চট্টগ্রামে বিদ্যূৎ বিব্রাটে জনজীবন বিপর্যস্ত

চট্টগ্রাম ব্যূরো:

বন্দর নগরী চট্টগ্রাম শহরে ঘন ঘন বিদ্যূৎ বিভ্রাটে জনজীবন অচল হয়ে পড়েছে। এতে কলকারখানা, অফিস আদালত, হাসপাতাল, ব্যবসা প্রতিষ্টান, বাসাবাড়ী ও মানুষের দৈনন্দিন কার্যক্রম সহ শিক্ষার্থীদের পড়া লেখায় মারাত্বক ব্যাঘাত সৃষ্টি হয়। গত বুধবার রাত থেকে গতকাল বিকাল পর্যন্ত কয়েকদাফা বিদ্যূৎ চলে যাওয়ায় নরক যন্ত্রানায় কাতরাচ্ছে নগরবাসী। জনজীবনে নেমে আসে বিপর্যয়। মানুষের দৈনন্দিন কাজকর্মে ভাটা পড়ে। চট্টগ্রাম নগরীর খূলীতে স্থাপিত বৈদ্যূতিক সাব ষ্টেশনে(পাওয়ার গ্রীড) কারিগরি গোলযোগ দেখা দেয়ায় এ অবস্থা সৃষ্টি হয়েছে। এসময় চট্টগ্রাম নগরী আলোবিহীন হয়ে অন্ধকার ভূতুড়ে নগরীতে পরিনত হয়।
দেখাগেছে গত বুধবার রাত ৮ার দিকে হঠাৎ শহরে বিদ্যূৎ চলে যায়। হঠাৎ করে বিদ্যূৎ চলে যাওয়াতে রাস্তাঘাটে পথচারীরা ভোগান্তিতে পড়ে যায়। নিভে যায় সড়ক বাতি। শহরের অলিগলি ও আশেপাশের এলাকা ভূতুড়ে পরিবেশের সৃষ্টি হয়। দোকান পাঠ, ব্যবসা প্রতিষ্টান, কারখানা, হাসপাতাল সহ জনগুরুত্বপূর্ণূ স্থাপনা, বাসাবাড়ী এমনকি শিক্ষার্থীদের পড়া লেখায় চরম ব্যাঘাত দেখা দেয়। বাসাবাড়ির মানুষজন গরমে অতিষ্ট হয়ে রাস্তায় ও অলি গলিতে নেমে আসে। ঘর মূখো মানুষেরা অন্ধকারে নিরাপত্তাহীন হয়ে পড়ে। দীর্ঘ ৪ ঘন্টা নগরী আলোবিহীন অন্ধকারে থাকার পর রাত ১২ টায় পূনরায় বিদ্যূৎ সচল হলে নগরবাসী কিছুটা স্বস্থি ফিরে পায়।
পিডিবির কর্মকর্তারা জানান খূলশীল ১৩২/৩ কেবি ক্ষমতা সম্পন্ন বৈদ্যূতিক সাব ষ্টেশনের সার্কিটে ক্রটি দেখা দিয়েছিল। ফলে রাত ৮ টা থেকে নগরীর বেশ কিছু এলাকায় বিদ্যূৎ সরবরাহে বিঘœ ঘটে। পরে মেরামত করে পূর্নরায় বিদ্যূৎ সরবরাহ সচল করা হয়েছে। পিডিবির বিশেষজ্ঞরা সরবরাহ স্বাভাবিক রাখার চেষ্টা করে যাচ্ছেন। আশাকরা যায় রাত ১২ টার দিকে বিদ্যূৎ সরবরাহ স্বাভাবিক হবে।
আরো জানাগেছে গত বুধবার রাত ৮টা থেকে নগরীর খুলশী, জিইসি মোড়, আন্দারকিল্লা, পূর্বমাদারবাড়ী, পশ্চিমমাদারবাড়ি, কদমতলী, বাটালীরোড, সদরঘাট, আগ্রাবাদ, ২নং গেইট, লালখানবাজার, জামালখান, সহ গুরুত্বপূর্ণ এলাকায় বিদ্যূৎ চলে যায়। হঠাৎ করে বিদ্যূৎ চলে যাওয়াতে রাস্তাঘাটে পথচারীরা ভোগান্তিতে পড়ে যায়। নিভে যায় সড়ক বাতি।
পিডিবির প্রধান প্রকৌশলী প্রবীর কুমার সেন বলেন রাত ৮ টার দিকে খুলশী সাবষ্টেশন গুলোতে গুলযোগ দেখা দেয়ায় নগরীর কয়েকটি এলাকায় বিদ্যূৎ চলে যায়। আমরা চেষ্টা করে রাত ১২ টা দিকে সরবরাহ স্বাভাবিক করার চেষ্টা করেছি।
এদিকে গতকাল সকাল ১১ টা থেকে বিকাল পযন্ত আবারো ঘন ঘন বিদ্যূৎ বিভ্রাটের ফলে মানুষের ভূগান্তি চরমে পৌঁছেছে। শহরের গরুত্ব জায়গাতে দিনের অধিকাংশ সময় বিদূৎ ছিলনা। এতে অফিস আদালত সহ জনবীবরে অচলাবস্থার সৃষ্টি হয়।
খূলীতে স্থাপিত বৈদ্যূতিক সাব ষ্টেশনে(পাওয়ার গ্রীড)সূত্র জানায় কারিগরি ক্রুটির কারনে বিদ্যুৎ সঞ্চালনে একটু সাময়িক অসুবিদার সৃষ্টি হয়েছে। জরুরী ভাবে মেরামত কাজ চলছে। কাজ শেষে বিদ্যূৎ অল্প সময়ে বিদ্যূৎ সরবরাহ স্বাভাবিক হয়ে যাবে।।####

Check Also

বিপদ জয় করে বিজয়ের দেশে ফিরে আসা

জার্নাল ডেস্ক : জাতিসংঘ শান্তিরক্ষা মিশনে অংশ নেওয়া বাংলাদেশ নৌ বাহিনীর জাহাজ ‘বিজয়’  সাক্ষাৎ বিপদ …

‘টাকা দিয়ে বিপদ কিনেছি’

জার্নাল ডেস্ক ‘টাকা দিয়ে বিপদ কিনেছি ‘।    এভাবেই নিজের হতাশার কথা  জানিয়েছেন বসনিয়ায় আটকে …