মালয়েশিয়া যাওয়ার চেষ্টা, ১৪ রোহিঙ্গা উদ্ধার

0

নিজস্ব প্রতিবেদক :

সাগরপথে অবৈধভাবে মালয়েশিয়া যাওয়ার প্রস্তুতিকালে টেকনাফ উপজেলায় অভিযান চালিয়ে শিশু ও নারীসহ ১৪ রোহিঙ্গাকে উদ্ধার করেছে পুলিশ।

বৃহস্পতিবার রাত থেকে আজ শুক্রবার সকাল পর্যন্ত অভিযান চালিয়ে উপজেলার হোয়াইক্যং শামলাপুর সড়কের ঢালা নামক এলাকা থেকে তাদের উদ্ধার করা হয়।

তারা হলেন- উখিয়ার কুতুপালং রোহিঙ্গা শিবিরের ইয়াসমিন বেগম (৩০), আমিনা খাতুন (১৮), দিলরুবা আক্তার (১৪) ও মোহাম্মদ হোসেন (৩৯)। আর জামতলি রোহিঙ্গা শিবিরের নূর মোহাম্মদ (৩৮), মোহাম্মদ পেটান (২৪), রশিদা বেগম (১৫), হামিদা বেগম (১৬), ইমতিয়াজ বেগম (২০) ও নুর কায়দা (০৮)। বাকি চার জনের নাম জানা যায়নি।

উদ্ধার হওয়া রোহিঙ্গারা উখিয়ার কুতুপালং ও জামতলি রোহিঙ্গা শরণার্থী শিবিরের বাসিন্দা বলে জানা গেছে। টেকনাফের বাহারছড়া পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রের পরিদর্শক মোহাম্মদ লিয়াকত আলী এসব তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

তিনি জানান, উখিয়ার কুতুপালং ও জামতলি রোহিঙ্গা শরণার্থী শিবির থেকে দালালরা রোহিঙ্গাদের মালয়েশিয়া নেয়ার কথা বলে বাহারছড়ার বিভিন্ন এলাকায় জড়ো করছে- এরকম তথ্যের ভিত্তিতে পুলিশের একটি দল অভিযান চালিয়ে রোহিঙ্গাদের উদ্ধার করে। তবে এ ঘটনায় কোনও দালালকে আটক করা সম্ভব হয়নি।

উদ্ধার হওয়া রোহিঙ্গারা জানান, মালয়েশিয়ায় অবস্থানরত নিকট আত্মীয়স্বজন তাদের মালয়েশিয়ায় নিয়ে যাচ্ছিলেন। এ জন্য দালালদের সঙ্গে জনপ্রতি আড়াই লাখ থেকে ২ লাখ ৮০ হাজার টাকার চুক্তি হয়েছে। আগাম হিসেবে জনপ্রতি ২০ থেকে ৩০ হাজার টাকা নিয়েছেন দালালরা। এসব টাকার লেনদেন মালয়েশিয়া থেকে হচ্ছে বলে জানান তারা।

Share.

About Author

Comments are closed.