বৃহস্পতিবার মধ্যরাতে শেষ হচ্ছে চতুর্থ ধাপের প্রচারণা

0

বিডিজার্নাল প্রতিনিধি :

আগামী ৭ মে (শনিবার) দেশের ৭২৫ ইউনিয়ন পরিষদে (ইউপি) চতুর্থ ধাপের নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। এতে বৃহস্পতিবার (০৫ মে) মধ্যরাত ১২টা থেকেই সব ধরনের প্রচার-প্রচারণা বন্ধ করতে হবে।

ইউপি নির্বাচন আচরণ বিধিমালা অনুযায়ী, ভোটগ্রহণ শুরুর ৩২ ঘণ্টা আগে প্রচারণা বন্ধ করার বাধ্যবাধকতা রয়েছে। চতুর্থ ধাপের ভোটগ্রহণ শুরু হবে ৭ মে সকাল ৮টায়। এর আগের ৩২ ঘণ্টা বলতে বৃহস্পতিবার মধ্যরাত ১২টা বোঝায়।
নির্বাচন উপলক্ষে ইতিমধ্যে দুই কোটির বেশি ব্যালট পেপার জেলা পর্যায়ে পাঠানো হয়েছে। এদিকে বৃহস্পতিবার থেকেই মাঠে নামবে আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যরা। মাঠে থাকবেন নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেটরা। এ ধাপেও সব মিলিয়ে প্রায় ২ লাখ ফোর্স মাঠে থাকছে।
এদিকে নির্বাচন উপলক্ষে বৃহস্পতিবার থেকেই মোটরসাইকেল চলাচলের ওপর নিষেধাজ্ঞা থাকবে ৭ মে মধ্যরাত ১২টা পর্যন্ত। এছাড়া ভোটের আগের দিন রাত ১২টা থেকে ভোটের দিন রাত ১২টা পর্যন্ত অর্থাৎ ২৪ ঘণ্টার জন্য নির্বাচনী এলাকায় সব ধরনের যন্ত্রচালিত যান চলাচল বন্ধ থাকবে। তবে রিটার্নিং কর্মকর্তার অনুমতি সাপেক্ষে যান চলাচলে বাধা নেই।
চতুর্থ ধাপের নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে আওয়ামী লীগের ৩৩ জন প্রার্থী বিনা প্রতিদ্বন্দ্বীতায় নির্বাচিত হয়েছেন। এদিকে ১০৬ ইউপিতে বিএনপি প্রার্থী নেই। চেয়ারম্যান পদে মোট প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থী ৩ হাজার ২৪৫ জন। এর মধ্যে স্বতন্ত্র প্রার্থী ১ হাজার ৫২২ জন।

এছাড়া আওয়ামী লীগের রয়েছে ৭২৪ প্রার্থী, বিএনপির ৬১৯ জন, জাতীয় পার্টির ১৫৬ জন, জাতীয় সমাজতান্ত্রিক দলের (জেএসডি) ৪২ জন ও ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ’র ১৫৪ জন প্রার্থী। অবশিষ্ট প্রার্থীগুলো অন্যান্য দল দিয়েছে।
দেশের প্রায় সাড়ে চার ইউপিতে এবার ছয় ধাপে ভোটগ্রহণ করছে নির্বাচন কমিশন (ইসি)। ইতিমধ্যে তিনটি ধাপের ভোটগ্রহণ শেষ হয়েছে। আগামী ২৮ মে অনুষ্ঠিত হবে পঞ্চম ধাপের ভোটগ্রহণ। আর ৪ জুন ষষ্ঠ ধাপের ভোটগ্রহণের মধ্য দিয়ে ইউপি নির্বাচন সমাপ্ত হবে।

বিডিজার্নাল৩৬৫ডটকম// আরডি/ এসএমএইচ // ৪ মে ২০১৬

Share.

About Author

Comments are closed.