এক বিয়েতেই তুলকালাম!

আর্ন্তজাতিক ডেস্ক :

হিব্রুভাষী আরব সংবাদ পাঠিকা লুসি আহারিশ এবং আরবিভাষী ইহুদি জাচি হালেভির বিয়েকে কেন্দ্র করে সরব হয়েছেন ইসরায়েলের চরম ডানপন্থিরা। এমন আন্তঃধর্ম বিয়েতে গোটা ইসরায়েলই হুমকিতে পড়বে বলে মনে করছেন তারা।

৩৭ বছর বয়সি আহারুশের জন্ম দক্ষিণ ইসরায়েলে৷ তার বাবা-মা মুসলিম এবং তিনিই ইসরায়েলি টেলিভিশনের ইতিহাসে প্রথম হিব্রুভাষী আরব উপস্থাপক। অন্যদিকে হালেভি নেটফ্লিক্সে ‘ফাউদা’ শোতে সিক্রেট এজেন্টের ভূমিকায় অভিনয় করে বেশ জনপ্রিয় হয়েছেন।

ডয়চে ভেল তাদের এক প্রতিবেদনে বলেছে, চার বছর ধরে প্রেম করলেও আরব ও ইহুদি উগ্রপন্থিদের না চটাতে এতদিন তারা সম্পর্কের কথা প্রকাশ করেননি। বিয়ের পর ইসরায়েলের হায়োম পত্রিকাকে এই সেলিব্রিটি জুটি হাস্যরসাত্মক ভঙ্গিমায় বলেন, ‘আমরা একটা শান্তিচুক্তি সই করলাম।’

আহারুশ-হালেভি বিষয়টিকে যতটা হালকাভাবেই নেন না কেন, ইহুদিরা ঠিকই এ নিয়ে সরব হয়েছেন।

ইসরায়েলের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী এবং ডানপন্থি পার্লামেন্টারিয়ান আরিয়ে দেরি মনে করেন, এমন বিয়ের ফলে ইহুদিদের অস্তিত্বও হুমকির মুখে পড়ছে।

শাস পার্টির প্রতিষ্ঠাতা দেরি বলেন, ‘এর ফলে বিশ্বজুড়ে ইহুদিদের যেভাবে অন্যরা গ্রাস করছে, তা খুবই পীড়াদায়ক।’

ইসরায়েলের আর্মি রেডিওকে দেয়া সাক্ষাৎকারে তিনি বলেন, ‘এটা তাদের ব্যক্তিগত ব্যাপার৷ কিন্তু একজন ইহুদি হিসেবে আমি বলতে পারি, আমি এমন কাজের বিরুদ্ধে। আমাদের উচিত ইহুদিদের সুরক্ষার ব্যবস্থা করা৷ (তাদের) বাচ্চারা বড় হবে, স্কুলে যাবে, পরে বিয়েও করতে চাইবে এবং তখন তাদের বিশাল সমস্যায় পড়তে হবে।’

এ সময় তিনি ধর্মান্তরের প্রক্রিয়া নিয়েও কথা বলেন। তিনি বলেন, ‘সে (আহারিশ) চাইলে ইহুদি ধর্ম গ্রহণ করতে পারে।’

প্রধানমন্ত্রী বেনিয়ামিন নেতানিয়াহুর ডানপন্থি লিকুদ পার্টির এমপি ওরেন হাজেন ‘আন্তঃধর্ম বিয়ে ইহুদিদের বিশুদ্ধতা নষ্ট করছে’ মন্তব্য করে এক টুইট করেছেন।

হিব্রু ভাষায় লেখা টুইটে তিনি বলেন, ‘আমি লুসি আহারিশকে দোষ দিচ্ছি না। কিন্তু তিনি এক ইহুদি আত্মাকে বিপথে নিয়ে দেশের ক্ষতি করছেন এবং আরেকটি ইহুদি প্রজন্মকে ধ্বংস করে দিলেন।’

এ থেকে বিরত থেকে আহারিশকে ইহুদি ধর্মে আসার আহ্বানও জানান তিনি।

তার এমন মন্তব্যে তীব্র প্রতিক্রিয়া সৃষ্টির পর তিনি সেটার পক্ষে আবার কথা বলেছেন হারেত্জ পত্রিকার সঙ্গে৷ হাজেন বলেন, ‘আপনাদের প্রতিক্রিয়া সম্পর্কে প্রধানমন্ত্রী অনেক আগেই বলেছেন- বামপন্থিরা ইহুদি মানে কি, তা-ই ভুলে গেছে।’

ইহুদি ধর্মমতে, মা ইহুদি হলেই কেবল সন্তানরা ইহুদি হিসেবে স্বীকৃতি পায়। আল্ট্রা-অর্থ্রোডক্স নিয়ম মেনে যারা ধর্মান্তরিত হন, তাদেরই কেবল ইহুদি হিসেবে মেনে নেয়া হয়।

উগ্রপন্থিদের মন্তব্যের বিরুদ্ধে রুখে দাঁড়িয়ে আরব-ইহুদি বিয়েকে স্বাগতও জানিয়েছেন বেশ কিছু রাজনীতিবিদ ও সাংবাদিক৷ লেবার পার্টির এমপি শেলি ইয়াচিমোভিচ ‘এই অসাধারণ জুটির’ সুখ ও সাফল্য কামনা করে টুইট করেছেন।

ইসরায়েলে নাগরিকদের ২০ শতাংশ আরব মুসলিম। তবে প্রায়শই তারা বৈষম্যমূলক আচরণের শিকার হওয়ার অভিযোগ করে থাকেন। ২০১৫ সালে দেশটির বিয়ের সবশেষ জাতীয় পরিসংখ্যান অনুযায়ী, ৫৮ হাজার বিয়ের মধ্যে কেবল ২৩টি বিয়ে হয়েছে আরব ও ইহুদি জুটির মধ্যে।

সাব্বির// এসএমএইচ//১৩ই অক্টোবর, ২০১৮ ইং ২৮শে আশ্বিন, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ

Check Also

বিপদ জয় করে বিজয়ের দেশে ফিরে আসা

জার্নাল ডেস্ক : জাতিসংঘ শান্তিরক্ষা মিশনে অংশ নেওয়া বাংলাদেশ নৌ বাহিনীর জাহাজ ‘বিজয়’  সাক্ষাৎ বিপদ …

‘টাকা দিয়ে বিপদ কিনেছি’

জার্নাল ডেস্ক ‘টাকা দিয়ে বিপদ কিনেছি ‘।    এভাবেই নিজের হতাশার কথা  জানিয়েছেন বসনিয়ায় আটকে …