কলকাতায় আগুনে পুড়ে বাংলাদেশি নারীর মৃত্যু

আন্তর্জাতিক ডেস্ক :

ভারতের অগ্নিকাণ্ডের ঘটনায় আগুনে ঝলসে  এক বাংলাদেশি নাগরিকের মৃত্যু হয়েছে। তবে তাৎক্ষণিক তার পরিচয় পাওয়া যায়নি। এ ছাড়া ধোঁয়ায় অসুস্থ হয়ে হাসপাতালে ভর্তি হয়েছেন আরও দুজন।
শনিবার (১২ মার্চ) ভোরে কলকাতার ৫ নম্বর মির্জা গালিব স্ট্রিটের (ফ্রি স্কুল স্ট্রিট) একটি আবাসিক হোটেলে
এ ঘটনা ঘটে।

ফায়ার সার্ভিস জানায়, প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে বৈদ্যুতিক শর্ট সার্কিট থেকে আগুনের সূত্রপাত ঘটে। পরে ফায়ার সার্ভিসের তিনটি ইউনিট ঘটনাস্থলে গিয়ে আগুন নিয়ন্ত্রণে আনে।

জানা গেছে, মৃত নারীর নাম সামিমাতুল আরস। তিনি বাংলাদেশের নাগরিক। বছর পঁয়ত্রিশের মইনুল হক নামে আরও এক বাংলাদেশি নাগরিককে অসুস্থ অবস্থায় এসএসকেএম হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। এ ছাড়াও মেহাতাব আলম নামে মুর্শিদাবাদের এক বাসিন্দাকে মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। দমকল বাহিনীর বেশ কিছুক্ষণের চেষ্টায় আগুন নিয়ন্ত্রণে আসে। শর্ট সার্কিট থেকে এ আগুন লাগে বলে প্রাথমিক ভাবে মনে করা হচ্ছে।

হোটেলের এক কর্মী বলেন, প্রথমে রিসেপশনে এ আগুন লাগে। পরে আগুন অন্যান্য কক্ষে ছড়িয়ে পড়ে । কালো ধোঁয়ায় ঢেকে যায় চারদিক। একে একে অন্তত ১০ থেকে ১২টি ঘর পুড়ে যায়। ওই ঘরগুলোতে বেশ কয়েকজন বাংলাদেশি নাগরিক ছিলেন। তাদের সবাইকে সরিয়ে আনা হয়। উদ্ধার করা হয় ১৬ জনকে। ধোঁয়ায় অসুস্থ হয়ে পড়েন বেশ কয়েকজন। কিন্তু এক বৃদ্ধাকে প্রথমে উদ্ধার করা সম্ভব হয়নি। পরে ৬০ বছরের ওই বৃদ্ধার দগ্ধ দেহ উদ্ধার হয়। –সূত্রঃ আনন্দবাজার।

Check Also

নিষেধাজ্ঞা তুলে নিলেই খাদ্য সংকট থাকবে না : রাশিয়া

আন্তর্জাতিক ডেস্ক : ইউক্রেনে আকস্মিক হামলাকে কেন্দ্র করে রাশিয়ার ওপর যে নিষেধাজ্ঞা আরোপ করা হয়েছে …

পদ্মা সেতু উদ্বোধন ২৫ জুন

জার্নাল ডেস্ক : পদ্মা নদীর ওপর উদ্বোধনের অপেক্ষায় থাকা সেতুর নাম নদীর নামেই থাকছে। আগামী …