বাংলাদেশের বাজারে চমকপ্রদ এফ১১ প্রো নিয়ে এলো অপো

0

 

বিডি জার্নাল প্রতিবেদক:

পোর্টফোলিও বিস্তৃত করলো বিশ্বের অন্যতম শীর্ষস্থানীয় স্মার্টফোন ব্র্যান্ড অপো। সম্প্রতি রাজধানীর লা মেরিডিয়ান হোটেলে এ উন্মোচন অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত হয়।

উক্ত অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন অপো বাংলাদেশের ব্যবস্থাপনা পরিচালক ডামোন ইয়াং, রবি আজিয়াটা লিমিটেডের করপোরেট কমিউনিকেশনসের ভাইস প্রেসিডেন্ট ইকরাম কবীর, ক্রিকেটার তাসকিন আহমেদ, অভিনয়শিল্পী সাবিলা নূর এবং আলোকচিত্রী প্রীত রেজা চৌধুরী, অপো বাংলাদেশের ব্র্যান্ড ম্যানেজার ইয়োনো এবং পিআর ম্যানেজার ইফতেখার সানী। এছাড়াও, অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন অপো’র উচ্চপদস্থ অন্যান্য কর্মকর্তাগণ।

থান্ডার ব্ল্যাক ও অরোরা গ্রিন রঙের অপো এফ১১ প্রো’র বাজারমূল্য নির্ধারণ করা হয়েছে ৩৬,৯৯০ টাকা এবং মার্বেল গ্রিন ও ফ্লুরাইট পার্পেল এর আকর্ষণীয় রঙে অপো এফ১১ এর  বাজারমূল্য নির্ধারণ করা হয়েছে ২৭,৯৯০ টাকা।

অনুষ্ঠানে অপো বাংলাদেশের ব্যবস্থাপনা পরিচালক ডামোন ইয়াং বলেন, ‘অপো’তে আমাদের লক্ষ্য সবসময় গ্রাহকদের জন্য  সহজ ও উন্নত স্মার্টফোন অভিজ্ঞতা নিয়ে আসা। সবচেয়ে উদ্ভাবনী প্রযুক্তি এবং সাশ্রয়ী মূল্যে সম্পূর্ণ আলাদা ও আকর্ষণীয়   ডিজাইন নিয়ে আসার ব্যাপারে আমরা অঙ্গীকারাবদ্ধ। বিশ্বব্যাপী অপো’র এফ সিরিজের স্মার্টফোন পোর্টফোলিওতে বিশেষ সুনাম রয়েছে এবং আমরা আশাবাদী, অপো এফ১১ প্রো ও এফ১১ বাংলাদেশেও উদ্ভাবনের এ ধারা অব্যাহত রাখবে।’

সব জায়গায় তরুণদের সবচেয়ে পছন্দের ক্যামেরা ফোন ব্র্যান্ড হিসেবে, অপো সবসময়ই সৃষ্টিশীল তরুণদের জন্য উদ্ভাবনী মোবাইল ফোন নিয়ে আসার ব্যাপারে প্রতিশ্রুতিবদ্ধ। ‘সেলফি এক্সপার্ট’ থেকে ‘ব্রিলিয়ান্ট পোর্ট্রেট’ হিসেবে এফ সিরিজকে  পরিচিত করে আগের যুগান্তকারী ক্যামেরা উদ্ভাবনকে ভিন্ন উচ্চতায় নিয়ে গেছে অপো এফ১১ প্রো এবং অপো এফ১১।

অপো’র শক্তিশালী ক্যামেরা প্রযুক্তির মাধ্যমে এফ১১ এবং এফ১১ প্রো দু’টি ফোনেই রয়েছে এফ সিরিজের সবচেয়ে অত্যাধুনিক ক্যামেরা সিস্টেম। সম্প্রতি, এর রিয়ার ক্যামেরা আপগ্রেড করা হয়েছে। এফ১১ প্রো ও এফ১১-তে রয়েছে আল্ট্রা-হাই স্ট্যান্ডার্ড ৪৮ মেগাপিক্সেল+৫ মেগাপিক্সলে ডুয়াল ক্যামেরা সিস্টেম, এফ১.৭৯ অ্যাপারচার, বল-বিয়ারিং ক্লোজড-লুপ ভিসিএম, ৬পি লেন্স এবং উন্নত লাইটের জন্য ১/২.৩- ইঞ্চ ইমেজ সেন্সর।

উজ্জ্বল আলোক পরিবেশে ডিভাইসটি সরাসরি ৪৮ মেগাপিক্সেলের আল্ট্রাএইচডি ছবি তুলবে। অন্ধকারে, এর ‘টেট্রা সেল টেকনোলজি’ এর সংযুক্ত চার পিক্সেল থেকে তথ্য বিশ্লেষণ ও সমন্বয় করে ১.৬ ইউএম’র সিঙ্গেল পিক্সেলের আউটপুট দিবে; ফটোসেনসেটিভ পিক্সেলের আকার দ্বিগুণ করবে যার মাধ্যমে উজ্জ্বল ও লো-নয়েজ নাইট পোর্ট্রেট তোলা যাবে সহজেই।

এফ১১ প্রো ও এফ১১ যতোটা সম্ভব ফ্লুইড ও অত্যাধুনিকভাবে ডিজাইন করা হয়েছে। এর চমৎকার প্যানারোমিক স্ক্রিন এমনভাবে ডিজাইন করা হয়েছে যেখানে এর ফ্রন্ট ক্যামেরা লুক্কায়িত থাকবে, যা ফোনটিকে করে তুলেছে ‘নচলেস’ এবং স্ক্রিনিং- কে করেছে অত্যন্ত আকর্ষণীয়। সাধারণ মোবাইল ফোনের তুলনায়, এর ৬.৫-ইঞ্চি ডিসপে- স্ক্রিন এবং এর স্ক্রিন টু বডি রেশিও

৯০.৯% নিশ্চিত করবে আগের চেয়েও বড় ছবি এবং বিনোদন ও গেমিং -এ চমকপ্রদ অভিজ্ঞতা এবং আরও বেশি ভিজ্যুয়াল স্পেস। অপো এফ১১ প্রো এবং অপো এফ১১- এ রয়েছে যথাক্রমে ৪০০০ ও ৪০২০ এমএএইচ ব্যাটারি এবং ৬ জিবি ও ৪ জিবি র‌্যাম। প্রতিটি ফোনেই রম রয়েছে ১২৮ জিবি করে। সকল বিদ্যমান ও নতুন রবি ও এয়ারটেল প্রি-পেইড ও এসএমই গ্রাহকের জন্য থাকছে নতুন এফ১১ প্রো এবং এফ১১ হ্যান্ডসেট কেনায় ১২ জিবি ইন্টারনেট ডাটা (৩ জিবি ফোরজি ডাটা + ৩ জিবি মাইস্পোর্টস ডাটা + ৩ জিবি রবি স্ক্রিন + ৩ জিবি স্প-্যাশ)। এ ডাটা অফারের মেয়াদ থাকবে ৩০ দিন। আগামী ১৯ এপ্রিল থেকে নতুন এফ১১ প্রো হ্যান্ডসেট বাজারে পাওয়া যাবে।

অপো:

উদ্ভাবনী প্রযুক্তি, সূক্ষ্ম ডিজাইন ও অসাধারণ ক্যামেরা পারফরমেন্সের মাধ্যমে ক্রেতাদের ধারাবাহিকভাবে অসামান্য অভিজ্ঞতা  দিয়ে আসছে বৈশ্বিক স্মার্টফোন ব্র্যান্ড অপো। বিগত দশ বছর ধরে, মোবাইল ফটোগ্রাফি প্রযুক্তি নতুন উদ্ভাবনের মাধ্যমে ধারাবাহিকভাবে যুগান্তকারী পরিবর্তন নিয়ে আসার মাধ্যমে স্মার্টফোন তৈরি করে চলেছে অপো। প্রথম স্মার্টফোন ব্র্যান্ড হিসেবে স্মার্টফোনে ১৬ মেগাপিক্সেল ফ্রন্ট ক্যামেরা সংযুক্ত  করে প্রতিষ্ঠানটি। এছাড়াও, প্রথম স্মার্টফোন ব্র্যান্ড হিসেবে স্বয়ংকৃত রোটেটিং ক্যামেরা, আল্ট্রা এইচডি ফিচার এবং ৫এক্স ডুয়াল ক্যামেরা জুম প্রযুক্তি নিয়ে আসে অপো।

তরুণদের চাহিদার কথা মাথায় রেখে ২০১৬ অপো সর্বপ্রথম সেলফি তোলায় প্রাধান্য দিয়ে ‘সেলফি এক্সপার্ট’ খ্যাত এফ সিরিজ স্মার্টফোন বাংলাদেশের বাজারে নিয়ে আসে। বাজারে আসা প্রথম ব্যাচের ফোনগুলো বিপুল সাড়া ফেলতে সক্ষম হয় পাশাপাশি, সেলফি কেন্দ্রিক স্মার্টফোনকেই ট্রেন্ডে পরিণত করে। স্থান অর্জন করে নেয় অপো। ২০১৭ সালে স্মার্টফোন ফটোগ্রাফিতে কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তা (এআই) যোগ করার মাধ্যমে সেলফি তোলায় এক নতুন যুগের সূচনা করে অপো। বর্তমানে পুরো বিশ্বজুড়েই স্মার্টফোন ফটোগ্রাফিতে তরুণদের পছন্দের তালিকায় স্থান করে নিচ্ছে এ স্মার্টফোন ব্র্যান্ডটি। ২০১৮ সালে বাজারে আসা প্যানারোমিক আর্ক ডিজাইনের ডিসপ্লে -র ৯৩.৮% বডি টু ডিসপ্লে রেশিওযুক্ত অপো ফাইন্ড এক্স বর্তমানে মোবাইল  ফোনের জগতে সর্বোচ্চ বডি টু ডিসপ্লে রেশিওযুক্ত ফোন।

 

Share.

Comments are closed.