পরমাণু নিরস্ত্রীকরণের আগে পিয়ংইয়ংয়ের ওপর থেকে অবরোধ প্রত্যাহার নয়: পম্পেও

আর্ন্তজাতিক ডেস্ক :

যুক্তরাষ্ট্রের পররাষ্ট্রমন্ত্রী মাইক পম্পেও বলেছেন, উত্তর কোরিয়ার নেতা কিম জং উন উপলব্ধি করতে পেরেছেন যে পরমাণু নিরস্ত্রীকরণ দ্রুতই শেষ করতে হবে। কাজেই এ প্রক্রিয়া শেষ না হওয়া পর্যন্ত নিষেধাজ্ঞা প্রত্যাহার করা হবে না।
সিঙ্গাপুরে ট্রাম্প-কিমের ঐতিহাসিক বৈঠকের পর বৃহস্পতিবার সিউলে দক্ষিণ কোরিয়ার পররাষ্ট্রমন্ত্রীর সঙ্গে আলোচনা শেষে তিনি এসব কথা বলেন।
এদিকে উত্তর কোরিয়া আর পরমাণু হুমকি হিসেবে থাকছে না বলে জানিয়েছেন যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। মঙ্গলবার সিঙ্গাপুরের সানতোসা দ্বীপে উত্তর কোরিয়ার নেতা কিম জং উনের সঙ্গে ঐতিহাসিক বৈঠকের পর যুক্তরাষ্ট্রে ফিরে তিনি এ কথা বলেন।
তবে উত্তর কোরিয়া তাদের পরমাণু কর্মসূচি পুরোচুরি পরিত্যাগ করবে কিনা তা নিয়ে সন্দেহ রয়েই গেছে।

বুধবার এক টুইটে ট্রাম্প বলেন, আমি যখন দায়িত্ব গ্রহণ করেছিলাম, সেই তুলনায় এখন সবাই অনেক বেশি নিরাপদ বোধ করতে পারেন।
তিনি বলেন, উত্তর কোরিয়ার পরমাণু অস্ত্র হামলার হুমকি আর নেই। কিম জং উনের সঙ্গে বৈঠক চমৎকার এবং খুবই ইতিবাচক অভিজ্ঞতা। উত্তর কোরিয়ার সম্ভাব্য ভবিষ্যৎ অনেক উজ্জ্বল।
সিঙ্গাপুরের বৈঠকে কিম কোরীয় উপদ্বীপ সম্পূর্ণরূপে পরমাণু অস্ত্রমুক্ত করতে রাজি হয়েছেন।
বিনিময়ে ট্রাম্প ওই অঞ্চলে তাদের মিত্র দেশ দক্ষিণ কোরিয়ার সঙ্গে যৌথ সামরিক মহড়া বন্ধ করার প্রতিশ্র“তি দিয়েছেন।
উত্তর কোরিয়া সবসময়ই ওই মহড়াকে যুদ্ধের উসকানি বলে বিবেচনা করে। ট্রাম্প বলেন, প্রেসিডেন্টের দায়িত্ব নেওয়ার আগে লোকজনের ধারণা ছিল আমরা উত্তর কোরিয়ার সঙ্গে যুদ্ধ বাধাব।
তৎকালীন প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামা বলেছিলেন, উত্তর কোরিয়া আমাদের সবচেয়ে বড় এবং সবচেয়ে বিপজ্জনক সমস্যা। কিন্তু এখন আর তা নেই।

ট্রাম্পই যুক্তরাষ্ট্রের প্রথম কোনো প্রেসিডেন্ট যিনি উত্তর কোরিয়ার কোনো শীর্ষ নেতার সঙ্গে মুখোমুখি বৈঠক করলেন।
কিমের সঙ্গে বৈঠকের পর ওই দিনই এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি উত্তর কোরিয়ার ওপর থেকে নিষেধাজ্ঞা তুলে নেয়ার ইচ্ছার কথা জানান। যদিও খুব শিগগির নিষেধাজ্ঞা প্রত্যাহার হবে না বলেও জানিয়েছেন তিনি।
উত্তর কোরিয়ার রাষ্ট্রীয় সংবাদমাধ্যমে (কেসিএনএ) বৈঠকের খবর ফলাও করে প্রচার করা হয়।
এ বৈঠকে উত্তর কোরিয়া সফল হয়েছে দাবি করে কেসিএনএর প্রতিবেদনে বলা হয়, ট্রাম্প যুক্তরাষ্ট্র-দক্ষিণ কোরিয়া সামরিক মহড়া বন্ধ রাখার ইচ্ছা প্রকাশ করেছেন এবং উত্তর কোরিয়ার নিরাপত্তা নিশ্চিত করার প্রতিশ্র“তি দিয়েছেন।
সেই সঙ্গে সম্পর্কের আরও উন্নতি হলে উত্তরের ওপর থেকে নিষেধাজ্ঞা প্রত্যাহারের কথাও বলেছিলেন তিনি।

সাব্বির// এসএমএইচ//১৪ই জুন, ২০১৮ ইং ৩১শে জ্যৈষ্ঠ, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ

Check Also

বিপদ জয় করে বিজয়ের দেশে ফিরে আসা

জার্নাল ডেস্ক : জাতিসংঘ শান্তিরক্ষা মিশনে অংশ নেওয়া বাংলাদেশ নৌ বাহিনীর জাহাজ ‘বিজয়’  সাক্ষাৎ বিপদ …

‘টাকা দিয়ে বিপদ কিনেছি’

জার্নাল ডেস্ক ‘টাকা দিয়ে বিপদ কিনেছি ‘।    এভাবেই নিজের হতাশার কথা  জানিয়েছেন বসনিয়ায় আটকে …