সীমিত আকারে গণপরিবহন চলবে

৩১ মে থেকে সীমিত আকারে গণপরিবহন চালু করা হবে বলে জানিয়েছেন জনপ্রশাসন প্রতিমন্ত্রী ফরহাদ হোসেন। তিনি বলেন, সীমিত যাত্রী নিয়ে স্বাস্থ্যবিধি মেনে গণপরিবহন চলাচল করতে পারবে। নৌপরিবহন, ট্রেনও চলবে। বুধবার রাত আটার দিকে তিনি গণমাধ্যমকে এসব তথ্য জানান।

জনপ্রশাসন প্রতিমন্ত্রী ফরহাদ হোসেন মানবকণ্ঠকে বলেন, সীমিত আকারে অফিস আদালত খুলে দেয়া হচ্ছে। সবাই স্বাস্থ্যবিধি মেনে অফিস করবে। অসুস্থ, বয়স্ক এবং গর্ভবতী মহিলারা অফিসে আসবেন না। দেশব্যাপী হাট বাজার সকাল ১০টা থেকে বিকাল ৪ টা পর্যন্ত চলবে।

গণপরিবহনের বিষয়ে জানতে চাইলে প্রতিমন্ত্রী বলেন, গণপরিবহনও খুবই সীমিত আকারে চলবে। শুধু রাজধানীতে না কি সারাদেশে এমন প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, সারাদেশেই চলবে। খুব স্বল্প সংখ্যক যাত্রী নিয়ে স্বাস্থ্য বিধি মেনে।

তিনি বলেন, সারা বিশ্বেই লকডাউন ধীরে ধীরে তুলে দেয়া হচ্ছে। আমাদেরকেও দেশের অর্থনীতির কথা চিন্তা করে সিদ্ধান্ত নিতে হচ্ছে। তাছাড়া বিশ্বের বিভিন্ন দেশে যেভাবে দিনে এক হাজার ১৫শ লোক মারা যাচ্ছে আমাদের এখানে সে পরিস্থিতি নেই। তিনি জানান, পরিস্থিতি বিবেচনায় ধীরে ধীরে সবকিছু খুলে দেয়া হবে।

এ বিষয়ে বাংলাদেশ সড়ক পরিবহন মালিক সমিতির সাধারণ সম্পাদক খন্দকার এনায়েত উল্লাহ মানবকণ্ঠকে বলেন, আমরাও শুনেছি সীমিত আকারে গণপরিবহন চালানোর সিদ্ধান্ত নিয়েছে সরকার। এখনো অফিশিয়াল কোন নির্দেশনা পাইনি। তবে আমরা প্রস্তুতি নিয়ে রেখেছি।

দুই সিটে একজন যাত্রী নেয়ার নির্দেশনা আসলে কি ভাবে ভাড়া নির্ধারণ করবেন- এ বিষয়ে জানতে চাইলে এনায়েত উল্লাহ বলেন, এরকমের নির্দেশনা আসলে, আমরা আলোচনা করে ভাড়া নির্ধারণ করব।

এর আগে বিকেলে সাধারণ ছুটি আর বাড়ছে না বলে জানিয়েছেন জনপ্রশাসন প্রতিমন্ত্রী ফরহাদ হোসেন। তখন তিনি জানান, আপাতত স্কুল, কলেজ বন্ধ থাকবে ১৫ জুন পর্যন্ত। সবাইকে স্বাস্থ্যবিধি মেনে কাজে যোগ দেয়ার জন্য আসতে হবে। এ বিষয়ে বৃহস্পতিবার (২৮ মে) প্রজ্ঞাপন জারি করা হবে বলে নিশ্চিত করেন তিনি। এসময় ১৫ জুন পর্যন্ত স্বাস্থ্যবিধি মেনে ব্যক্তিগত গাড়ি চলাচল করবে বলে জানিয়েছিলেন প্রতিমন্ত্রী।

তিনি বলেছিলেন, ছুটি না বাড়লেও চলবে না গণপরিবহণ, রেল ও যাত্রীবাহী নৌযান। তবে বেসরকারি বিমানগুলো নিজ ব্যবস্থাপনায় বিমান চলাচল শুরু করতে পারবে। সভা-সমাবেশ গণজমায়েত বন্ধ থাকলেও ধর্মীয় উপাসনালয় খোলা থাকবে।

তিনি আরো জানান, আমরা প্রধানমন্ত্রীর স্বাক্ষরিত প্রজ্ঞাপন কিছুক্ষণ আগে পেয়েছি। দেশে করোনা প্রাদুর্ভাবের কারণে গত ২৬ মার্চ থেকে বেশ কয়েকদফা সরকারি ছুটির মেয়াদ বাড়ানো হলেও এবার ৩০ মে’র পর আর ছুটির মেয়াদ বাড়ানো হবে না। তবে ৩১ মে থেকে ১৫ জুন পর্যন্ত সবাইকে স্বাস্থ্যবিধি মেনে অফিসে কাজ করতে হবে। বয়স্ক এবং গর্ভবতীরা অফিসে আসবেন না। আপাতত ১৫ জুন পর্যন্ত স্কুল, কলেজ বন্ধ থাকবে। তবে অনলাইনে ক্লাস নেয়া যাবে।

প্রতিমন্ত্রী বলেন, ৩১ মে থেকে সরকারি আধা-সরকারি সব অফিস খুলবে। অর্থনৈতিক কর্মকাণ্ড চালু রাখতে সীমিত পরিসরে সব অফিস খোলা রাখতে এ সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে। রাত আটটা থেকে সকাল ৬টা পর্যন্ত আগের মতো চলাচল সীমিত থাকবে। হাটবাজার দোকানপাট বিকাল ৪টা পর্যন্ত চলবে।

Check Also

বাতিল হচ্ছে পিইসি-জেএসসি পরীক্ষা

জার্নাল ডেস্ক : প্রাথমিক শিক্ষা সমাপনী (পিইসি) ও জুনিয়র স্কুল সার্টিফিকেট (জেএসসি) পরীক্ষা চলতি বছর …

২৪ ঘণ্টায় মৃত্যু ৩৩, শনাক্ত ২৯৯৬

জার্নাল ডেস্ক : করোনায় দেশে গত ২৪ ঘণ্টায় আরও ৩৩ জনের মৃত্যু হয়েছে। এ নিয়ে …