পাহাড়ধসের আশংকা, নিরাপদ স্থানে যেতে মাইকিং

0

কক্সবাজার প্রতিনিধি

কক্সবাজারে পাহাড়ে ঝুুঁকিপূর্ণভাবে বসবাসরত লোকজনকে নিরাপদ স্থানে সরে যেতে মাইকিং করা হচ্ছে। ভারী বর্ষণে পাহাড় ধসের ঝুঁকির আশংকা থেকে দিনভর জেলা শহর ও বিভিন্ন উপজেলার প্রত্যন্ত অঞ্চলে মাইকিং করে লোকজনকে সতর্ক করা হয়।

সদর উপজেলা সহকারি কমিশনার (ভূমি) শাহরিয়ার মোকতার বলেন, পাহাড়ে ঝুঁকিপূর্ণভাবে বসবাসরত জনসাধারণ নিরাপদ আশ্রয়ে সরে যাওয়ার জন্য জেলা শহরের পাহাড়তলী, লাইট হাউস পাড়া, ঘোনা পাড়া, বাদশা ঘোনা, কবরস্থান পাড়া, সাহিত্যিকা পল্লী এলাকায় দিনভর মাইকিং করা হয়েছে। মাইকিংয়ের পরও যারা সরবে না তাদের সরানোর ব্যবস্থা করা হবে।

জানা গেছে, শুধুমাত্র কক্সবাজার শহরেই পাহাড়ে চূড়ায় এবং পাদদেশে ঝুঁকিপূর্ণ পরিবেশে বসবাস করছে ৫০ হাজারের বেশি মানুষ। এছাড়াও জেলার বিভিন্ন স্থানে পাহাড়ে ঝুঁকিতে বসবাস করছে ৩ লক্ষাধিক মানুষ। ইতোপূর্বে জেলায় পাহাড় ধসে বহু প্রাণহানির ঘটনা ঘটেছে। তবুও পাহাড়ে ঝুঁকিপূর্ণভাবে বসবাসের প্রবণতা কমেনি।

টেকনাফ বন বিভাগের ভারপ্রাপ্ত রেঞ্জ কর্মকর্তা মো: সাজ্জাদ হোসেন বলেন, ইতিমধ্যে ১০৫ টি পরিবারকে পাহাড়ের ঝুঁকিপূর্ণ এলাকা হতে সরিয়ে নেওয়া হয়েছে। সাগরে নিম্নচাপের সংকেত ও অতি বৃষ্টির কারণে পাহাড় ধসের আশংকা থাকায় মাইকিং করা হয়েছে। যাতে পাহাড়ে ঝুঁকিপূর্ণ অবস্থায় যে সব পরিবার রয়েছে তারা সরে আসে। তা না হলে ফের উচ্ছেদ অভিযান চালানো হবে।

টেকনাফ উপজেলা নিবার্হী কর্মকর্তা রবিউল হাসান বলেন, এখন বর্ষাকাল তার উপর টানা বৃষ্টিপাতের ফলে পাহাড় ধসের আশংকা রয়েছে। তাই আমরা পুরো উপজেলার বিভিন্ন পাহাড়ে ঝুঁকিপূর্ণ বসবাসকারীদের নিরাপদে অন্যত্রে সরে যেতে মাইকিং করে নির্দেশ দিয়েছি। না সরলে প্রশাসন তাদের বাধ্য করবে অন্যত্র সরাতে, যেহেতু এখানে মানুষের জীবন জড়িত।

অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট মো: শাহজাহান আলী বলেন, ভারী বৃষ্টিপাতে পাহাড় ধসের আশংকা থাকায় লোকজনকে সরিয়ে নিতে মাইকিং করা হয়েছে। এরপরও যদি কেউ নিরাপদ স্থানে সরে না যায়, ঝুঁকিপূর্ণ পরিবেশে অবস্থান করে প্রশাসন তাদের বাধ্য হয়ে নিরাপদ আশ্রয়ে সরিয়ে নেবে। ইতোপূর্বে কক্সবাজার পৌরসভায় ঝুঁকিপূর্ণ পরিবেশে বসবাসরত বেশকিছু পরিবারকে চিহ্নিত করা হয়েছে। তাদের নিরাপদে রাখার জন্য প্রতিটি এলাকায় আশ্রয়কেন্দ্র প্রস্তুত রাখা হয়েছে। কক্সবাজার আবহাওয়া অধিদপ্তর সূত্র জানিয়েছে, বৈরী আবহাওয়ার কারণে কক্সবাজার সমুদ্র বন্দরকে ৩ নম্বর সতর্ক সংকেত দেখিয়ে যেতে বলা হয়েছে। আগামী ২/৩ দিন ভারী বর্ষণ অব্যাহত থাকতে পারে।

সাব্বির=৮ই জুলাই, ২০১৯ ইং ২৪শে আষাঢ়, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

Share.

Comments are closed.