প্রীতিলতার ভাস্কর্যে পুষ্পমাল্য অর্পন করছেন বিপ্লবী তারকেশ্বর দস্তিদার স্মৃতি পরিষদের নেতৃবৃন্দ।

বীরকন্যা প্রীতিলতা ওয়াদ্দেদার’র ৮৯তম আত্মাহুতি দিবস পালন

জার্নাল ডেস্ক:

বিপ্লবী তারকেশ্বর দস্তিদার স্মৃতি পরিষদ বীরকন্যা প্রীতিলতা ওয়াদ্দেদার এর ৮৯তম আত্মাহুতি দিবসে পাহাড়তলী ইউরোপিয়ান ক্লাবের সামনে প্রীতিলতার ভাস্কর্যে পুষ্পিত শ্রদ্ধাঞ্জলি নিবেদন ও পথসভা করেন।

পথসভায় বক্তারা বলেন, চট্টগ্রাম শহরে সাবেক মেয়র মন্জুরুল আলমের আন্তরিকতায় এই প্রীতিলতার ভাস্কর্যটি নির্মিত হয়, সেজন্য তাহাকে বক্তারা অভিনন্দন জানান। বিপ্লবীদের পথ ধরে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ১৯৭১ সালে স্বাধীনতা যুদ্ধের মাধ্যমে আমাদেরকে স্বাধীন রাষ্ট্রভুমি দিয়ে যান। কিন্তু স্বাধীনতার ৫০ বছরে চট্টগ্রাম শহরে বিপ্লবীদের স্মৃতি রক্ষার জন্য তেমন কোন কাজ হয়নি, সেজন্য বক্তারা দুঃখ প্রকাশ করেন।

ইউরোপিয়ান ক্লাবটি বিপ্লবীদের জাদুঘর হিসেবে সংরক্ষন থাকিলেও এখানে জাদুঘরের কোন কার্যক্রম না থাকাতে সরকারের কাছে জোর দাবী জানান, এই ক্লাবটিকে বিপ্লবীদের স্মৃতি জাদুঘরে বাস্তবে রূপান্তরিত করার জন্য। বীরকন্যা প্রীতিলতাকে নিয়ে দুইটি চলচ্চিত্র নির্মানের কাজ চলমান ও দৈনিক পত্রিকায় প্রীতিলতার ৮৯তম আত্মাহুতি দিবস প্রচারের খবর সারা বাংলাদেশে প্রচারিত হলেও কিন্তু আমাদের দেশে প্রধানমন্ত্রী ও রাষ্ট্রপতির কোন বাণী প্রকাশিত না হওয়ায় হতাশ ও হতবাক হন বক্তারা।

১৯৩০ সালের ১৮ই এপ্রিল যুব বিদ্রোহ দিবসের স্থান জালালাবাদ পাহাড়কে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান বিপ্লবীদের স্মৃতি হিসেবে সংরক্ষণ ও জনসাধারণের জন্য উন্মুক্ত করার প্রতিশ্রুতি প্রদান করিলেও ১৫ই আগষ্ট পরবর্তী সময় হতে এখনও তা বাস্তবে রূপান্তরিত করার জন্য সরকার কোন উদ্যোগ গ্রহণ করেনি। যুব বিদ্রোহ দিবস, প্রীতিলতার আত্মাহুতি দিবস, মাষ্টারদা সূর্য সেন ও তারকেশ্বর দস্তিদার এর ফাঁসি দিবস রাষ্ট্রীয়ভাবে পালনের জন্য জোর দাবী জানান।

বক্তারা বলেন, বাংলাদেশ সরকার ২০০৮ সালে সিআরবি, ইস্পাহানী, পাহাড়তলী, টাইগারপাস অত্র অঞ্চলগুলোকে হেরিটেজ ঘোষণা করা সত্বেও দেশের সংবিধান, রেলওয়ে ভূমি আইন, রেলওয়ে মাষ্টার প্লান, সিডিএর মাষ্টার প্লান, সভ্য দুনিয়ার সকল আইনকে অমান্য করে সিআরবিতে হাসপাতাল নির্মানের বিরুদ্ধে চট্টগ্রামে গত দুই মাস ধরে সিআরবি রক্ষার যে আন্দোলন চলছে সেটি এই অত্র এলাকারও অংশ।

সুতরাং সিআরবি রক্ষা করতে না পারলে আমাদের আন্দোলন সংগ্রামের প্রেরণা বীরকন্যা প্রীতিলতাকেও অবমাননা করা হবে তাই আপনারা যে যেখানে আছেন সেখান থেকে সিআরবি রক্ষার জন্য সংগ্রাম পরিষদ গড়ে তুলুন। উক্ত অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন পরিষদের উপদেষ্টা সাবেক প্রধান শিক্ষক বিজয় শংকর চৌধুরী ও বক্তব্য প্রদান করেন পরিষদের সাধারণ সম্পাদক ইঞ্জিনিয়ার সিঞ্চন ভৌমিক, অর্থ সম্পাদক তপন ভট্টাচার্য্য, জয় বাংলা শিল্প গোষ্ঠির প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি সজল দাশ, এবং উপস্থিত ছিলেন ,পরিষদের সদস্য সচিব সজল শিকদার, বাংলাদেশ মুক্তি কাউন্সিল চট্টগ্রাম জেলার সভাপতি আসমা আক্তার, সাংবাদিক জসিম উদ্দীন, অধ্যাপন স্বদেশ চক্রবর্তী, প্রধান শিক্ষক কৃষ্ণ শেখর দত্ত, প্রধান শিক্ষক সঞ্জীব চৌধুরী প্রমুখ।

লেখক : ইঞ্জিনিয়ার সিঞ্চন ভৌমিক, সাধারণ সম্পাদক, বিপ্লবী তারকেশ্বর দস্তিদার স্মৃতি পরিষদ।

বিডিজা৩৬৫

Check Also

কেন্দ্রীয় ব্যাংক ছোট-বড় সব ঋণে ডিসেম্বর পর্যন্ত সর্বোচ্চ ৭৫% মরাটরিয়াম সুবিধা দিয়েছে

জার্নাল ডেস্ক : বৃহৎ শিল্প, এসএমই, কৃষি ঋণসহ সকল ধরনের ছোট বড় ঋণে পরিশোধিত ঋণের …

অ্যাকাউন্টের তথ্য সুরক্ষায় হোয়াটসঅ্যাপের নতুন ফিচার

তথ্য ও প্রযুক্ত ডেস্ক অ্যাকাউন্টে থাকা ব্যক্তিগত তথ্য, ঠিকানাসহ অন্যান্য বিষয় কে বা কারা দেখতে …