প্রতিবন্ধি সাবিনার চ্যালেঞ্জিং জীবন

জার্নাল ডেস্ক

মানুষ জন্ম নেয় একা, দুনিয়া থেকে চিরদিনের জন্য যেতেও হয় একা। এই দুনিয়ায় শারীরিক দিক থেকে অপরিপূর্ণভাবে জন্ম নেয় অনেকেই। অনেকের আবার স্বাভাবিকভাবে জন্ম গ্রহণ করার পরও দুর্ঘটনার কারণে অঙ্গহানি হয় ।

এই সব মানুষগুলো বেঁচে থাকার জীবন সংগ্রামে জীবিকা ,বাসস্থান,সুশিক্ষা, চিকিৎসা জীবনকে সুন্দরভাবে চালিয়ে নেওয়ার আপ্রাণ চেষ্টা ,বাস্তবতার সাথে তাল মিলাতে গিয়ে কঠিন প্রতিযোগিতার সম্মুখীন হতে হয়। অনেকে হার মেনে গন্তব্য হারিয়ে ফেলে। অনেকে প্রচুর সমস্যা কাটিয়ে আকাঙ্খিত গন্তব্যে পৌঁছে যায়।

এমনি একজন হলেন সাবিনা হক। তিনি আন্তর্জাতিক ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ের মাস্টার্স অফ আর্টস ইন ইংলিশ এর ছাত্রী ছিলেন। আই আই ইউসি’র ৫ম সমাবর্তন অনুষ্ঠানে যোগ দিতে শিক্ষা জীবনের শেষ প্রত্যয়ণ পত্র খানা গ্রহণ করার সময় খুশির বন্যায় ভেঙ্গে পড়েন সাবিনা হক। স্রষ্টার কাছে কৃতজ্ঞা প্রকাশ করে বলতে শোনা যায় তাকে, পৃথিবীর প্রত্যেক প্রতিবন্দিদের ঘরে যেন এই ধরনের মা বাবা জন্মায়। আমার মা ও বাবা তাদের সাংসারিক জীবনের সুখ শান্তি বিসর্জন দিয়ে সকল সুখ-শান্তি আমার জন্য ব্যয় করেছেন।

সাবরিনা হক , যে শারীরিক প্রতিবন্ধি হওয়া সত্ত্বেও নিজেকে ঘরে বন্দি করে রাখেনি সে এই অবস্থায় প্লে থেকে মাস্টার’স পর্যন্ত কঠোর পরিশ্রম করে অবশেষে master’s of arts in english language teaching (1st class) পেয়ে নিজের যোগ্যতা অর্জন করে। একটা কথা না বললেই নয় যার অবদান শুরু থেকে সবচেয়ে বেশি তিনি হলেন টেলেন্ট স্কুল এন্ড কলেজের অধ্যক্ষ (মরহুমা) মাহমুদা বেগম। উনি প্লে থেকে এস.এস.সি পর্যন্ত পাঠদানের সুযোগ না দিলে হয়তো আজ এই পর্যায়ে আসতে পারতোনা । তারপর বাংলাদেশ মহিলা সমিতি স্কুল এন্ড কলেজের প্রধান শিক্ষিকা মনোয়ারা বেগমের সহযোগীতায় এইচ.এস.সি পাশ করা সম্ভব হলো। তারপর আন্তর্জাতিক ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ের (আইআইইউসি)প্রত্যোকটি প্রফেসর এর অবদােন অনেক বেশি। বিশেষ করে হুমায়ুন কবির স্যারের অবদান অনেক বেশি।

Check Also

চন্দনাইশে ইয়াবা ট্যাবলেটসহ আটক ১

জার্নাল ডেস্ক চন্দনাইশে গোপন সংবাদের ভিত্তিতে বিশেষ অভিযান চালিয়ে ইয়াবাপাচারকারী এক যুবককে আটক করেছে পুলিশ। …

প্যারিস ফ্যাশন উইকে দীপিকার বাজিমাত

বিনোদন ডেস্ক এ বছর প্যারিস ফ্যাশন সপ্তাহের তৃতীয় দিনে বাজিমাত করেছেন দীপিকা পাড়ুকোন। ‘লুই ভিতোঁ’র …