অসাধু ব্যবসায়ীদের দখলে চট্টগ্রাম,নগরীর ডিটি রোডের ফুটপাত সড়ক

চট্টগ্রাম ব্যুরো:

বন্দরনগরী চট্টগ্রামের ব্যস্ততম বাণিজ্যিক এলাকা পশ্চিম মাদারবাড়ি ও উত্তর পাঠানঠুলি ওয়ার্ডে ডিটি রোডের দুই পাশের্^র ফুটপাত এখন অসাধু ব্যবসায়ীদের দখলে। পুরাতন জাহাজের যন্ত্রাংশ, লম্বা লম্বা লোহার পাইপ, মেশিনারী ও গাড়ির পাটর্স, (ব্রেক ডাউনসহ বিভিন্ন যন্ত্রাংশ), টায়ার, টিউব, স্ক্রাব, ট্রান্সপোর্ট ব্যবসা সহ নানা ব্যবসার করণে দখল হয়ে আছে এসব এলাকার ফুটপাত-সড়ক। এ দুই ওয়ার্ডের আওতাধীন শুভপুর বাস ষ্টেশন থেকে কদমতলী হয়ে ধনিয়ালাপাড়া পর্যন্ত বিশাল সড়কের উভয় পাশে সুপ্রশস্ত ফুটপাত থাকলেও সেগুলো ব্যবহারের সুযোগ নেই পথচারীদের। এতে স্থানীয় এলকাবাসী স্কুল কলেজগামী শিক্ষার্থী থেকে শুরু করে সব ধরণের পথচারীদের হাটা চলায় চরম দূর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে প্রতিনিয়িত। আবার ওই সড়কে নতুন করে দেখা দিয়েছে যানজট। গত এক মাস যাবৎ এখানে হঠাৎ করে দিনের বেলায় কাভার্ড় ভ্যান ও বড় বড় মালবাহি ট্রাকের চলাচল বেড়ে গেছে। একদিকে ফুটপাত দখল অপর দিকে ট্রাকের চাপে তীব্র যানজট সব মিলিয়ে জন ভোগান্তি চরমে পৌছেছে এ এলাকার বাসিন্দাদের। অথচ এ সড়কে দিনের বেলায় ভারী যানবাহন চলাচল নিষিদ্ধ রয়েছে। কিন্ত পরিবহন চালক শ্রমিকরা তা মনছেনা।
পশ্চিম মাদার বাড়ি এবং উত্তর পাঠানটুলী ওয়ার্ড কাউন্সিলরদের দাবি, বহুবার অভিযান চালিয়েও এই দুই সড়কের ফুটপাত দখলমুক্ত করা সম্ভব হচ্ছে না। ফুটপাত দখল হয়ে যাওয়ায় পথচারীদের হাঁটতে হচ্ছে রাস্তা দিয়ে। এতে দূর্ঘটনার শিকার হচ্ছে পথচারীরা। জীবনের ঝুকি নিয়ে চলতে হচ্ছে শিক্ষার্থীদের। কিছুদিন আগে শুভপুর বাসষ্টেশন এলাকায় বেপরোয়া গতির ট্রাক চাপায় মারা যায় দুই পথচারী।
সরেজমিন ঘুরে দেখা গেছে, পশ্চিম মাদারবড়ি ডিটি রোডের হোটেল পেলিকা(২নংগলি) থেকে শুভপুর বাস ষ্ট্র্যান্ড, পেড়া মসজিদ,কদমতলী মোড়, ছোট মসজিদ থেকে পশ্চিম ধনিয়ালাপাড়া পর্যন্ত অংশের সড়কের উভয় পাশের প্রায় পাচঁশ ব্যবসা প্রতিষ্ঠানের প্রায় প্রত্যেকটি দোকানের সামনের ফুটপাত কিংবা সড়কজুড়ে রাখা হয়েছে পুরাতন জাহাজের স্ক্রাব,মেশিনারী ও গাড়ির যন্ত্রাংশ (ব্রেক ডাউনসহ বিভিন্ন যন্ত্রাংশ), লম্বা লম্বা লোহা পাইপ, টায়ার, টিউব ইত্যাদি। আবার শুভপুর বাস ষ্ট্র্যান্ড সংলগ্ন পশ্চিম পাশে রয়েছে একাধিক ট্রান্সপোর্ট এজেন্সি। ফলে ফুটপাতে মালামাল রাখার কারণে এবং সড়কে ব্যবসায়ী কিংবা তাদের ক্রেতাদের ব্যক্তিগত গাড়ি পার্কিং করে রাখায় শত শত শিক্ষার্থীসহ পথচারীদের যাতায়াতে প্রতিনিয়ত অসহনীয় দুর্ভোগে পড়তে হয়।
অপরদিকে দেখাগেছে পশ্চিম মাদার বাড়ি হোটেল পেলিকা থেকে শুভপুর বাস ষ্ট্রান্ড পর্যন্ত ডিটি রোডের উবয় পাশের্^ যে ভাবে ফুটপাত দখল করে পুরাতন লোহার লম্বা পাইপ দোকনীরা সাজিয়ে রেখেছে তাতে মনে হয় সড়ক সহ তারা কিনে নিয়েছে। আবার দেখাগেছে বড় বড় ষ্টীল সীট ও মরিচা ধরা পাইপ গুলো সড়কের উপর পরিস্কার করা হচ্ছে। এতে সড়কে প্রতিবন্ধকতা সৃষ্টি হয়ে যান জটজট লেগে রয়েছে। পথচারী ও শিক্ষার্থীরা হাটা চলা করছে ঝুকির মধ্যে।
এলাকাবাসীর অভিমত, মাদারবাড়ি, কদমতলী, ধনিয়ালাপাড়ার এসব ফুটপাত ও সড়ক থেকে বার বার অভিযান চালিয়ে এসব যন্ত্রাংশ ও পণ্য সামগ্রী উচ্ছেদ না করে দায়ী ব্যবসায়িক প্রতিষ্ঠানের বিরুদ্ধে বড় অংকের জরিমানা এবং আইনের আওতায় এনে কারাদন্ডের বিধান চালু করলে দখলদারী প্রবণতা অনেকাংশে কমে আসবে।
ধনিয়ালাপাড়ার ফুটপাত দখল প্রসঙ্গে জানতে চাইলে ২৩ নম্বর উত্তর পাঠানটুলী ওয়ার্ডের কাউন্সিলর মোহাম্মদ জাবেদ বলেন, বহুবার ফুটপাত ও সড়ক থেকে সাজিয়ে রাখা মেশিনারী যন্ত্রাংশ সামগ্রী উচ্ছেদ করেছি। দেখা যায়, উচ্ছেদের ২/৩ দিনের মধ্যেই তারা আবার বসে যায়। তবে বর্তমানে সিটি কর্পোরেশনের চলমান উচ্ছেদ অভিযান যেকোন দিন ধনিয়ালাপাড়ায়ও চালানো হবে। এই অভিযানে ধনিয়ালাপাড়ার পুরো ফুটপাত নির্বিঘেœ পথচারী চলাচলের উপযোগী করা হবে।
এদিকে পশ্চিম মাদারবাড়ি ওয়ার্ড কাউন্সিলর গোলাম মো. জোবাইর বলেন ব্যবসায়ীদেও বারবার সতর্ক করা সত্তে ও তারা ফুটপাত দখল মুক্ত করছে না। তাই তাদের আইনের আওতায় আনার ব্যবস্থা করা হচ্ছে।
দুর্ভোগের শিকার স্থানীয় লোকজন জানান, সিটি কর্পোরেশন রাস্তার দু-পাশের দোকানের কোনো পণ্যসামগ্রী, ফুটপাতে বা সড়কে না রাখা এবং ক্ষদ্র ব্যবসা পরিচালনা না করার জন্য বিভিন্ন সময় অনুরোধ জানিয়ে পত্রিকায় বিজ্ঞাপন দিয়েছে। সতর্ক করে দিয়ে বলা হয়েছে, কোনো দোকানদার তাঁর পণ্যসামগ্রী দোকানের বাইরে রেখে প্রদর্শন করে তাহলে তার বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে। কিন্তু এসব সতর্কবাণীতে আমল দিচ্ছেনা রাস্তার দুপাশের ব্যবসায়ীরা। স্থানীয় বাসিন্দাগণ বলেন, সিটি কর্পোরেশন অভিযান চালিয়ে ফুটপাত দখলমুক্ত করলে এবং বড় অংকের জরিমানা করলে ব্যবসায়ীদের দখলদার প্রবণতা দূর হতে পারে।

সাব্বির// এসএমএইচ//১লা আগস্ট, ২০১৮ ইং ১৭ই শ্রাবণ, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ

Check Also

বিপদ জয় করে বিজয়ের দেশে ফিরে আসা

জার্নাল ডেস্ক : জাতিসংঘ শান্তিরক্ষা মিশনে অংশ নেওয়া বাংলাদেশ নৌ বাহিনীর জাহাজ ‘বিজয়’  সাক্ষাৎ বিপদ …

‘টাকা দিয়ে বিপদ কিনেছি’

জার্নাল ডেস্ক ‘টাকা দিয়ে বিপদ কিনেছি ‘।    এভাবেই নিজের হতাশার কথা  জানিয়েছেন বসনিয়ায় আটকে …