছে। বিশেষ করে ঘটনার সঙ্গে কারা, কিভাবে জড়িত সে বিষয়ে প্রয়োজনীয় তথ্য রয়েছে।’

ইসি সূত্র জানায়, এর আগে নয়াপল্টনের ঘটনায় পুলিশের কাছে প্রতিবেদন চেয়ে চিঠি পাঠানো নিয়ে ইসি সচিব ও যুগ্ম সচিবের মধ্যে পরস্পরবিরোধী বক্তব্য পাওয়া যায়। ইসি সচিব হেলালুদ্দীন আহমদ গত শনিবার বিকালে চট্রগ্রামে এক অনুষ্ঠানে বলেছিলেন, ‘বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের সামনে সহিংস ঘটনার প্রতিবেদন চেয়ে পুলিশের মহাপরিদর্শককে (আইজিপি) চিঠি দেওয়া হয়েছে।’

একইদিন (গত শনিবার) দুপুরে ইসির নির্বাচন ব্যবস্থাপনা শাখার যুগ্ম সচিব ফরহাদ আহম্মদ খান এ প্রতিবেদককে বলেন, ‘পল্টনের ঘটনায় পুলিশের আইজিপিকে এখনো চিঠি পাঠানো হয়নি। রোববার সকালে (গতকাল) চিঠি পাঠানো হবে।’

তবে ইসি থেকে চিঠি পাঠানোর পর পরই পুলিশের পক্ষ থেকে রোববার রাতে তদন্ত প্রতিবেদন কমিশনে পাঠানো হয়।

এর আগে, মনোনয়ন ফরম বিক্রিকে কেন্দ্র করে গত বুধবার (১৪ নভেম্বর) রাজধানীর নয়াপল্টনে বিএনপি কার্যালয়ের সামনে পুলিশের সঙ্গে দলটির নেতাকর্মীদের সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। এই ঘটনায় বেশ কয়েকজন পুলিশ ও বিএনপির নেতাকর্মী আহত হন। এছাড়াও এই ঘটনায় পুলিশের দুইটি গাড়ি পুড়িয়ে দেওয়া হয়। পরে পুলিশের পক্ষ থেকে এই ঘটনায় একাধিক মামলা করা হয়। এই মামলায় এরই মধ্যে বেশ কয়েকজন আসামি গ্রেফতার হয়ে বর্তমানে রিমান্ডে রয়েছেন।

ইসি সূত্র জানায়, নয়াপল্টনের ঘটনায় পুলিশের মহাপরিদর্শককে (আইজিপি) কাছে পাঠানো চিঠিতে ‘নিরাপরাধী’ কাউকে যাতে হয়রানি করা না হয় সেজন্য পুলিশকে নির্দেশনা দেওয়া হয়। একই সঙ্গে চিঠিতে বিএনপি কার্যালয়ের সামনে সংঘর্ষের ঘটনা তদন্ত করতেও পুলিশকে বলা হয়।

চিঠিতে আরও উল্লেখ করা হয়, বিএনপি কার্যালয়ে সংঘর্ষের ঘটনায় বিভিন্ন গণমাধ্যমে ধারণকৃত ভিডিও ফুটেজ ও অন্যান্য তথ্য-প্রমাণাসহ একটি প্রতিবেদন পাঠানোর জন্য অনুরোধ করা হয়েছে। তবে ঘটনার সঙ্গে সরাসরি সংশ্লিষ্ট নয় এমন কাউকে হয়রানি না করতে নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে

সাব্বির// এসএমএইচ//১৯শে নভেম্বর, ২০১৮ ইং ৫ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ

Share.

Comments are closed.