আমার সঙ্গে বিশ্বাসঘাতকতা করা হয়েছে : মাহাথির

0

আন্তর্জাতিক ডেস্ক :

আধুনিক মালয়েশিয়ার রূপকার ড. মাহাথির মোহাম্মদকে টপকে প্রধানমন্ত্রী হয়েছেন দেশটির প্রভাবশালী নেতা মুহিউদ্দীন ইয়াসিন। শনিবার তাকে প্রধানমন্ত্রী হিসেবে নিয়োগ দেন দেশটির রাজা সুলতান আবদুল্লাহ সুলতান আহমাদ শাহ। এর প্রতিবাদে মাহাথির বলেন, আমার সঙ্গে বিশ্বাসঘাতকতা করা হয়েছে।আজ রোববার স্থানীয় সময় সকাল সাড়ে ১০টার দিকে দেশটির অষ্টম প্রধানমন্ত্রী হিসেবে শপথ নেন মুহিউদ্দীন।মুহিউদ্দীনের শপথের আগেই ইয়াইয়াসান আল বুখারিতে সংবাদ সম্মেলন করে মাহাথির নতুন প্রধানমন্ত্রীর বিরুদ্ধে ক্ষোভ প্রকাশ করে মাহাথির বলেন, আমার সঙ্গে বিশ্বাসঘাতকতা করা হয়েছে।

বিশেষ করে মুহিউদ্দীনের পক্ষ থেকে এটি বেশি করা হয়েছে। মুহিউদ্দীন ইয়াসিন দীর্ঘদিন তার এই লক্ষ্য নিয়ে কাজ করছিলেন। এখন তিনি সেই বিশ্বাসঘাতকতায় সফল হয়েছেন।পাকাতান হারাপান জোটের পরবর্তী পদক্ষেপ সম্পর্কে তিনি বলেন, জরুরি ভিত্তিতে পাকাতান জোট পার্লামেন্টারি অধিবেশন ডাকবে। আমরা দেখব (এমপিদের পক্ষ থেকে) কার কত সংখ্যাগরিষ্ঠ সমর্থন আছে। এখন থেকে বিরোধী অবস্থানে যাবে পাকাতান জোট।বারসাতু মালয়েশিয়ার ভবিষ্যৎ সম্পর্কে মাহাথির বলেন, এটি এখন নির্ভর করে দলীয় সিদ্ধান্তের ওপর। তারা আমাকে চেয়ারম্যান পদ থেকে বহিষ্কার করবে। বারসাতুর সংখ্যাগরিষ্ঠরা আমাকে চেয়ারম্যান হিসেবে প্রত্যাখ্যান করেছেন। ফলে কিছু একটা তো হতে যাচ্ছে। তারা এখন আনুষ্ঠানিকভাবে আমাকে বহিষ্কার করতে পারেন।

প্রধানমন্ত্রী পদত্যাগ করা নিয়ে তিনি অনুশোচনা বোধ করেন কিনা? এ প্রশ্নের জবাবে মাহাথির বলেন, তার সামনে আর কোনো বিকল্প পথ ছিল না। আমি দেখেছি– উমনো এন-ব্লককে নিয়ে বারসাতু জোট গঠন করতে যাচ্ছে। তখন (পদত্যাগ করা ছাড়া) আমার সামনে আর কোনো বিকল্প ছিল না।উল্লেখ্য, মাহাথিরের সরকারে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী ছিলেন মুহিউদ্দীন ইয়াসিন। প্রধানমন্ত্রী প্রার্থী হিসেবে মুহিউদ্দীনের নাম এর আগেই ঘোষণা করেছিল মাহাথিরের দল মালয়েশিয়ার ইউনাইটেড আদিবাসী পার্টি (বারসাতু)।

Share.

About Author

Comments are closed.