করোনার উপসর্গ নিয়ে মৃত্যু

নোয়াখালীর সেনবাগ উপজেলার ডুমুরুয়া ইউনিয়নে করোনার উপসর্গ নিয়ে মারা যায় অজ্ঞাতপরিচয়ে (৩২) এক মাটিকাটা শ্রমিকের মরদেহ ফেলে পালিয়ে গেছে তার অন্য সঙ্গীরা।

পরে খবর পেয়ে শনিবার (২৫ এপ্রিল) ওই শ্রমিকের মরদেহের নমুনা সংগ্রহ শেষে বিকেলে বিশেষ ব্যবস্থায় দাফন সম্পন্ন করেছে স্থানীয় প্রশাসন।

এর আগে, শুক্রবার (২৪ এপ্রিল) রাতের কোনো এক সময় ডুমুরুয়া ইউনিয়নের ২ নম্বর ওয়ার্ডের ভূঁইয়া বাড়ি সংলগ্ন একটি পরিত্যক্ত ঘরে তার মৃত্যু হয়। এসময় সঙ্গে থাকা অপর সঙ্গীরা তার মরদেহ ফেলে পালিয়ে যায়। নিহত শ্রমিকের গ্রামের বাড়ি জেলার হাতিয়া উপজেলায়।

সেনবাগ উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা মো. মতিউর রহমান জানান, মারা যাওয়া ওই ব্যক্তিসহ ১০-১২ জন শ্রমিক কিছুদিন ধরে স্থানীয় ভূঁইয়া বাড়িতে মাটি কাটার কাজ করছিলেন। তারা সবাই এক সঙ্গে ভূঁইয়া বাড়ির পাশের একটি পরিত্যক্ত ঘরে থাকতেন। গত দুইদিন ধরে জ্বর, কাশি ও শ্বাসকষ্টে ভুগছিলেন ওই ব্যক্তি। শুক্রবার রাতের কোনো এক সময় তিনি মারা যান। তার মৃত্যুর পরপরই সঙ্গে থাকা অন্যরা মরদেহ ফেলে পালিয়ে যায়।

খবর পেয়ে শনিবার সকালে মৃত ব্যক্তির করোনা পরীক্ষার জন্য নমুনা সংগ্রহ করে চট্টগ্রামের বিআইটিআইডিতে পাঠানো হয়। পরে বিকেলে উপজেলা মরদেহ সৎকার কমিটির সদস্যদের মাধ্যমে বিশেষ ব্যবস্থাপনায় দাফন করা হয়েছে। নমুনা পরীক্ষার ফলাফল জানার পর এ বিষয়ে পরবর্তী করণীয় নির্ধারণ করা হবে বলে জানান তিনি।

Check Also

পদ্মাসেতুর টোল নির্ধারণ, প্রজ্ঞাপন জারি

জার্নাল ডেস্ক :  পদ্মা সেতু চালু হলে নদীটি পার হতে যে টাকা খরচ হয়, তার …

‘এসডিজি অর্জনে অর্থের যোগান অব্যাহত রাখবে সরকার’

জার্নাল  ডেস্ক : সরকার টেকসই উন্নয়ন লক্ষ্যমাত্রা (এসডিজি) অর্জনে নীতি সহায়তা ও অর্থের যোগান অব্যাহত …