শিকারি ছবির প্রচারণায় কলকাতায় শাকিব

0

বিডিজার্নাল বিনোদন ডেস্ক :

শাকিব খান অভিনীত ‘শিকারি’ ছবিটির ফার্স্ট লুক প্রকাশিত হওয়ার পর থেকেই চারিদিকে শাকিব বন্দনা শুরু হয়েছিল। যার রেশ এখনও রয়ে গেছে। দীর্ঘদিন পর সারা দেশের প্রেক্ষাগৃহে দর্শকদের ঢল নেমেছিল তার ছবিটি মুক্তির পরপরই। নতুন শাকিবে মুগ্ধ হয়েছেন সবাই। এবার পাশের দেশ ভারতে মুক্তি পেতে যাচ্ছে চিত্রনায়ক শাকিব খানের প্রথম ছবি ‘শিকারী’। ২৪ জুলাই সকালের একটি ফ্লাইটে সিনেমাটির প্রচারণার কাজে তিনি গিয়েছেন ভারতের পশ্চিমবঙ্গে।

সেখানে বেশ কিছুদিন অবস্থান করবেন শাকিব। তাঁর প্রথম বাংলাদেশ-ভারত যৌথ প্রযোজনার ছবিটির বিভিন্ন ধরনের প্রচারণায় অংশ নিবেন তিনি। তাই এ নিয়ে এখন দারুণ উচ্ছ্বাস লক্ষ্য করার গেল ঢালিউড এ সুপারস্টারের মধ্যে। এদিকে কলকাতার ১৫০ এরও বেশি প্রেক্ষাগৃহে ‘শিকারি’ ছবিটি মুক্তি পাবে ১২ আগস্ট।  এই সময়টা ভারতীয় চলচ্চিত্র বাজারের ব্যবসায়ীদের জন্য অনেক গুরুত্বপূর্ণ।

কারণ ১৫ আগস্ট ভারতের স্বাধীনতা দিবস। বিশেষ এই দিনটিকে ঘিরে তাই প্রতিবছরই  বিগ বাজেটের ছবিগুলো মুক্তি দেওয়া হয়। আর বলিউডসহ ভারতের চলচ্চিত্র বাজারগুলো মুক্তি দেয় বছরের সেরা ছবিগুলো। তাই একই সময়ে ‘শিকারি’ ছবিটি মুক্তির বিষয়টিকে নিজের ক্যারিয়ারে জন্যে অনেক গুরুত্বপূর্ণ ভাবছেন শাকিব খান। গতকাল রাতে একটি ছবির শুটিংয়ের সময় এফডিসিতে কথা হচ্ছিল শাকিব খানের সাথে। কলকতায় দর্শকদের কতটুকু চাহিদা পূরণ করতে পারবে শিকারি?

শাকিব বলেন, শিকারির ফার্স্ট লুক তো প্রথম কলকাতার এস মুভিজের ইউটিউব চ্যানেল থেকে প্রকাশিত হয়েছিল। আর প্রথম ১২ ঘণ্টায় কিন্তু বেশ ভাল সাড়া পেয়েছিল। এরপরের ঘটনাটা তো অনেকেরই জানা। সেটি দেখেই কিন্তু বাংলাদেশের সকল দর্শকদের ছবিটির বিষয়ে এক ধরনের আগ্রহবোধ তৈরি হয়েছিল। যেহেতু বাংলাদেশের আগেই কলকতায় ছবিটির ব্যাপক সাড়া আছে, আমার তো মনে হয় দারুণ কিছুই হবে।

শিকারী ছবিটি বাংলাদেশে মুক্তি পায় গত ৭ জুলাই। ঈদের ছবি হিসেবে এখনো শিকারী চলছে দেশের ৯০টিরও বেশি প্রেক্ষাগৃহে। বাংলাদেশের জাজ মাল্টিমিডিয়া ও কলকাতার এসকে মুভিজের ব্যানারে নির্মিত এ ছবিতে শাকিবের বিপরীতে অভিনয় করেছেন টালিউডের অভিনেত্রী শ্রাবন্তী। বিশেষ একটি দিনে কলকাতায় শুধু শিকারি ছবিটি মুক্তি পাচ্ছে। আর সেটি রেকর্ড সংখ্যক প্রেক্ষাগৃহে। এটি শাকিবের ক্যারিয়ারের জন্যে বড় একটা ব্যাপার বলে মনে করেন তিনি।

শাকিব আরও বললেন, ছবিটি নিয়ে আমি তো দারুণ আশাবাদী। যেমনটা বাংলাদেশে দর্শকপ্রিয়তা পেয়েছে ঠিক তেমন দর্শকপ্রিয়তা কলকাতাতেও পাবে। মানুষ কিন্তু ভাল সিনেমা দেখতে চায়। মানে নির্মাণগত দিকের কথা বলছি। তার প্রমাণ হল ‘শিকারি’। আর একটা কথা, আমি সিনেমা করব ইন্ডাস্ট্রির জন্য, দেশের জন্য।

কলকাতায় দেব, অঙ্কুশ, সোহমদের ফিল্মি পাড়ায় নতুন শাকিব খান। ঠিক কতটুকু সহজসাধ্য হবে সেখানকার ফিল্মি বাজারে নিজেকে তুলে ধরতে? আমি যখন কলকাতায় কিংবা আশেপাশে লোকেশনগুলোতে সিনেমাটির শুটিং করেছি তখন আশে পাশের মানুষদের মধ্যে নায়ক শাকিব খানকে ঘিরে বেশ উৎসাহ দেখেছি। আর ফার্স্ট লুক, ট্রেলার প্রকাশ এরপরও তো দারুণ সাড়া পাচ্ছি। এখন তো মুক্তির সময় ঘনিয়ে আসছে। এবার দর্শকদের রায় দেওয়ার পালা।

বিডিজার্নাল৩৬৫ডটকম// আরডি/ এসএমএইচ // ২৪ জুলাই ২০১৬

Share.

About Author

Comments are closed.