নওগাঁয় সড়ক দূর্ঘটনায় পা হারানো স্কুল ছাত্রের মৃত্যু

নওগাঁ প্রতিনিধি:

নওগাঁয় সড়ক দূর্ঘটনায় পা হারানো স্কুল ছাত্র মোস্তাফিজ নিলয় (১৫) চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা গেছে। শুক্রবার রাত সাড়ে ৮টার দিকে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় সে মারা যায়। এ ঘটনায় নিলয়ের দুই বন্ধু রাকিব হোসেন(১৬) ও সাদমান (১৬) আহত হয়। এরা সবাই নওগাঁ কেডি সরকারি উচ্চ বিদ্যালয়ের নবম শ্রেনীর ছাত্র। নিলয় নওগাঁ শহরের মাস্টারপাড়ার আফতাব মোল্লার ছেলে। শুক্রবার বিকেল ৬টার দিকে শহরের বাইপাস সড়কে বেডো অফিসের পাশে এ দূর্ঘটনা ঘটে। ঘটনার পর থেকে নিলয়ের বাড়ীতে চলছে শোকের মাতম। উড়তি বয়সিরা বেপারোয়া গতিতে মোটর সাইকেল চালানোকে দায়ী করেছেন এলাকাবাসী। এ বিষয়ে প্রশাসনের সুদৃষ্টি কামনা করেছে সচেতন মহল। আর কোন বাবা-মার কোল যেন খালি না হয় এমনটাই প্রত্যাশা নওগাঁবাসীর।

সম্প্রতি রাজধানী ঢাকায় সড়কে বেপরোয়াভাবে গাড়ি চালানোর শিকার হয়ে হাত হারানোর কয়েক দিন পর মারা যান কলেজ ছাত্র রাজীব। এরপর বাসচাপায় পা হারিয়ে চিরবিদায় নেন গৃহকর্মী রোজিনা। এমন শোক কাটিয়ে না উঠতেই সড়ক দূর্ঘটনায় ডান পা হারিয়ে মারা গেল স্কুল ছাত্র মোস্তাফিজ নিলয়।

শুত্রবার বিকেলে নিলয়সহ তিন বন্ধু মোটর সাইকেল নিয়ে ঘুরতে বের হয়। নিলয় মোটর সাইকেলটি চালাচ্ছিল এবং অপর দুই বন্ধু রাকিব হোসেন ও সাদমান পিছনে বসা ছিল। শহরের বাইপাস ব্রীজ এলাকা থেকে শান্তাহারের দিকে যাওয়ার সময় বিপরীত দিক থেকে আসা একটি ভটভটি বেডো অফিসের পাশে মোটর সাইকেলটিকে ধাক্কা দেয়। এতে মোটরসাইকেল নিয়ে তারা রাস্তার উপর ছিটকে পড়ে। এতে নিলয়ের ডান পা হাঁটু থেকে আলাদা হয়ে যায়। এসময় দুইবন্ধু আহত হয়।

তাদের উদ্ধার করে প্রথমে নওগাঁ সদর হাসপাতালে প্রাথমিক চিকিৎসা দেয়া হয়। তবে নিলয়ের অবস্থা আশঙ্কাজনক হওয়ায় পরে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেয়া হয়। সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় রাত সাড়ে ৮টার দিকে নিয়ল মারা যায়। পরে রাতেই রাকিব হোসেন ও সাদমান রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেয়া হয়। শনিবার সকাল ১০ টায় নওগাঁ কেডি সরকারি উচ্চ বিদ্যালয় ও ১১টায় নওযোয়ান মাঠে নামাযে জানাযা শেষে পারিবারিক কবরস্থানে নিলয়ের দাফন সম্পন্ন হয়।

সচেতন মহল বলছেন, প্রশাসন থেকে নীবর ভূমিকা পালন করে। যার কারণে উড়তি বয়সি ছেলেরা বেপারোয়া ভাবে মোটর সাইকেল চালানোর ফলে এমন দূর্ঘটনার শিকার হয়। এ বিষয়ে প্রশাসনের সুদৃষ্টি কামনা করা হয়েছে।

বাংলাদেশের কমিউনিষ্ট পার্টি (সিপিবি) নওগাঁ জেলা শাখার সভাপতি অ্যাডভোকেট মহসিন রেজা বলেন, শহরের স্বল্প প্রস্থতা রাস্তায় উড়তি বয়সি কিশোররা মোটর সাইকেল নিয়ে রেইস প্রতিযোগীতা করে। ফলে পথচারিরা নিরাপত্তাহীনতায় ও আতঙ্কের মধ্যে থাকে। এইসব কিশোরদের লাইসেন্স গ্রহন করার বয়স হয়নি। এছাড়া আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীরাও কখনো লক্ষ্য করেন না। নিলয় মারা যাওয়াতে প্রশাসন হয়ত কিছুটা তৎপর হবে। কিন্তু এই তৎপরতা হয়তো সাময়িক ও অপর্যাপ্ত।

নওগাঁ অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (ক্রাইম) রকিবুল আক্তার বলেন, যানবাহনের ক্ষেত্রে আগের তুলনায় প্রশাসনিক ব্যবস্থার অনেক উন্নতি হয়েছে। এসব বিষয় নিয়ে নিয়মিত আমরা পদক্ষেপ নিয়। নিয়মিত চেকপোষ্ট বসানো হয়। যেখানে হেলমেট ছাড়া, রেজি: বিহনী মোটর সাইকেল ও তিন জনের বেশি থাকলে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়। এছাড়া কিশোররা যদি বেপারোয়া মোটর সাইকেল চালায় তাদের আটক করে অভিভাবকদের ডেকে মুচলেকা নিয়ে ছেড়ে দেয়া হয়।

সাইফুল//এসএমএইচ//৫ই মে, ২০১৮ ইং ২২শে বৈশাখ, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ

Check Also

বিপদ জয় করে বিজয়ের দেশে ফিরে আসা

জার্নাল ডেস্ক : জাতিসংঘ শান্তিরক্ষা মিশনে অংশ নেওয়া বাংলাদেশ নৌ বাহিনীর জাহাজ ‘বিজয়’  সাক্ষাৎ বিপদ …

‘টাকা দিয়ে বিপদ কিনেছি’

জার্নাল ডেস্ক ‘টাকা দিয়ে বিপদ কিনেছি ‘।    এভাবেই নিজের হতাশার কথা  জানিয়েছেন বসনিয়ায় আটকে …