পূজার নাডু, সন্দেশ আর মোয়া

লাইফস্টাইল ডেস্ক :

আজ থেকেই শুরু শারদীয় দুর্গা পূজা। আর এই উৎসবে থালা ভরা নাড়ু, সন্দেশ ও মোয়া না হলে কি খাওয়ার মজা আছে। জেনে নিন পূজার বিশেষ খাবার নাড়ু, সন্দেশ আর মোয়ার রেসিপি।

গুড়ের সন্দেশের উপকরণঃ

নারকেল ১টি, আখের গুড় ১ পোয়া, সন্দেশের ছাঁচ, চেঁছে ধুয়ে রাখা নারকেলের মালা।

প্রণালিঃ

গুড় ও নারকেল অল্প পানিতে মাখিয়ে চুলায় দিতে হবে। অল্প আঁচে ক্রমাগত নেড়ে খয়েরি রঙ করুন।

তারপর নারকেলের মালা দিয়ে পিষে নিন। একপর্যায়ে নারকেল কড়াই থেকে উঠে আসবে। তখনই দ্রুত ছাঁচে ফেলে সন্দেশ বানিয়ে নিন। বাতাসে রেখে শুকালেই তৈরি হয়ে যাবে পূজার সন্দেশ।

নারকেলের নাড়ুর উপকরণঃ

নারিকেল ২টি, আধা কেজি চিনি অথবা আধা কেজি গুড়, এলাচ গুঁড়া, তেজপাতা ও আধা কেজি গুঁড়া দুধ।

প্রণালিঃ নারকেল কুড়িয়ে নিতে হবে। এরপর দুধ, কোরানো নারকেল, চিনি অথবা গুড় মিশিয়ে কড়াইয়ে বসিয়ে দিন। তবে সঙ্গে দিতে হবে তেজপাতা এবং এলাচ গুঁড়া। এরপর কড়ইয়ে সব উপকরণ ভাজতে হবে। যখন বাদামি রঙ ধারণ করবে তখন কড়াই চুলা থেকে নামিয়ে তেজপাতা ফেলে দিতে হবে। তারপর গরম থাকতে থাকতে হাতে তুলে গোল করে বানিয়ে নিন নারকেলের নাড়ু।

মুড়ির মোয়ার উপকরণঃ

মুড়ি ৫০০ গ্রাম, গুড় ২৫০ গ্রাম, লবণ পরিমাণমতো।

প্রণালিঃ গুড় কড়াইয়ে জ্বাল দিতে হবে। গুড়ে আঁশ হয়ে গেলে মুড়ির মধ্যে ঢেলে দিতে হবে। তারপর বিভিন্ন আকার অনুযায়ী মোয়া তৈরি করে নিন। গুড় আঠালো থাকা অবস্থায় মোয়া বানিয়ে ফেলতে হবে

খইয়ের মুড়কির উপকরণঃ

খই ৫০০ গ্রাম, গুড় ৩০০ গ্রাম।

প্রণালিঃ গুড় কড়াইয়ের মধ্যে জ্বাল দিতে হবে। গুড় আঁশ হয়ে গেলে খইয়ের মধ্যে ঢেলে দিতে হবে। খই নির্দিষ্ট একটি বড় পাত্রে রাখলে খইয়ের মুড়কি বানাতে অনেক সুবিধা হয়। আঠালো হয়ে এলে নামিয়ে পরিবেশন করতে হবে।

সাব্বির// এসএমএইচ//১৬ই অক্টোবর, ২০১৮ ইং ১লা কার্তিক, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ

Check Also

বিপদ জয় করে বিজয়ের দেশে ফিরে আসা

জার্নাল ডেস্ক : জাতিসংঘ শান্তিরক্ষা মিশনে অংশ নেওয়া বাংলাদেশ নৌ বাহিনীর জাহাজ ‘বিজয়’  সাক্ষাৎ বিপদ …

‘টাকা দিয়ে বিপদ কিনেছি’

জার্নাল ডেস্ক ‘টাকা দিয়ে বিপদ কিনেছি ‘।    এভাবেই নিজের হতাশার কথা  জানিয়েছেন বসনিয়ায় আটকে …