ভুলে ভুলে বিএনপি

0

নিজস্ব প্রতিবেদক

বিএনপির সর্বোচ্চ নীতি-নির্ধারণী ফোরাম জাতীয় স্থায়ী কমিটির বৈঠকের আলোচনার বিষয় নিয়েও ভুল হয় বলে মানছেন দলটির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। আর এ নিয়ে দলটির সিনিয়র নেতাসহ তৃণমূলে ব্যাপক সমালোচনা শুরু হয়েছে।

কেউ কেউ বলছেন ভুল হতেই পারে। আবার কেউ কেউ বলছেন, মহাসচিবের পদে থেকে এমন ভুল করলে মেনে নেয়া যায় না।

যদিও বিএনপির স্থায়ী কমিটির বৈঠকের একদিন পর গণমাধ্যমে সংবাদ বিবৃতি দিয়ে ভুল স্বীকার করে নিয়েছেন মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর।

বিবৃতিতে বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার সুচিকিৎসা ও মুক্তির বিষয়টি আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়ের কাছে তুলে ধরার বিষয়ে ‘সিদ্ধান্ত’ নয় ‘আলোচনা’ হয়েছে বলে জানিয়েছেন মির্জা ফখরুল। গত রোববার রাতে পাঠানো এক বিবৃতিতে এ কথা জানানো হয়।

মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর স্বাক্ষরিত এই বিবৃতিতে বলা হয়, গত শনিবার স্থায়ী কমিটির বৈঠকে খালেদা জিয়ার সুচিকিৎসা ও মুক্তির বিষয়ে আলোচ্য সূচি অনুযায়ী আলোচনা হয়েছে। খালেদা জিয়ার বিষয়টি আন্তর্জাতিক বিশেষ করে গণতান্ত্রিক সরকার ও সংশ্লিষ্টদের কাছে তুলে ধরার বিষয়ে আলোচনা হয়েছে। তবে চূড়ান্ত কোনো সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়নি। ভুলবশত সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়েছে বলে সংবাদ সম্মেলনে বলা হয়েছে।

এর আগে গত শনিবার দলের স্থায়ী কমিটির বৈঠক শেষে সংবাদ সম্মেলনে বিএনপি মহাসচিব বলেন, আমরা বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার স্বাস্থ্য ও তার মুক্তির বিষয়ে আন্তর্জাতিকভাবে পদক্ষেপ নেয়ার সিদ্ধান্ত গ্রহণ করেছি। যেসব গণতান্ত্রিক দেশ আছে তাদেরকে অবহিত করবো এবং যে অন্যায়ভাবে দেশনেত্রীকে আটক করে রাখা হয়েছে সে বিষয়টা আন্তর্জাতিক পর্যায়ে নিয়ে আসার জন্য যথোপযুক্ত ব্যবস্থা গ্রহণ করবো।

এবিষয়ে জানতে চাইলে বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ড. খন্দকার মোশাররফ হোসেন বাংলাদেশ জার্নালকে বলেন, এ ব্যাপারে মহাসচিব বিবৃতি দিয়েছিলেন। আর এখন তার বক্তব্যের বিষয়ে মহাসচিব নিজেই বিবৃতি দিয়েছেন। সেটাই বক্তব্য। এখানে আমার আলাদা কোনো বক্তব্য নেই।

সাব্বির=২০শে আগস্ট, ২০১৯ ইং ৫ই ভাদ্র, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

Share.

Comments are closed.