খোদ সাবেক প্রেসিডেন্টের পরিবারই নেই আসামের নাগরিকপঞ্জীতে

আর্ন্তজাতিক ডেস্ক :

ভারতের আসামের জাতীয় নাগরিকপঞ্জীর (এনআরসি) চূড়ান্ত খসড়া থেকে যে ৪০ লাখ মানুষ বাদ পড়েছেন, তাদের মধ্যে আছেন সাবেক প্রেসিডেন্ট ফখরুদ্দিন আলি আহমেদের পরিবারও। এই ঘটনায় দেশটিতে চাঞ্চল্যের সৃষ্টি হয়েছে। ভারতের সংবাদ বিষয়ক ওয়েবসাইট স্ক্রল এই খবর দিয়েছে।
খবরে বলা হয়, ফখরুদ্দিন ছিলেন ভারতের পঞ্চম প্রেসিডেন্ট। তিনি ১৯৭৪ থেকে ১৯৭৭ সাল পর্যন্ত এই পদে আসীন ছিলেন।
জাতীয় নাগরিকপঞ্জীতে ভারতের বৈধ নাগরিক হিসেবে তালিকাভুক্তির জন্য মোট ৩ কোটি ২৯ লাখ মানুষ আবেদন করেছিলেন। এদের মধ্যে ২ কোটি ৮৯ লাখ মানুষের নাগরিকত্ব যাচাই করে তালিকায় স্থান দেওয়া হয়েছে। বাদ পড়েছে প্রায় ৪০ লাখ।
সাবেক প্রেসিডেন্টের ভাই লেফটেন্যান্ট একরামুদ্দিন আলি আহমেদের ছেলে জিয়াউদ্দিন আহমেদ নিশ্চিত করেছেন যে, তাদের পরিবারের নাম নাগরিকপঞ্জী থেকে বাদ পড়েছে।
তিনি বলেছেন, তালিকায় যাতে তার পরিবারের নাম অন্তর্ভূক্ত হয়, সেজন্য প্রয়োজনীয় দলিল খুঁজে বের করার চেষ্টা করবেন তিনি। আসামের কামরূপ জেলার রাঙিয়া শহরে তাদের বসবাস।
জিয়াউদ্দিনের ভাষ্য, ‘আমি ভারতের সাবেক প্রেসিডেন্ট ফখরুদ্দিন আলি আহমেদের ভাতিজা। আমার নাম নাগরিকপঞ্জীতে নেই। আমার পিতার নামও বংশপরম্পরার উপাত্তে নেই। আমরা এ নিয়ে কিছুটা উদ্বিগ্ন।’
আসামের নাগরিকপঞ্জী মোতাবেক, ১৯৭১ সালের ২৪ মার্চ মধ্যরাতের পূর্বে আসামে অবস্থান যারা করেন নি, তারা ও তাদের বংশধরদের বিদেশী বলে গণ্য করা হবে। তবে রাজ্য সমন্বয়ক প্রতীক হাজেলা সোমবার বলেছেন, যাদেরকে খসড়ায় অন্তর্ভূক্ত করা হয়নি, তারা নিজেদের দাবি ও আপত্তি উত্থাপন করতে পারবেন। এই প্রক্রিয়া ৩০শে আগস্ট থেকে শুরু হয়ে ২৮শে সেপ্টেম্বর পর্যন্ত চলবে। চূড়ান্ত তালিকা প্রকাশিত হবে ৩১শে ডিসেম্বরের মধ্যে।
পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় সহ দেশটির বেশ কয়েকজন শীর্ষস্থানীয় নেতা এই নাগরিকপঞ্জী নিয়ে তীব্র প্রতিক্রিয়া দেখিয়েছেন। তারা বলছেন, এর মাধ্যমে বিজেপি সরকার ধর্মীয় সংখ্যালঘু সম্প্রদায়কে টার্গেট করছে।

সাব্বির// এসএমএইচ//২রা আগস্ট, ২০১৮ ইং ১৮ই শ্রাবণ, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ

Check Also

বিপদ জয় করে বিজয়ের দেশে ফিরে আসা

জার্নাল ডেস্ক : জাতিসংঘ শান্তিরক্ষা মিশনে অংশ নেওয়া বাংলাদেশ নৌ বাহিনীর জাহাজ ‘বিজয়’  সাক্ষাৎ বিপদ …

‘টাকা দিয়ে বিপদ কিনেছি’

জার্নাল ডেস্ক ‘টাকা দিয়ে বিপদ কিনেছি ‘।    এভাবেই নিজের হতাশার কথা  জানিয়েছেন বসনিয়ায় আটকে …