৫ জুন থেকে বাজেট অধিবেশন শুরু

নিজস্ব প্রতিবেদক :

দশম জাতীয় সংসদের শেষ বাজেট অধিবেশন শুরু হচ্ছে (৫ জুন) মঙ্গলবার। চলতি বছরের ডিসেম্বরে একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন অনুষ্ঠিত হলে এটাই হবে ক্ষমতাসীন সরকারের শেষ বাজেট। তাই মঙ্গলবার বাজেট অধিবেশন বসলেও নির্বাচনী বছরের বাজেটে কী চমক থাকবে, তা জানতে অপেক্ষা করতে হবে ৭ জুন পর্যন্ত।

আগামীকাল মঙ্গলবার (৫ জুন) সকাল ১১টায় শুরু হচ্ছে বাজেট অধিবেশন।

রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ সংবিধানের ৭২ অনুচ্ছেদের (১) দফায় প্রদত্ত ক্ষমতাবলে গত ১৬ মে সংসদের এ ২১তম অধিবেশন আহবান করেছেন। এ অধিবেশনে ২০১৮-১৯ অর্থবছরের বাজেট পেশ এবং পাস করা হবে। অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত এ বাজেট পেশ করবেন। সরকারের শেষ বাজেট অধিবেশন বলে অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ এ অধিবেশন দীর্ঘ হবে। আগামী ৭ জুন বেলা সাড়ে ১২টায় অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত আগামী অর্থ বছরের বাজেট পেশ করবেন।

সংসদ সচিবালয় সূত্রে জানা যায়, বাজেট অধিবেশনের সব প্রস্ততি ইতোমধ্যে সম্পন্ন হয়েছে। এর অংশ হিসেবে বাজেট অধিবেশনে সংসদ সদস্যদের বাজেট সম্পর্কে আলোচনায় সহযোগিতার জন্য বাজেট ইনফরমেশন হেল্প ডেস্ক চালু হয়েছে। জাতীয় সংসদ সচিবালয়ের আয়োজনে এবং বাজেট এনালাইসিস অ্যান্ড মনিটরিং ইউনিট (বিএএমইউ)-এর সহযোগিতায় সংসদ ভবনের উত্তর-পূর্ব ব্লকের ৩য় লেভেলে অবস্থিত নোটিশ অফিসের সামনে ডেস্ক রয়েছে।

এর আগে সকাল ১০ টায় স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরীর সভাপতিত্বে কার্য উপদেষ্টা কমিটির বৈঠকে বাজেট অধিবেশনের কার্যসূচি নির্ধারণ করা হবে। সংসদ নেতা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ও বিরোধী দলীয় নেত্রী রওশন এরশাদ ওই বৈঠকে অংশ নেবেন।

রমজান মাস হওয়ায় প্রতিদিন সকালেই বাজেট অধিবেশন শুরু হবে। এরপর বিকেল ৩টা পর্যন্ত চলবে। তবে ঈদের পর আগের মতোই বিকেলে অধিবেশন শুরু হবে। অধিবেশন শুরু হওয়ার দুদিন পর

বৃহস্পতিবার (৭ জুন) ২০১৮-১৯ অর্থবছরের বাজেট পেশ করবেন অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত। দেশের ইতিহাসে ৪৭তম এবং বর্তমান সরকারের পঞ্চম বাজেট এটি। আর অর্থমন্ত্রী হিসেবে আবুল মাল আবদুল মুহিত নিজের ১২তম বাজেট পেশ করবেন। বিএনপি নেতা প্রয়াত অর্থমন্ত্রী এম সাইফুর রহমানও ১২টি বাজেট দিয়ে গেছেন। মুহিত সাবেক রাষ্ট্রপতি হুসেইন মুহম্মদ এরশাদের আমলের অর্থমন্ত্রী হিসেবে প্রথম বাজেট পেশ করেন ১৯৮২-৮৩ অর্থবছরে।

বাজেট পেশের পর প্রথা অনুসারে শুক্রবার (৮ জুন) তা নিয়ে সংবাদ সম্মেলন করবেন অর্থমন্ত্রী। এরপর প্রস্তাবিত বাজেটের ওপর সাধারণ আলোচনা শেষে ৩০ জুনের মধ্যে পাস হবে। আগামী ০১ জুলাই থেকে নতুন অর্থবছর শুরু হবে।

সংসদের রেওয়াজ অনুযায়ী, চলমান সংসদের কোনো সদস্যের মৃত্যু হলে অধিবেশনে শোক প্রস্তাব গ্রহণের পর দিনের জন্য বৈঠক মুলতবি করা হয়। গত ১০ মে বিরোধী দল জাতীয় পার্টির সংসদ সদস্য এ কে এম মাঈদুল ইসলাম মারা যান। আগামীকাল অধিবেশন শুরু হওয়ার পর তার জন্য শোক প্রস্তাব উপস্থাপন করবেন স্পিকার। প্রস্তাবের ওপর রেওয়াজ অনুযায়ী আলোচনা করবেন সংসদ সদস্যরা। পরে স্পিকার অধিবেশন মুলতবি করবেন। এদিকে নির্বাচনী বছরে বাজেট বলে এবার তার আকার চার লাখ ৬০ হাজার কোটি টাকার মতো হতে পারে বলে আগেই জানিয়ে রেখেছেন অর্থমন্ত্রী। দশম জাতীয় সংসদের ২০তম অধিবেশন গত ৮ এপ্রিল শুরু হয়ে ১২ এপ্রিল শেষ হয়।

সাব্বির// এসএমএইচ//৪ঠা জুন, ২০১৮ ইং ২১শে জ্যৈষ্ঠ, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ

Check Also

বিপদ জয় করে বিজয়ের দেশে ফিরে আসা

জার্নাল ডেস্ক : জাতিসংঘ শান্তিরক্ষা মিশনে অংশ নেওয়া বাংলাদেশ নৌ বাহিনীর জাহাজ ‘বিজয়’  সাক্ষাৎ বিপদ …

‘টাকা দিয়ে বিপদ কিনেছি’

জার্নাল ডেস্ক ‘টাকা দিয়ে বিপদ কিনেছি ‘।    এভাবেই নিজের হতাশার কথা  জানিয়েছেন বসনিয়ায় আটকে …