কলাপাড়ায় ৬ষ্ঠ শ্রেণীর ছাত্রীকে ধর্ষন ও হত্যার ঘটনায় একজন আটক

জাহিদ রিপন, পটুয়াখালী প্রতিনিধি:

পটুয়াখালীর মহিপুর থানার সদর ইউনিয়নের সেরাজপুর গ্রামের ৬ষ্ঠ শ্রেণীর ছাত্রী ইভাকে ধর্ষন শেষে শ্বাসরোধ করে হত্যার ঘটনায় কাওছার ঘরামী নামের একজনকে আটক করেছে মহিপুর থানা পুলিশ। ইভা হত্যা মামলার বাদী ইসমাইল ঘরামীর তথ্যের ভিত্তিতে বৃহস্পতিবার বেলা বারোটায় তাকে গ্রেফতার করা হয়েছে। পুলিশ সূত্র জানায়, মোবাইল ফোন ট্রাকিংয়ের মাধ্যমে কলাপাড়া উপজেলার বাবলাতলা বাজার থেকে একই গ্রামের শামসু ঘরামীর ছেলে কাওছার ঘরামী(২৪)কে আটক করা হয়। তবে তাকে সুনির্দিষ্ট অভিযোগ কিংবা সন্দেহজনক ভাবে আটক করা হয়েছে কিনা তা নিশ্চিত করতে পারেনি পুলিশ।

উল্লেখ্য, মঙ্গলবার (১৪আগষ্ট) রাত ৮টায় একদল দুর্বৃত্ত ঘরে প্রবেশ করে ইভাকে পাশবিক নির্যাতন ও ধর্ষন শেষে শ্বাসরোধ করে হত্যা করে। ঘটনার পরদিন বুধবার রাতে ইভার বাবা ইসমাইল হোসেন ঘরামী বাদি হয়ে ধর্ষণ ও হত্যার অভিযোগে ৪/৫ জনকে অজ্ঞাত আসামী করে মহিপুর থানায় একটি মামলা দায়ের করে।

প্রকৃত অপরাধীদের গ্রেফতার করে আইনের আওতায় এনে দৃষ্টান্তমুলক শাস্তি দাবি করে মামলার বাদী ইভার বাবা ইসমাইল ঘরামী ও তার পরিবার জানায়, পুলিশ হেফাজতে থাকা ইভার সৎ মা সম্পুর্ন নির্দোষ। এদিকে পুলিশ হেফাজতে থাকা ইভার সৎ মা সালমা বেগমের সাথে পরিবারের সদস্যসহ কোন গনমাধ্যমকর্মীদের দেখা কিংবা কথা বলতে দিচ্ছেনা পুলিশ। শুরু থেকেই মহিপুর থানা পুলিশের এমন রহস্যজনক ভূমিকায় ক্ষুব্ধ হয়ে উঠেছে এলাকাবাসী।

ইভা হত্যা মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা এসআই এনায়েত জানান, পূর্ব শত্রুতার জের ধরে এই ঘটনা ঘটতে পারে বাদীর এমন অভিযোগের ভিত্তিতে কাওছার ঘরামীকে আটক করা হয়েছে।

তদন্ত কাজে সহযোগিতার জন্য ইভার মাকে পুলিশ হেফাজতে রাখা হয়েছে উল্লেখ করে অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (কলাপাড়া সার্কেল) মো: জালাল আহম্মেদ জানান, খুব শীঘ্রই প্রকৃত দোষীদের আটক করে আইনের আওতায় আনা হবে।

সাব্বির// এসএমএইচ//১৬ই আগস্ট, ২০১৮ ইং ১লা ভাদ্র, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ

Check Also

বিপদ জয় করে বিজয়ের দেশে ফিরে আসা

জার্নাল ডেস্ক : জাতিসংঘ শান্তিরক্ষা মিশনে অংশ নেওয়া বাংলাদেশ নৌ বাহিনীর জাহাজ ‘বিজয়’  সাক্ষাৎ বিপদ …

‘টাকা দিয়ে বিপদ কিনেছি’

জার্নাল ডেস্ক ‘টাকা দিয়ে বিপদ কিনেছি ‘।    এভাবেই নিজের হতাশার কথা  জানিয়েছেন বসনিয়ায় আটকে …