দোহাজারী পৌরসভার জামিজুরীর সড়ক সংস্কার কাজে অনিয়মের অভিযোগ

0

হাজ্বী মোঃ শহীদুল ইসলাম:

দোহাজারী পৌরসভার জামিজুরী আদর্শ গ্রামের সড়কে সংস্কার কাজে ব্যাপক অনিয়মের অভিযোগ তুলেছেন স্থানীয়রা। অভিযোগের সত্যতা পেয়ে সহকারি প্রকৌশলী সংস্কার কাজ বন্ধ করে দিয়েছেন বলে জানা যায়।

সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায়, স্থানীয় সরকার প্রকৌশল অধিদপ্তরের গুরুত্বপূর্ণ নগর অবকাটামো উন্নয়ন প্রকল্পের অর্থায়নে দোহাজারী পৌরসভার তত্বাবধানে জামিজুরী আদর্শ গ্রাম প্রায় ১ কি.মি. সড়কের  সিসি ঢালাইয়ের কাজ এগিয়ে চলছে। স্থানীয়দের অভিযোগ সংশ্লিষ্ট টিকাদার সিডিউল মোতাবেক নির্মাণ সামগ্রী ব্যবহার না করে নিম্নমানের সামগ্রী দিয়ে সংস্কার কাজ চালিয়ে যাচ্ছে।

সিডিউল অনুযায়ী ৯৮ লক্ষ টাকা ব্যয়ে সড়কটি আর সিসি ঢালাইয়ের জন্য ১০ ফুট চাওড়া সড়কে, ১০ এম এম রড দিয়ে ১/১১ ইঞ্চি, ৬ ইঞ্চি পাথর ঢালাই, ৭৫ মি.মি কংকিট ঢালাই দেয়ার কথা রয়েছে। সে সাথে উন্নতমানের পাথর, বালি, কংকিট দিয়ে কাজ করার কথা থাকলেও সংশ্লিষ্ট টিকাদার বাতিল পাথর, নিম্নমানের কংকিট, মাটি মিশ্রিত স্থানীয় বালি দিয়ে যেন তেনভাবে কাজ শেষ করার পায়তারা চালাচ্ছে বলে স্থানীয়দের অভিযোগ। সড়কের বিভিন্ন স্থানে আর সিসি ঢালাই বিভিন্ন স্থানে ফাটল দেখা গেছে।

এ বিষয়ে অভিযোগ পেয়ে সহকারি প্রকৌশলী শামীম মৃধা গত ২৫ জুন সড়ক নির্মানের কাজ বন্ধ করে দেন বলে জানান। তিনি আরও বলেন স্থানীয়দের অভিযোগের সত্যতা পেয়ে উপ-সহকারি প্রকৌশলী জমির উদ্দিন কাজেরস্থলে  গিয়ে বাতিল যোগ্য পাথর, নিম্নমানের বালি ও কংকিট ব্যবহার না করার কথা বলে কাজ বন্ধ করে দেন। এ ব্যাপারে উপ-সহকারি প্রকৌশলী জমির উদ্দিন বলেছেন, তিনি অভিযোগের সত্যতা পেয়ে ঐ সকল পাথর, বালি, কংকিট ফেরত নিতে বলেন। সাথে সাথে কাজ বন্ধ করে দিয়েছেন বলে জানান।

দোহাজারী পৌরসভার প্রশাসক ও নির্বাহী কর্মকর্তা ইমতিয়াজ হোসেন বলেছেন, কাজের অনিয়মের অভিযোগ শুনে তিনি সরেজমিনে গিয়ে তা দেখেন। নিম্নমানের বাতিলযোগ্য পাথর ফেরত নিতে বলে কাজ বন্ধ করে দেন। যদিও চলতি অর্থ বছরের কাজ  হিসেবে জুন মাসে শেষ হওয়ার কথা থাকলেও নির্দিষ্ট সময়ে কাজ শেষ করা সম্ভব হবেনা

করোনাভাইরাসের কারণে অনেক দিন কাজ বন্ধ ছিল। এ সময় নিম্নমানের নির্মাণ সামগ্রী পরিবর্তন না করলে টিকাদারকে কোন রকম সড়কের কাজ করতে দেয়া হবেনা বলে তিনি জানান।

 

Share.

About Author

Comments are closed.