হাসপাতাল কর্মচারীকে গলা কেটে হত্যা

খুলনা প্রতিনিধি:

খুলনা নগরীর খালিশপুর এলাকার এক বাসা থেকে এক হাসপাতাল কর্মচারীর গলাকাটা লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ।

নিহত ফরহাদ হোসেন শেখ আপন (৩২) রূপসা উপজেলার যুগিহাটী গ্রামের আব্দুস সামাদ শেখের ছেলে। নগরীর শহীদ শেখ আবু নাসের বিশেষায়িত হাসপাতালের চতুর্থ শ্রেণির কর্মচারী ছিলেন তিনি।

খালিশপুর থানার পরিদর্শক (তদন্ত) আবুল খায়ের জানান, খালিশপুরের আফজালের মোড়ে যে বাসায় আপন ভাড়া থাকতেন, সেখান থেকেই বৃহস্পতিবার রাতে তার লাশ উদ্ধার করা হয়।

এই পুলিশ কর্মকর্তা জানান, বৃহস্পতিবার বিকেল থেকে আপনের ফোন বন্ধ পেয়ে তার বড়বোন রাতে পুলিশে খবর দেন। পরে রাত সাড়ে ১২টার দিকে পুলিশ আপনের বাসায় গিয়ে তালা ভেঙে ভেতরে রক্তাক্ত লাশ পায়।

“খুনিরা ছুরি দিয়ে গলা কেটে আপনকে হত্যার পর বাইরে থেকে তালা লাগিয়ে দিয়ে চলে যায়। হত্যাকাণ্ডে ব্যবহৃত রক্তমাখা ছুরিটিও ওই ঘরে পাওয়া গেছে।”

তবে কারা আপনকে হত্যা করে থাকতে পারে, সে বিষয়ে কোনো ধারণা দিতে পারেনি পুলিশ বা পরিবারের সদস্যরা।

আপনের লাশ ময়নাতদন্তের জন্য খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হয়েছে বলে জানান পুলিশ কর্মকর্তা খায়ের।

সাব্বির// এসএমএইচ//২০শে জুলাই, ২০১৮ ইং ৫ই শ্রাবণ, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ

Check Also

বিপদ জয় করে বিজয়ের দেশে ফিরে আসা

জার্নাল ডেস্ক : জাতিসংঘ শান্তিরক্ষা মিশনে অংশ নেওয়া বাংলাদেশ নৌ বাহিনীর জাহাজ ‘বিজয়’  সাক্ষাৎ বিপদ …

‘টাকা দিয়ে বিপদ কিনেছি’

জার্নাল ডেস্ক ‘টাকা দিয়ে বিপদ কিনেছি ‘।    এভাবেই নিজের হতাশার কথা  জানিয়েছেন বসনিয়ায় আটকে …