২০৩০ সালের মধ্যে রাজধানীর যানজট নিরসন

জার্নাল ডেস্ক :

 

মাস র‌্যাপিড ট্রানজিটের অধীনে ২০৩০ সালের মধ্যে ঢাকা মহানগরী এবং সংযুক্ত এলাকার যানজট নিরসন ও গণচলাচল পরিবেশ উন্নয়নে ছয়টি মেট্রোরেল লাইনের সমন্বয়ে যানজট নিরসন করা হবে বলে ২০২২-২৩ অর্থবছরের প্রস্তাবিত বাজেটে বলা হয়েছে। বৃহস্পতিবার (৯ জুন) ২০২২-২৩ অর্থবছরের প্রস্তাবিত বাজেট উপস্থানকালে অর্থমন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল এ তথ্য জানান।

অর্থমন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল জাতীয় সংসদে বলেন, ঢাকা মাস ট্রানজিট কোম্পানি লিমিটেডের আওতায় ১২৯ দশমিক ৯০১ কিলোমিটার দীর্ঘ পর্যন্ত রেলপথ নির্মাণ করা হবে। এর মধ্যে ৬৮ দশমিক ৭২৯ কিলোমিটার উড়াল ও ৬১ দশমিক ১৭২ কিলোমিটার পাতাল লাইনের প্রস্তাব করা হয়েছে। এছাড়া মেট্রোরেলের ১০৫টি স্টেশন স্থাপন করা হবে। এর মধ্যে ৫২টি উড়াল ও ৫৩টি পাতাল স্টেশন থাকবে। সমন্বিত এ মেট্রোরেল ব্যবস্থা গড়ে তুলতে সময়াবদ্ধ কর্মপরিকল্পনার অংশ হিসেবে উত্তরা তৃতীয় পর্ব থেকে মতিঝিল পর্যন্ত ২০ দশমিক ১০ কিলোমিটার দীর্ঘ ও ১৬টি স্টেশনবিশিষ্ট প্রথম উড়াল মেট্রোরেলের নির্মাণকাজ চূড়ান্ত পর্যায়ে রয়েছে।

তিনি বলেন, ইতোমধ্যে উত্তরা তৃতীয় পর্যায় ডিপো থেকে আগারগাঁও পর্যন্ত সফলভাবে পরীক্ষামূলক মেট্রোরেল চলাচল করেছে এবং ডিসেম্বর ২০২২ নাগাদ এ অংশটি বাণিজ্যিকভাবে যাত্রী পরিবহনের জন্য খুলে দেওয়া হবে। আগারগাঁও হতে মতিঝিল পর্যন্ত অবশিষ্ট অংশটি ডিসেম্বর ২০২৩ নাগাদ বাণিজ্যিক কার্যক্রমের জন্য খুলে দেওয়া হবে।

অর্থমন্ত্রী বলেন, পরে এটিকে মতিঝিল থেকে কমলাপুর পর্যন্ত ১ দশমিক ১৬ কিলোমিটার বাড়ানো হবে। পাশাপাশি এমআরটি লাইন ৫-এর সাউদার্ন ও নর্দার্ন রুট এবং এমআরটি লাইন-১ এর ডিটেইলড ডিজাইনের কাজ শেষের পথে রয়েছে। আশা করছি, এমআরটি লাইন-১ এর নির্মাণকাজ আগামী অর্থবছরে শুরু করা সম্ভব হবে। এ ছাড়া, সরকার চট্টগ্রাম শহরেও এমআরটি ব্যবস্থা চালুর জন্য পরিকল্পনা করছে।

প্রস্তাবিত ২০২২-২৩ অর্থবছরের বাজেটের আকার হচ্ছে ৬ লাখ ৭৮ হাজার ৬৪ কোটি টাকা। বাজেটের বড় আকারের সঙ্গে সঙ্গে ঘাটতি বাজেটও এবার অনেক। অনুদান বাদে এ বাজেটের ঘাটতি ২ লাখ ৪৫ হাজার ৬৪ কোটি টাকা। এই টাকা জিডিপির সাড়ে ৫ শতাংশের সমান। অন্যদিকে, অনুদানসহ বাজেট ঘাটতির পরিমাণ ২ লাখ ৪১ হাজার ৭৯৩ কোটি টাকা, যা জিডিপির ৫ দশমিক ৪০ শতাংশের সমান।

Check Also

মধ্যরাত থেকে বৃহত্তর কাপ্তাই হ্রদে মাছ আহরণ শুরু

রাঙ্গামাটি প্রতিনিধি দীর্ঘ তিন মাস ১৭ দিন বন্ধ রাখার পর আজ মধ্যরাত থেকে শুরু হচ্ছে …

ইস্তান্বুলের চোখ ধাঁধানো বিশাল গ্রন্থাগার

আন্তর্জাতিক ডেস্ক ১০ লাখ বই এবং ৩০০০ আসন নিয়ে খবরের শিরোনামে উঠে এল তুরস্কের ইস্তান্বুল …