সিরাজগঞ্জে বাল্যবিয়ে বন্ধ, বরসহ ৪ জনের অর্থদণ্ড

0

নিজস্ব প্রতিবেদক:

সিরাজগঞ্জ সদর উপজেলায় এক রাতে দু’টি বাল্যবিয়ে বন্ধ করেছেন ভ্রাম্যমাণ আদালত। এ সময় বর, বরের নানা ও কনের বাবাকে অর্থদণ্ড করা হয়েছে।

শুক্রবার (১৫ মার্চ) রাতে সদর উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মো. আনিসুর রহমান এ আদেশ দেন।

এর আগে সদর উপজেলার খোকশাবাড়ী ইউনিয়নের শালুয়াভিটা ও রতনকান্দি ইউনিয়নের হরিণারায়ণপুর গ্রামে দু’টি বাল্যবিয়ে বন্ধ করা হয়।

নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মো. আনিসুর রহমান জানান, শুক্রবার রাতে প্রথমে শালুয়াভিটা দক্ষিণপাড়া গ্রামের নুরুল ইসলামের মেয়ে সপ্তম শ্রেণির ছাত্রী বিউটি খাতুনের (১৪) সঙ্গে সদর উপজেলার আলোকদিয়া গ্রামের আব্দুর রাজ্জাকের ছেলে মো. এনামুল হকের (২২) বিয়ের আয়োজন চলছিল। গোপন সংবাদের ভিত্তিতে সেখানে অভিযান চালিয়ে বাল্যবিয়ে বন্ধ করা হয়। এ সময়  ভ্রাম্যমাণ আদালত বসিয়ে কনের বাবা নুরুল ইসলাম ও বর এনামুল হককে ৫ হাজার টাকা করে জরিমানা অনাদায়ে এক মাসের বিনাশ্রম কারাদণ্ড দেয়া হয় এবং কনের বাবার কাছ থেকে মেয়ের ১৮ বছর না হওয়া পর্যন্ত বিয়ে দেবেন না বলে মুচলেকা নেয়া হয়।

অপরদিকে রতনকান্দি ইউনিয়নের হরিণারায়ণপুর এলাকার আব্দুর রাজ্জাকের মেয়ে ৯ম শ্রেণির ছাত্রী বিথী খাতুনের (১৫) সঙ্গে একই উপজেলার মহিষামূড়া গ্রামের আব্দুল মান্নানের ছেলে জাহিদ হাসানের (২৩) বিয়ের আয়োজন চলাকালে সেখানে অভিযান চালানো হয়। এ সময় পুলিশের উপস্থিতি টের পেয়ে কাজী ও বর পালিয়ে যায়। এরপর ভ্রাম্যমাণ আদালত বসিয়ে কনের বাবা আব্দুর রাজ্জাক ও বরের নানা আব্দুল খালেককে বিশ হাজার টাকা জরিমানা অনাদায়ে এক মাসের বিনাশ্রম কারাদণ্ড দেয়া হয়।

এ সময় কনের মায়ের কাছ থেকে মেয়ের ১৮ বছর না হওয়া পর্যন্ত বিয়ে দেবেন না বলে মুচলেকা নেয়া হয়।

অভিযান চলাকালে উপস্থিত ছিলেন- পৌর ভূমি অফিসের ভূমি সহকারী কর্মকর্তা মো. নজরুল ইসলাম, সদর থানা পুলিশের এএসআই মাসুম ও সদর থানার পুলিশ।

নিলা চাকমা/এসএমএইচ/ /  শনিবার, ১৬ মার্চ, ২০১৯

Share.

Comments are closed.