SAMSUNG CAMERA PICTURES

কলাপাড়ায় কৃষকের মাঠ জুড়ে সূর্যমূখীর হাসি

জাহিদ রিপনর, পটুয়াখালী  প্রতিনিধি:

পটুয়াখালীর কলাপাড়ার এক সময়ের অনেক আবাদি জমিতে এখন শোভা পাচ্ছে নয়ানাভিরাম সূর্যমুখীর হলদে ফুলের হাসিতে। ব্যাপক চাহিদার বিপরীতে কম খরচে অধিক লাভবান হওয়ায় দিনদিন কৃষকের আগ্রহ বৃদ্বি পাচ্ছে। কোন ধরনের কোন প্রাকৃতিক দুর্যোগের শিকার না হলে এবার সূর্যমূখির বাম্পার ফলন হবে বলে মনে করছেন কৃষক এবং কৃষি অফিস। আবহাওয়া অনুকূলে থাকায় সূর্যমূখির বাম্পার ফলনে হাসি ফুটেছে কৃষকের মুখে। বাজার ব্যবস্থাপনা, সেচ ব্যবস্থা, ঋন সুবিধা পেলে সূর্যমূখি চাষের মাধ্যমে এ উপকূলীয় অঞ্চলের কৃষি বিপ্লব ঘটানো সম্ভব বলে ধারনা কৃষক ও সংশ্লিষ্টজনদের।

উপজেলার বিস্তির্ন মাঠ জুড়ে চোখ জুড়ানো মনোমুগ্ধকর হলুদের সমারোহ। সবুজ গাছের মাথায় থাকা এসব হলদে ফুল সূর্যের দিকে মুখ করে বাতাসে দুলছে। ফুলে উপড় উড়ে বেড়াচ্ছে মৌমাছি, আর প্রজাপতি।

উপজেলা কৃষি অফিস সূত্রে জানা যায়, এবছর উপজেলার বিভিন্ন ইউনিয়নে প্রায় ৫০ হেক্টর জমিতে সূর্যমূখির আবাদ হয়েছে। উপজেলার সব ইউনিয়নেই কম বেশি সূর্যমূখীর চাষ হলেও টিয়াখালী, ধানখালী, চম্পাপুর, নীলগঞ্জ, চাকামাইয়া, মহিপুর ও ধুলাসর ইউনিয়নে এর চাষ বেশি হয়েছে।

ধুলাসরের গঙ্গামতি এলাকার কৃষক শাহ আলম জানান, বিগত বছর সূর্যমুখী চাষে ভাল লাভবান হওয়ায় চলতি বছর প্রায় এক একর জমিতে চাষ করেছেন। প্রায় দু হাজার টাকা চাষাবাদ খরচ হলেও পাঁচ থেকে আট হাজার টাকা বীজ বিক্রি করতে পারবেন বলে তিনি আশা প্রকাশ করেন। ছাবের মুন্সী জানান, এবছর সূর্যমূখির বাম্পার ফলন হয়েছে। আশা করছি অধিক লাভবান হব। তবে সরকারি সহযোগিতা আরো বাড়ানোসহ বাজার ব্যবস্থার উন্নয়ন করা গেলে আধিক কৃষক সূর্যমূখি চাষে আগ্রহী হত।

কলাপাড়া উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা মশিউর রহমান জানান, যারা সূর্যমূখি চাষ করেছেন তাদের ফলন ভাল হয়েছে। এই এলাকায় সূর্যমূখির বীজ ভাঙানোর মেশিন না থাকায় কৃষকরা কিছুটা কম মূল্য পাচ্ছে। তবে এখানে যদি বীজ ভাঙিয়ে তেল তৈরীর মেশিন থাকত, তাহলে সূর্যমূখির চাষ অনেকটা বাড়ত।

সাব্বির// এসএমএইচ//২২শে এপ্রিল, ২০১৮ ইং ৯ই বৈশাখ, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ

Check Also

বিপদ জয় করে বিজয়ের দেশে ফিরে আসা

জার্নাল ডেস্ক : জাতিসংঘ শান্তিরক্ষা মিশনে অংশ নেওয়া বাংলাদেশ নৌ বাহিনীর জাহাজ ‘বিজয়’  সাক্ষাৎ বিপদ …

‘টাকা দিয়ে বিপদ কিনেছি’

জার্নাল ডেস্ক ‘টাকা দিয়ে বিপদ কিনেছি ‘।    এভাবেই নিজের হতাশার কথা  জানিয়েছেন বসনিয়ায় আটকে …