সৌদি রাজকুমারী লোল-ওয়াহ মারা গেছেন

আন্তর্জাতিক ডেস্ক :

রাজকুমারী লোল-ওয়াহ বিনতে ফাহাদ বিন আবদুল আজিজ আল সৌদ মারা গেছেন। সোমবার (১৮ এপ্রিল) এক বিবৃতিতে সৌদি রাজকীয় আদালত রাজকুমারীর মৃত্যুর বিষয়টি নিশ্চিত করেছে। মঙ্গলবার (১৯ এপ্রিল) আসরের নামাজের পর রিয়াদের ইমাম তুর্কি বিন আবদুল্লাহ মসজিদে তার জানাজা অনুষ্ঠিত হবে।

রাজকুমারী লোল-ওয়াহ ছিলেন সৌদি বাদশাহ্ ফয়সাল এবং ইফফাত আল থুনয়ানের নয় সন্তানের একজন। তার মা ইফফাত তুর্কি পরিবারে জন্মগ্রহণ করেন। তিনি তায়েফের একটি প্রাসাদে বসবাস করতেন। বাদশাহ্ ফয়সালের অন্য সন্তানদের মতো তিনিও বিদেশে পড়াশোনা করেন। লোল-ওয়াহ তার এক চাচাতো ভাই সৌদ বিন আবদুল মুহসিনকে বিয়ে করেছিলেন। কিন্তু ১০ বছর পর তাদের বিয়েবিচ্ছেদ হয়ে যায়।

রাজকুমারী লোল-ওয়াহ বিনতে ফাহাদ বিন আবদুল আজিজ আল সৌদ সৌদি আরবের নারীদের কল্যাণে, বিশেষ করে শিক্ষার ক্ষেত্রে অগ্রণী ভূমিকা রেখেছেন। তিনি ১৯৭০ সাল থেকে রিয়াদে আল নাহদাহ ফিলানথ্রোপিক সোসাইটি ফর উইমেনের সদস্য ছিলেন। ১৯৯০ থেকে ১৯৯৯ সাল পর্যন্ত তিনি সৌদি আরবের প্রথম বেসরকারি মহিলা উচ্চ বিদ্যালয় জেদ্দার দার আল হানান স্কুলের তত্ত্বাবধানে তার মা ইফফাতকে সহায়তা করেছিলেন।

২০০৭ ওয়ার্ল্ড ইকোনমিক ফোরামে একটি পাবলিক অধিবেশন চলাকালীন রাজকুমারী লোল-ওয়াহ সৌদি আরবের নারীদের জন্য গাড়ি চালানোর ওপর নিষেধাজ্ঞার বিরুদ্ধে কথা বলেছিলেন। সৌদি নারীদের জন্য আরও বেশি অধিকারের দাবি উত্থাপন করার পাশাপাশি, তিনি সৌদি আরবের নারীদের সম্পর্কে পশ্চিমা দেশগুলোর বিদ্যমান ভুল ধারণার বিরুদ্ধেও কাজ করেন।

বিভিন্ন আন্তর্জাতিক ফোরামে সৌদি আরবের প্রতিনিধিত্ব করেছেন রাজকুমারী লোল-ওয়াহ। তিনি সৌদি চেম্বার অব কমার্স অ্যান্ড ইন্ডাস্ট্রিজের আন্তর্জাতিক বাণিজ্য কমিটির সদস্য হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন। ২০০৬ সালে হংকংয়ে সৌদি ব্যবসায়ী নারীদের একটি প্রতিনিধি দলের নেতৃত্ব দেন।

 

Check Also

৯২ বার পেছাল সাগর-রুনি হত্যার তদন্ত প্রতিবেদন

জার্নাল ডেস্ক সাংবাদিক দম্পতি সাগর-রুনি হত্যা মামলার তদন্ত প্রতিবেদন দাখিলের তারিখ ৯২ বারের মতো পেছানো …

অর্থ আত্মসাতের মামলা: জ্যাকুলিনের জামিন

বিনোদন ডেস্ক সুকেশ চন্দ্রশেখরের সঙ্গে ঘনিষ্ঠতার কারণে অর্থ আত্মসাতের মামলার অভিযোগ পত্রে নাম উঠেছিল বলিউড …