নদীতে দিন-রাত জাল ফেলেও মিলছে না ইলিশ, হতাশ জেলেরা

নিজস্ব প্রতিবেদক :

লক্ষ্মীপুরের মেঘনা নদীতে দিন-রাত জাল ফেলেও জেলেদের জালে মিলছে না ইলিশ। এতে করে হতাশ হয়ে পড়েছেন উপকূলের কয়েক হাজার জেলে। মাছ ঘাটগুলোতে ইলিশের আমদানি না থাকায় অলস সময় কাটাচ্ছেন আড়ৎদাররা। তবে প্রজনন মৌসুমের পরে জেলেদের জালে প্রচুর পরিমাণ ইলিশ ধরা পড়বে বলে আশা করছেন জেলা মৎস্য বিভাগ।লক্ষ্মীপুরের রামগতির আলেকজান্ডার থেকে চাঁদপুরের ষাটনল পর্যন্ত মেঘনা নদীর ১শ’ কিলোমিটার এলাকা জুড়ে ইলিশের অভয়াশ্রম। এ জেলায় প্রায় ৪৭ হাজার জেলে প্রতিদিন নদীতে মাছ শিকার করে জীবিকা নির্বাহ করেন। গেল মার্চ-এপ্রিল দু’মাস নদীতে ইলিশ উৎপাদনের লক্ষ্যে সকল প্রকার মাছ ধরা নিষিদ্ধ ছিল।নিষেধাজ্ঞা তুলে নেয়ার পর জেলেরা নদীতে মাছ শিকার করতে গিয়ে ফিরছে খালি হাতে। ইলিশের এমন দুর্দিনে অনেকটা হতাশাগ্রস্ত হয়ে পড়েছে মৎস্য ব্যবসায়ী ও জেলেরা। নদীতে মাছ না পাওয়ায় পরিবার পরিজন নিয়ে মানবেতর জীবন কাটছে জেলে পরিবারগুলোর।জেলে ও আড়ৎদাররা জানায়, দিন-রাত নদীতে জাল ফেলে যে মাছ শিকার করছে তা দিয়ে ইঞ্জিন চালিত নৌকার তেলের খরচও মিলছে না। মার্চ-এপ্রিল দুই মাস নদীতে মাছ শিকারে নিষেধাজ্ঞা ছিল। নিষেধাজ্ঞা উঠে গেছে। কিন্তু নদীতে মাছ নেই বললেই চলে।তবে নদীতে নব্যতা সংকটের কারণে জেলেদের জালে আশানরুপ ইলিশ মিলছে না বলে দাবি করেন কেউ কেউ।জেলা মৎস্য কর্মকর্তা এম. মহিব উল্লাহ জানান, প্রজনন মৌসুম আশ্বিন মাসের পূর্ণিমার সময় সমুদ্র থেকে ইলিশ নদীতে ডিম ছাড়তে আসে। তখন উপকূলে জেলেদের জালে প্রচুর ইলিশ ধরা পড়ে। ডিম ছেড়ে সমুদ্রে চলে যাওয়ার কারণে বর্তমান সময়ে জেলেরা ইলিশ পাচ্ছে না।আগামী কয়েক দিনের মধ্যে প্রচুর পরিমাণ ইলিশ পাওয়া যাবে বলেও আশা জেলা মৎস্য বিভাগের এই কর্মকর্তার

 সাইফুল//এসএমএইচ//১৫ই মে, ২০১৮ ইং ১লা জ্যৈষ্ঠ, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ     

Check Also

বিপদ জয় করে বিজয়ের দেশে ফিরে আসা

জার্নাল ডেস্ক : জাতিসংঘ শান্তিরক্ষা মিশনে অংশ নেওয়া বাংলাদেশ নৌ বাহিনীর জাহাজ ‘বিজয়’  সাক্ষাৎ বিপদ …

‘টাকা দিয়ে বিপদ কিনেছি’

জার্নাল ডেস্ক ‘টাকা দিয়ে বিপদ কিনেছি ‘।    এভাবেই নিজের হতাশার কথা  জানিয়েছেন বসনিয়ায় আটকে …