আর জোট নয়, একক ভাবে নির্বাচন করবে জাতীয় পার্টি : এরশাদ

0

বিডিজার্নাল প্রতিনিধি :

জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান পল্লীবন্ধু খ্যাত হুসেইন মুহম্মদ এরশাদ এম.পি বলেছেন, ‘আর জোট নয়, ৪ দল থেকে ১৪ দল সব দলই দেখেছি, কেউ আমার দিকে ফিরে তাকায় নি। বিএনপি-আওয়ামীলীগ কারও কাছ থেকে কিছুই পাই নি। তাই দলকে সুসংগঠিত করে আগামীতে একক ভাবে নির্বাচন করবে জাতীয় পার্টি’। বৃহস্পতিবার দুপুরে তিনি কুমিল্লার চান্দিনা মডেল পাইলট উচ্চ বিদ্যালয় খেলার মাঠে কুমিল্লা উত্তর জেলা জাতীয় পার্টির সম্মেলনে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় এসব কথা বলেন।

সকাল ১১টা ২৫ মিনিটে তিনি সভাস্থলে পৌঁছার পর দুপুর ১টা ৯ মিনিট থেকে ১টা ৪৩ মিনিট পর্যন্ত বক্তৃতা করেন।
প্রায় ৩৪ মিনিটের বক্তৃতায় সাবেক এই প্রেসিডেন্ট বলেন, জোটগত ভাবে নির্বাচন করার জন্য শর্ত সাপেক্ষে বিএনপি’র ডাকে সারা দেওয়ার পর বিএনপি’র যুবরাজ আমাকে তার হাওয়া ভবনে ডেকে নিয়ে নাম মাত্র শর্তে স্বাক্ষর নেয়। আমার সহযোগিতায় ক্ষমতায় যাওয়ার পর আর কোন খবর নেয়নি।
একই ভাবে রাজধানীর পল্টন ময়দানে আওয়ামীলীগ এর সাথে ১৪ দলে যুক্ত হলাম। তারাও একই কৌশলে আমাকে হতাশ করেছে। এবার সিদ্ধান্ত নিয়েছি, আর জোট নয়, ৩শ আসনে জাতীয় পার্টির প্রার্থী প্রস্তুত করে আগামী নির্বাচনে অংশ নিবে জাতীয় পার্টি।
বিএনপিকে একাধিকবার সংলাপের আহবান জানানো হয়েছিল। কিন্তু তারা সংলাপে সাড়া দেয়নি। এখন তারা সংলাপের নামে ভিক্ষা চাচ্ছে। তাদেরকে আর ভিক্ষা দেওয়া হবে না। তাদের সাথে আমার কোন দিন সংলাপ হবে না।
জাতীয় পার্টিতে যোগদান করার আহবান জানিয়ে তিনি বলেন, জাতীয় পার্টি কোন দল নয়, জাতীয় পার্টি একটি পরিবার। আর ওই পরিবারের প্রধান আমি। যে পরিবারে আছে শান্তি।
সাবেক সেনা প্রধান আরও বলেন, ক্ষমতার লোভে রাজনীতিতে আসিনি। দেশ রক্ষায় ক্ষমতার হাল ধরি। ১৯৮৪ সালে আমি ক্ষমতা ছাড়ার প্রস্তুতি নিয়ে দেশের সকল রাজনৈতিক দলগুলোকে নির্বাচন করার আহবান জানাই। কিন্তু কোন রাজনৈতিক দল আমার ডাকে সাড়া দেয়নি।
পরবর্তীতে বাধ্য হয়ে ‘গ্রাম বাঁচলে, বাঁচবে দেশ’ এই শ্লোগানে দেশের আপমর জনগণের সমর্থন নিয়ে জাতীয় পার্টি গঠন করি।
তারপর থেকে রাজনৈতিক রোষানলে আমার জীবন কাটে কারাগারে। আমার প্রথম শ্রেণীতে পড়ুয়া ছেলের জীবন স্কুল থেকে শুরু না হয়ে কারাগার থেকে শুরু হয়। ধ্বংস হয় তার ভবিষ্যৎ জীবনা।
এখন মানুষকে পুড়িয়ে মারা হচ্ছে। মানুষ ঘর থেকে বের হতে সাহস পায়না। দেশের মানুষ ঘর থেকে বের হলে ঘরে ফিরে যাওয়ার নিশ্চয়তা নেই। অহরহ ঘটছে খুন-গুম। কিন্তু আমার শাসন আমলে আমি মানুষ মারিনি। তারপর আমার জীবন কেটেছে কারাগারে।
বর্তমান সরকারের সমালোচনা করে এরশাদ আরও বলেন, দেশের মানুষ নিরাপদে নেই। দেশের মানুষ মরে গেলেও এখন বিচার চায় না। দেশে আইনের শাসন নেই।
তিনি বর্তমান সরকারকে আমলাতান্ত্রিক সরকার উল্লেখ করে বলেন, দেশে এখন গণতন্ত্র নেই। আমলা তান্ত্রিক ভাবে চলছে দেশ। সুদূরপ্রসারী চিন্তা করে উপজেলা পরিষদ গঠন করেছিলাম। কিন্তু বর্তমান সরকারের আমালে উপজেলা চেয়ারম্যানদের কোন ক্ষমতাই নেই।
তিনি বলেন, আমার নেতৃত্বাধীন জাতীয় পার্টি ক্ষমতায় গেলে দেশ গণতন্ত্র ফিরে পাবে। আইনের শাসন পূনরুদ্ধার হবে এবং নির্বাচিত সরকার থেকে শুরু করে উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যানসহ ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যানরা স্ব-স্ব ক্ষমতা ফিরে পাবে।
কুমিল্লা উত্তর জেলা জাতীয় পার্টির সভাপতি লুৎফুর রেজা খোকন এর সভাপতিত্বে এসময় বিশেষ অতিথির বক্তৃতা করেন জাতীয় পার্টির প্রেসিডিয়াম সদস্য ও পানি সম্পদ মন্ত্রণালয়ের দায়িত্বপ্রাপ্ত মন্ত্রী ব্যারিস্টার আনিসুল ইসলাম মাহমুদ এমপি, প্রেসিডিয়াম সদস্য ঢাকা মহানগর জাতীয় পার্টির সভাপতি এস.এম. ফয়সাল চিশ্তী, জাতীয় পার্টি কেন্দ্রিয় কমিটির সহ-সভাপতি অধ্যাপক নূরুল ইসলাম মিলন এমপি, সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব এড. রেজাউল ইসলাম ভূঁইয়া, কুমিল্লা উত্তর জেলা জাতীয় পার্টি যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মো. আমির হোসেন ভূঁইয়া এমপি প্রমুখ।
পরে কুমিল্লা উত্তর জেলা জাতীয় পার্টির সভাপতি লুৎফুর রেজা খোকনকে আবারও সভাপতি এবং যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মো. আমির হোসেন ভূইয়া এমপিকে সাধারণ সম্পাদক করে নতুন কমিটি গঠন করা হয়েছে। অনুষ্ঠান শেষে তিনি কুমিল্লা পল্লী বিদ্যুৎ সমিতি-১ এর ডাক বাঙলোতে মধ্যহ্ন ভোজনে অংশ নেন।

বিডিজার্নাল৩৬৫ডটকম// আরডি/ এসএমএইচ// ১২ নভেম্বর২০১৫।

Share.

About Author

Leave A Reply