ময়মনসিংহ মেডিক্যালের চিকিৎসক-স্বাস্থ্যকর্মী করোনায় আক্রান্ত

ময়মনসিংহ মেডিক্যালে তথ্য গোপন করে রোগী ভর্তি হওয়ার পর করোনা সংক্রমিত হয়েছেন বেশ কয়েকজন চিকিৎসক-স্বাস্থ্যকর্মী। এরপর থেকে বন্ধ আইসিইউসহ গুরুত্বপূর্ণ ৩টি ইউনিট। স্বাস্থ্য কমকর্তারা বলছেন, সেবা নিতে আসা রোগীরা তথ্য গোপন করায়, বিপদের মুখে পড়ছেন চিকিৎসকরা।

গত সপ্তাহে ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে করোনার তথ্য গোপন করে ভর্তি হন এক অন্তঃসত্ত্বা নারী। এরপর থেকে শুধু এই হাসপাতালেই করোনা আক্রান্ত হয়েছেন ১২ চিকিৎসকসহ ৩৯ জন। এছাড়া, আইসোলেশনে আছেন ২৪ জন এবং কোয়ারেন্টিনে চিকিৎসক, নার্সসহ অন্তত ৪০ জন।

সংক্রমণের পরই বন্ধ করা হয় হাসপাতালের গাইনি, আইসিইউসহ তিনটি ইউনিট।

ময়মনসিংহ মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের পরিচালক ব্রি.জে মো. নাছির উদ্দিন আহমেদ বলেন, রোগীরা যদি তাদের তথ্য গোপন না করে তাহলে অনেকেই এই রোগ থেকে বেঁচে যায়। যারা সেবা দিবে তারাই যদি রোগী হয়ে যায় তাহলে যেভাবে চিকিৎসকরা আক্রান্ত হচ্ছেন কিছুদিন পর চিকিৎসা দেয়ার জন্য আর ডাক্তার পাওয়া যাবে না।

এদিকে, করোনা রোগীদের সেবা দিতে গিয়ে আক্রান্ত হয়েছেন জেলার দুটি উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের ৬ চিকিৎসকসহ ১৫জন।

ময়মনসিংহ স্বাস্থ্য বিভাগের পরিচালক ডা. মো. আবুল কাশেম বলেন, কোন একজনের যদি করোনা পজিটিভ আসে, তাহলে কিন্তু তার আসেপাশের সবাইকেই টেস্ট করাতে হয়। এতে আতংক এবং বিপদের শংকা বেড়ে যায়।

স্বাস্থ্যকর্মীদের সুরক্ষা সরঞ্জাম মানসম্মত না হওয়ায় বাড়ছে আক্রান্তের সংখ্যা– এমন দাবি চিকিৎসক নেতাদের।

ময়মনসিংহ শাখার বিএমএ সভাপতি ডা. মতিউর রহমান ভূইয়া বলেন, চিকিৎসকদের যদি মানসম্মত পিপিই এবং মাস্ক সরবরাহ করা হতো তাহলে আক্রান্তের হার অনেকটা কমানো যেত। এছাড়া জনগণকেও সচেতন করতে হবে তারা যেন তাদের কোন ধরণের তথ্য গোপন না করে।

স্বাস্থ্য কর্মীদের সুরক্ষা নিশ্চিত করতে না পারলে চিকিৎসা ব্যবস্থা হুমকির মুখে পড়বে বলে মনে করেন চিকিৎসকরা।

Check Also

হজযাত্রীদের করোনা পরীক্ষা বিনামূল্যে

জার্নাল ডেস্ক : বাংলাদেশি হজযাত্রীদের করোনো পরীক্ষা বিনামূল্যে করিয়ে দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে সরকার। ইতোমধ্যে হজযাত্রীদের …

নগ্ন হয়ে রুশ ধর্ষণের প্রতিবাদ

আন্তর্জাতিক ডেস্ক : এবার কান উৎসবে ভিন্নধর্মী এক প্রতিবাদ দেখলো বিশ্ব। ইউক্রেনে রুশ সেনাদের ধর্ষণের …