নির্দেশ দেওয়া নয়, করে দেখাতেই স্বাচ্ছন্দ্য 

বিজয় মন্ডল:

সাতক্ষীরা জেলার শ্যামনগর উপজেলার বিভিন্নস্থানে জলাবদ্ধতা নিরসনে নিজেই কোদাল হাতে নেমেছেন সাতক্ষীরা ৪ আসনের সংসদ সদস্য এস এম জগলুল হায়দার । তার কথাতে- আমি নির্দেশ দেওয়া নয়, কাজ করে দেখাতেই স্বাচ্ছন্দ্য বোধ করি।
বিগত বছর গুলোতেও দেখা গেছে বর্ষা মৌসুমে যে সময় এলাকার মানুষেরা জলাবদ্ধতায় ভোগে, প্রতিকূল আবহাওয়ার কারণে সাধারণ মানুষ যখন ঘর থেকে বাহির হতে পারেন না, ঠিক তখনই সংসদ সদস্য হয়েও এস এম জগলুল হায়দার সাধারণ মানুষদের সাথে কোমরে গামছা বেঁধে শ্রমিকের বেশে জলাবদ্ধতা নিরসনে নিরলস কাজ করেন।
 উপজেলার বিভিন্ন এলাকায় এরই ধারাবাহিকতায় শনিবার সকাল ৮টা থেকে তাকে বিভিন্ন স্থানে জলাবদ্ধতা দেখে আশপাশ থেকে কোদাল নিয়ে জলাবদ্ধতা নিরসনে কাজ করতে দেখা যায়।
 এ বিষয়ে সাংসদ জগলুল হায়দারের সাথে কথা হলে তিনি বলেন, কোন কাজ ছোট নয়, কাজ সবারই জন্য, উন্নয়ন সবার জন্য, নির্দেশ দেওয়া নয়, কাজ  করে দেখাতে স্বাচ্ছন্দ্য বোধ করি আমি। আমি কখনও নেতা হিসেবে নিজেকে প্রকাশ করি না। আমি চাই আমার কাজ দেখে সবাই উন্নয়ন কাজে এগিয়ে আসুক। সবাই মিলে গড়ে তুলুক উন্নত বঙ্গবন্ধুর সোনার বাংলাদেশ।
আমার কাজ দেখে আমি আশা করছি এ এলাকার আরো যারা আছেন অন্যান্য ব্যক্তিরাও আমার সাথে কাঁধে কাঁধ মিলিয়ে এলাকার জলাবদ্ধতা নিরসনে কাজ করবেন।যাতে করে এই এলাকার মানুষেরা জলাবদ্ধতার মত অভিশাপ থেকে মুক্তি পায়।
সংসদ সম্পর্কে এলাকর মানুষের কাছে জানতে চাইলে অনেকেই বলেন, জগলুল হায়দার কে সংসদ সদস্য হিসেবে আমরা দেখি না, আমরা মেজে ভাই হিসেবে তাকে চিনি, যখনই আমরা কোন বিপদে পড়ি ছোট থেকে বড় সবখানে মেজ ভাই আমাদের সাথে অংশ নেন ।
আমাদের বিভিন্ন সমস্যা সমাধানের জন্য তিনি আপ্রাণ চেষ্টা করেন । প্রতি বছরই তিনি এলাকার জলাবদ্ধতা সহ বিভিন্ন সমস্যা সমাধানের জন্য উপজেলার বিভিন্ন  এলাকা ঘুরে সমাধানের চেষ্টা করেন বলে জানা যায়।

সাব্বির// এসএমএইচ//২১শে জুলাই, ২০১৮ ইং ৬ই শ্রাবণ, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ

Check Also

বিপদ জয় করে বিজয়ের দেশে ফিরে আসা

জার্নাল ডেস্ক : জাতিসংঘ শান্তিরক্ষা মিশনে অংশ নেওয়া বাংলাদেশ নৌ বাহিনীর জাহাজ ‘বিজয়’  সাক্ষাৎ বিপদ …

‘টাকা দিয়ে বিপদ কিনেছি’

জার্নাল ডেস্ক ‘টাকা দিয়ে বিপদ কিনেছি ‘।    এভাবেই নিজের হতাশার কথা  জানিয়েছেন বসনিয়ায় আটকে …