পেশায় ব্যবসায়ী জাবেদের ব্যবসায় আয় নামমাত্র; নিজামের মাসিক আয় ১ লাখ ৫০ হাজার টাকা

0

আনোয়ারা (চট্টগ্রাম) প্রতিনিধি:

আনোয়ারা-কর্ণফুলী (চট্টগ্রাম-১৩) আসনে আওয়ামীলীগের প্রার্থী ভূমিপ্রতিমন্ত্রী সাইফুজ্জামান চৌধুরী জাবেদ। চট্টগ্রামের ব্যবসায়ীদের শীর্ষ সংগঠন চট্টগ্রাম চেম্বার অব কমার্সের সভাপতি ছিলেন। মনোনয়নপত্রের সঙ্গে জমা দেওয়া হলফনামায় পেশা হিসাবে উল্লেখ করেছেন ‘ব্যবসা’। কিন্তু এই ব্যবসা থেকে আয় দেখিয়েছেন নামমাত্র। হলফনামায় সাইফুজ্জামান চৌধুরী ব্যবসা থেকে সারা বছরের আয় ৭৮ হাজার ৫৫২ টাকা মাত্র দেখিয়েছেন । এ হিসাবে ব্যবসায় মাসিক আয় দাঁড়ায় মাত্র ৬ হাজার ৫৪৬ টাকা। কৃষিখাত, বাড়ি ও দোকান ভাড়া, সম্মানী, ব্যবসা ও অন্যান্য আয় মিলিয়ে জাবেদের বার্ষিক আয় ৪৮ লাখ ৮১ হাজার ৮৫৫ টাকা। মাসিক আয় দাঁড়ায় ৪ লাখ ৬ হাজার ৮২১ টাকা।
নগদ ও ব্যাংকে জমানো টাকা, স্বর্ণালংকার, আসবাবপত্র, ইলেক্ট্রনিক্স সামগ্রী মিলিয়ে জাবেদের অস্থাবর সম্পদ ১১ কোটি ১৩ লাখ টাকা। কৃষি-অকৃষি জমি, দালান মিলিয়ে স্থাবর সম্পত্তি ১৯ কোটি ১৬ লাখ টাকা। জাবেদের স্ত্রীর নামেও রয়েছে ৭ কোটি ৯৫ লাখ টাকার সম্পদ। সব মিলিয়ে জাবেদ ও স্ত্রীর নামে সম্পদ রয়েছে ৩৮ কোটি ২৪ লাখ টাকার। সাইফুজ্জামান জাবেদের নামে ব্যাংকে কোনো দেনা নেই। তবে ছোট ভাই আসিফুজ্জামান চৌধুরীর কাছ থেকে ব্যক্তিগত ঋণ নিয়েছেন ২ কোটি ৪০ লাখ টাকা। এছাড়া আখতারুজ্জামান সেন্টারের দোকান বরাদ্দ বাবদ ব্যবসায়ীদের কাছ থেকে অগ্রিম পেয়েছেন ৫ কোটি ৯৮ লাখ টাকা। সাংসদ হিসাবে দায়িত্ব পালনকালীন এলাকার সার্বিক উন্নয়নে নির্বাচনী প্রতিশ্রুতি গুলো অর্জিত হয়েছে বলে উল্লেখ করেছেন তিনি। হলফনামার তথ্য অনুযায়ী, জাবেদ শিক্ষাগত যোগ্যতা লিখেছেন ‘বিবিএ’।
এ আসনে বিএনপির মনোনয়ন নিয়ে দুই প্রার্থীর মধ্যে রশি টানাটানি চললেও সাবেক সংসদ সদস্য হিসাবে সরওয়ার জামাল নিজামের পাল্লা ভারী বলে মনে করছেন অনেকে। চট্টগ্রাম চেম্বার অব কমার্সের সভাপতির দায়িত্বে ছিলেন। মনোনয়নপত্রের সঙ্গে জমা দেওয়া হলফনামায় পেশা হিসাবে ‘ব্যবসা’ উল্লেখ করলেও ব্যবসা থেকে আয় দেখিয়েছেন কম। বিএনপি নেতা সরওয়ার জামাল নিজাম ব্যবসায় আয় ৩ লাখ ৩৪ হাজার টাকা দেখিয়েছেন । এ খাতে তার মাসিক আয় ২৭ হাজার ৮৩৩ টাকা। হলফনামায় যে হিসাব রয়েছে তাতে আয়ের দিক থেকে তার চেয়ে সাইফুজ্জামান জাবেদের মাসিক আয় ৩ গুণ বেশি। সরওয়ার নিজামের কৃষিখাত, দোকান ও বাড়ি ভাড়া, ব্যবসা মিলিয়ে আয় ১৮ লাখ ৫ হাজার টাকা। মাসিক আয় দাঁড়ায় ১ লাখ ৫০ হাজার ৪২০ টাকা।
সম্পদেও জাবেদের চেয়ে পিছিয়ে আছেন সরওয়ার জামাল নিজাম। তিনি স্ত্রীর নামে কোনো সম্পদ দেখাননি। নিজের নামে অস্থাবর সম্পদ ১ কোটি ৬৩ লাখ টাকা, স্থাবর সম্পদ ১ কোটি ৪৩ লাখ টাকা উল্লেখ করেছেন। সব মিলিয়ে সম্পদের পরিমাণ ৩ কোটি ৬ লাখ টাকা। দুটি ব্যাংক মিলিয়ে তাঁর নামে দেনা রয়েছে ৩৫ লাখ টাকা। ৩ দফায় সংসদ সদস্য হিসাবে দায়িত্ব পালন করা সরওয়ার জামাল নিজামের ইতিপূর্বে কোনো নির্বাচনী প্রতিশ্রুতি ছিল না বলে উল্লেখ করেন। হলফনামার তথ্য অনুযায়ী তিনি ‘স্নাতক’।

সাব্বির// এসএমএইচ//৫ই ডিসেম্বর, ২০১৮ ইং ২১শে অগ্রহায়ণ, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ

Share.

Comments are closed.