লোহাগাড়ায় সরকারি খাস জমি দখল করে বাড়ি নির্মাণ

0

মনির আহমদ আজাদ, লোহাগাড়া (চট্টগ্রাম):

লোহাগাড়া উপজেলার আমিরাবাদ ইউনিয়নের সুখছড়ী বারেক চৌধুরী পাড়ায় সরকারি খাস জমি ভরাট করে বহুতল ভবন নির্মাণের অভিযোগ ওঠেছে। অবৈধভাবে খাস জায়গা দখল করে বহুতল ভবন নির্মাণ করেছে প্রবাসী আবদুল মাবুদ ওরফে সেলিম ও আবদুস শুক্কুর। জানা গেছে, দক্ষিণ সুখছড়ী সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয় থেকে কলাউজান গৌরসুন্দর উচ্চ বিদ্যালয় সংযোগ সড়কটি অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। আবদুস শুক্কুর গং এর নির্মিত বাড়ি সংলগ্ন এ সড়কটি দিয়ে প্রতিনিয়ত যানবাহন চলাচল করে। ওই রাস্তার সাথে লাগোয়া সরকারী ৮ শতক জায়গা পানি চলাচলের জন্য বিদ্যমান ছিল। দীর্ঘ দিন ধরে এলাকার উত্তর পুকুরসহ অন্তত ২০ পরিবারের পানি নিষ্কাশনের নালা সংযুক্ত ছিল। সরেজমিনে গিয়ে দেখা গেছে, হালে বিত্তবান হয়ে ওঠা আবদুস শুক্কুর পরিবার অবৈধভাবে ওই সরকারী খাস জায়গা ভরাট করে বহুতল বাড়ি ও বাউন্ডারী ওয়াল নির্মাণ করেছে। সরকারি বিধি মতে, বন্দোবস্ত ছাড়া কেউ সরকারি নালা ভরাট করে পাকা ইমারত নির্মাণ করতে পারে না। সুখছড়ী মৌজার ১নং খাস আরএস খতিয়ানের জায়গায় বসবাসরত আবদুস শুক্কুরগং পাকা ইমারত নির্মাণ করে দিব্যি আরামে বসবাস করলেও প্রতিবেশী লোকজনের হয়েছে মরণ ফাঁদ। চলতি বর্ষায় জলবদ্ধতার শিকার হয়েছে ওই সব পরিবার। পানি নিস্কাশনের ব্যবস্থা না থাকায় পুকুরের পানিতে সম্পূর্ণরূপে তলিয়ে গেছে একমাত্র চলাচলের রাস্তাটি। এছাড়াও হাফেজ আবদুল মন্নান, মৌলানা আবদুল কুদ্দুস ও নাসির উদ্দীনের মাটির দেওয়ালে নির্মিত কাচা বসতবাড়ি পানি ছুঁই ছুঁই হওয়ায় যে কোন সময় বিধ্বস্ত হয়ে প্রাণহানীর সম্ভাবনা রয়েছে বলে ভূক্তভোগীরা জানিয়েছেন। তাই স্থানীয়রা জরুরী ভিত্তিতে সরকারী খাস জায়গা অবৈধভাবে দখলকারীদের কবল হতে উদ্ধারে উপজেলা প্রশাসনের উচ্ছেদ অভিযানের জোর দাবি দাবি জানিয়েছেন।

সাব্বির// এসএমএইচ//৩০শে আগস্ট, ২০১৮ ইং ১৫ই ভাদ্র, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ

Share.

About Author

Comments are closed.