কেরলে বন্যা পরিস্থিতির উন্নতি, কর্নাটক ও তামিলনাড়ুতে আশঙ্কা

আর্ন্তজাতিক ডেস্ক :

ভারতের কেরল রাজ্যের বন্যা পরিস্থিতির অনেকটা উন্নতি হলেও কেরলের প্রতিবেশী রাজ্য কর্নাটক ও তামিলনাড়ুতে দেখা দিয়েছে বানভাসি অবস্থা। কর্নাটক ও তামিলনাড়ু জুড়ে শুরু হয়েছে একনাগাড়ে বৃষ্টি। টানা বৃষ্টি ও বন্যার জেরে কর্নাটকে এই পর্যন্ত মৃত্যু হয়েছে আট জনের। কর্নাটকের পাহাড়ি এলাকা মালনাড় বৃষ্টি প্লাবিত হয়ে গিয়েছে।

তবে কেরল রাজ্যে আপাতত একনাগাড়ে বৃষ্টিও থেমে গিয়েছে। পানি নামছে শুরু করে দিয়েছে বিভিন্ন এলাকা থেকে। তবে কেরলের এরনাকুলাম এবং ত্রিশুর জেলার বহু এলাকা এখনও পানির তলায় রয়েছে। কেরলের ভয়াবহ বন্যায় মৃতের সংখ্যা প্রায় চারশো ছুঁই ছুঁই করছে। বন্যাদুর্গতদের উদ্ধারে ভারতের জাতীয় বিপর্যয় মোকাবিলা বাহিনীর মোট ৫৮ টি দল কাজ করছে।

উদ্ধারকাজ চালাচ্ছে ভারতীয় বিমানবাহিনীর ৬৭ টি হেলিকপ্টার, ২৪ টি বিমান, ৫৪৮ টি মোটর বোট। এছাড়াও প্রচুর পরিমাণে লাইফ জ্যাকেট, রেইনকোট, গামবুট সহ বিভিন্ন সরঞ্জামের ব্যাবস্থা করা হয়েছে। কেন্দ্রীয় সরকারের পক্ষ থেকে শুকনো খাবার, দুধ, পানীয় পানি, ওষুধ ইত্যাদির ব্যাবস্থা করা হয়েছে। কেরলের ইরোদ, মাদুরাই হয়ে তিরুবন্তপুরম পর্যন্ত ট্রেন চলছে। বন্যা দুর্গত এলাকায় টেলিযোগাযোগ বাড়ানোর জন্য বিশেষ ব্যাবস্থা নিয়েছে ভারতের কেন্দ্রীয় সরকার। বন্যা বিধ্বস্ত অঞ্চলে বিনামূল্যে ফোন ও ইন্টারনেট পরিষেবা দেওয়া হচ্ছে। ইতিমধ্যে কেরলের কোচি নৌঘাঁটি থেকে উড়ান চালু করেছে এয়ার ইন্ডিয়া।

এদিকে, কেরলে বন্যা পরিস্থিতি কিছুটা স্বভাবিক হলেও গত ১৪ আগস্ট থেকে শুরু হওয়া ভারি বৃষ্টির কারণে কর্নাটকে বন্যা পরিস্থিতি এখা দিয়েছে। কর্নাটকের বন্যা পরিস্থিতিতে সেখানকার মুখ্যমন্ত্রী এইচ ডি কুমারস্বামীর সঙ্গে ইতিমধ্যেই ফোনে কথা বলেছেন ভারতের রাষ্ট্রপতি রামনাথ কোবিন্দ এবং প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। কর্নাটকের বন্যা মোকাবিলায় ভারতীয় সেনা ও জাতীয় বিপর্যয় মোকাবিলা বাহিনীর প্রায় আড়াই হাজারের উপর জওয়ান দ্রুতগতিতে উদ্ধার কাজ চালাচ্ছেন।  স্থানীয় স্বেচ্ছাসেবকরাও চালাচ্ছেন উদ্ধার কাজ। টানা বৃষ্টির জেরে নতুন করে রবিবার প্লাবিত হয়েছে কর্নাটকের সুন্টিকোপ্পা, সোম্বারপেট, হারাঙ্গি, মোক্কাডলু, সিদ্দাপুরা এবং কুশলনগর এলাকা। ইতিমধ্যেই হেলিকপ্টারে বন্যা দুর্গত এলাকা ঘুরে দেখেছেন কর্নাটকের মুখ্যমন্ত্রী কুমারস্বামী।

অন্যদিকে, তামিলনাড়ু রাজ্যেও দেখা দিয়েছে বন্যা পরিস্থিতি। তামিলনাড়ুর কাবেরী ও তার শাখা নদীগুলি থেকে উপচে উঠেছে পানি। বন্যা পরিস্থিতি দেখা দিয়েছে তামিলনাড়ুর ১৩ টি জেলায়। ইতিমধ্যেই ওইসব জেলাগুলিতে জারি করা হয়েছে বন্যা সতর্কতা। তার উপর ভারী বৃষ্টিতে এবং তামিলনাড়ুর মেট্টুর, পেরিয়ার এবং ভাইগাই বাঁধ থেকে পানি ছাড়ার কারণে মাদুরাই, ঠেনি, কোয়েম্বাটুর সব বিভিন্ন এলাকা এখন পানির তলায়।

সাব্বির// এসএমএইচ//২১শে আগস্ট, ২০১৮ ইং ৬ই ভাদ্র, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ

Check Also

বিপদ জয় করে বিজয়ের দেশে ফিরে আসা

জার্নাল ডেস্ক : জাতিসংঘ শান্তিরক্ষা মিশনে অংশ নেওয়া বাংলাদেশ নৌ বাহিনীর জাহাজ ‘বিজয়’  সাক্ষাৎ বিপদ …

‘টাকা দিয়ে বিপদ কিনেছি’

জার্নাল ডেস্ক ‘টাকা দিয়ে বিপদ কিনেছি ‘।    এভাবেই নিজের হতাশার কথা  জানিয়েছেন বসনিয়ায় আটকে …