সাংবাদিকরা হচ্ছেন জাতির বিবেক: হুইপ আলহাজ্ব

0

 পটিয়া প্রতিনিধি: 

জাতীয় সংসদের হুইপ আলহাজ্ব সামশুল হক চৌধুরী বলেছেন, সাংবাদিকরা হচ্ছেন জাতির বিবেক। আর সংবাদপত্র হচ্ছে সমাজের দর্পণ। তিনি সংবাদপত্র শিল্পের সাথে জড়িত সকল সংবাদকর্মীদের যথাযথ মূল্যায়ণে বর্তমান শেখ হাসিনার সরকারের আমলে গৃহিত নানা পদক্ষেপের কথা তুলে ধরে বলেন, শেখ হাসিনার সরকার সাংবাদিক বান্ধব। তাই এ সরকার সাংবাদিকদের কল্যাণে কল্যাণ ট্রাস্ট গ্রহণ সহ বিভিন্ন কর্মসূচী গ্রহণ করেছে। তিনি মফস্বল সাংবাদিকদের সুখে-দু:খে পাশে থাকার প্রত্যয় ব্যক্ত করে বলেন, গ্রাম বাংলার উন্নয়নে মফস্বল সাংবাদিকরাই জীবনের ঝুঁকি নিয়ে থাকে। তিনি এ সাংবাদিকদেরকে বস্তুনিষ্ট সংবাদ পরিবেশনের আহবান জানিয়ে বলেন, গ্রাম বাংলার উন্নয়নে সাংবাদিকদের বস্তুনিষ্ট লেখনি নিশ্চিত করতে হবে। এতে মিথ্যা মামলা হওয়ার ঝুঁকি থাকবে না।

তিনি গতকাল শনিবার চট্টগ্রাম দক্ষিণ জেলা মফস্বল সাংবাদিক ফোরামের নব নির্বাচিত নেতৃবৃন্দ কর্তৃক তার সাথে সাক্ষাতকালে উপরোক্ত কথাগুলো বলেন। এসময় তার পাশে ছিলেন পটিয়া উপজেলা পরিষদের নব নির্বাচিত চেয়ারম্যান আলহাজ্ব মোতাহেরুল ইসলাম চৌধুরী, হুইপের একান্ত সচিব তৌফিক আল মাহমুদ, সহকারী একান্ত সচিব হাবিবুল হক চৌধুরী, আ’লীগ নেতা মুজিবুল হক চৌধুরী নবাব।

এসময় বক্তব্য রাখেন দক্ষিণ জেলা মফস্বল সাংবাদিক সমিতির সভাপতি আবদুল হাকিম রানা, সাধারণ সম্পাদক কাইছার ইকবাল চৌধুরী। নেতৃবৃন্দের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন পটিয়া প্রেস ক্লাবের সভাপতি এসএমএকে জাহাঙ্গীর, সাবেক সভাপতি নুরুল ইসলাম, চন্দনাইশ প্রেস ক্লাব সভাপতি এড. দেলোয়ার হোসেন, বোয়ালখালীর প্রেস ক্লাবের সাবেক সভাপতি অধীর বড়ুয়া, বর্তমান সভাপতি সিরাজুল ইসলাম, সাংবাদিক যথাক্রমে আবদুর রাজ্জাক, এটিএম তোহা, সুমন শাহ, এসকেএম নুর হোসেন, স.ম রবিউল হোসাইন, তুষার আহমদ কায়ছার, জসিম উদ্দিন, মাঈন উদ্দিন, নুরুল ইসলাম, মহিউদ্দিন চৌধুরী, সুজিত দত্ত, কামরুল ইসলাম, এম.এ হামিদ, ছাইদুল ইসলাম, থাপা বড়ুয়া, তৌহিদুল ইসলাম, রিদুয়ানুল হক, আবদুল ওহাব, কায়সার ইসলাম চৌধুরী, রবিউল আলম ছোটন প্রমুখ।

উল্লেখ্য, গতকাল শনিবার পটিয়া সদরের গুলশান মেহেরীন চাইনিজ রেস্টুরেন্টে দক্ষিণ জেলা মফস্বল সাংবাদিক ফোরামের এক মতবিনিময় সভা ও ইফতার মাহফিল অনুষ্ঠিত হয়। দক্ষিণ জেলা সভাপতি আবদুল হাকিম রানার সভাপতিত্বে ও সাধারণ সম্পদাক কাইছার ইকবাল চৌধুরীর সঞ্চালনায় দক্ষিণ জেলার সব উপজেলার নেতৃবৃন্দ দিকনির্দেশনা মূলক বক্তব্য রাখেন। এতে সভার শুরুতে প্রয়াত বাসাসের সাবেক কেন্দ্রীয় সভাপতি জালাল উদ্দিন আহমেদ, আজাদীর আনোয়ারা প্রতিনিধি আহসানুল হুদা, বোয়ালখালীর কালের কন্ঠ প্রতিনিধি নজরুল ইসলাম ও সমকালের দক্ষিণ জেলা প্রতিনিধি শহীদ উদ্দিন চৌধুরীর স্মৃতির প্রতি গভীর শ্রদ্ধা জানানো হয়। এতে দক্ষিণ চট্টগ্রামের সকল উপজেলার সাংবাদিকদের সুখ-দু:খের যেকোনো সমস্যা সমাধানে সব সাংবাদিককে ঐক্যবদ্ধ থেকে আগামী দিনে মফস্বল সাংবাদিক ফোরামের প্লাটফর্মকে শক্তিশালী করার আহবান জানানো হয়। এছাড়াও এতে ১-৭ মে’কে জাতীয় গণমাধ্যম সপ্তাহ ঘোষণা করার দাবি জানানো হয়।

নিলা চাকমা/এসএমএইচ/শুক্রবার ১০ মে ২০১৯, ২৭ বৈশাখ ১৪২৬

Share.

Comments are closed.