অর্থ আত্মসাতের মামলা : অগ্রণী ব্যাংকের ভারপ্রাপ্ত এমডিসহ তিনজন রিমান্ডে

0

বিডিজার্নাল প্রতিনিধি :

অর্থ আত্মসাতের মামলায় অগ্রণী ব্যাংকের ভারপ্রাপ্ত ব্যবস্থাপনা পরিচালক (এমডি) মিজানুর রহমানসহ তিনজনকে তিন দিন করে রিমান্ডে নেওয়ার আদেশ দিয়েছেন আদালত। মামলার সুষ্ঠু তদন্তের জন্য শুক্রবার দুপুরে ঢাকা মুখ্য মহানগর হাকিম আদালতে আসামিদের হাজির করে ৭ দিন করে রিমান্ড আবেদন জানান মামলার তদন্ত কর্মকর্তা দুদকের উপপরিচালক মো. বেনজীর আহম্মদ। শুনানি শেষে মহানগর হাকিম নূর নবী প্রত্যেক আসামিকে তিন দিন করে রিমান্ডে নেওয়ার আদেশ দেন। অপর দুই আসামি হলেন অগ্রণী ব্যাংকের প্রধান শাখার উপমহাব্যবস্থাপক মো. আখতারুল আলম এবং সহকারী মহাব্যবস্থাপক মো. শফিউল্লা। এর আগে রাজধানীর মতিঝিল থেকে বৃহস্পতিবার (৩০ জুন) বিকেলে তাদের গ্রেপ্তার করেন দুদকের উপপরিচালক মো. বেনজীর আহম্মদ। দুদকের জনসংযোগ কর্মকর্তা প্রণব কুমার ভট্টাচার্য বৃহস্পতিবার বলেন, বিকেলে মতিঝিল এলাকা থেকে অগ্রণী ব্যাংকের ভারপ্রাপ্ত ব্যবস্থাপনা পরিচালক (এমডি) মিজানুর রহমান, অগ্রণী ব্যাংকের প্রধান শাখার উপমহাব্যবস্থাপক মো. আখতারুল আলম এবং সহকারী মহাব্যবস্থাপক মো. শফিউল্লাকে আটক করা হয়েছে। তাদের বিরুদ্ধে বৃহস্পতিবার মতিঝিল থানায় মামলা দায়ের করা হয়েছে। মামলা নম্বর ৩৮। ওই তিনজন ছাড়াও এ মামলায় আরও পাঁচজনকে আসামি করা হয়েছে। মামলায় আসামিদের বিরুদ্ধে অভিযোগ করা হয়, পরস্পর যোগসাজশে নিজেরা লাভবান হয়ে এবং অন্যদের লাভবান করার জন্য একটি ভবনের অস্বাভাবিক নির্মাণ ব্যয় ও আয় দেখিয়ে মিথ্যা তথ্যের ভিত্তিতে গ্রাহকের ১০৮ কোটি টাকা ঋণ মঞ্জুর করে। তারা পর্যায়ক্রমে ৯৪ কোটি ৮০ লাখ টাকা উত্তোলন বা গ্রহণ করে। এতে ব্যাংক তথা রাষ্ট্রের ক্ষতিসাধনসহ অর্থ আত্মসাৎ করা হয়েছে। এর আগে অনিয়ম ও দুর্নীতির অভিযোগে বৃহস্পতিবার রাষ্ট্রায়ত্ত অগ্রণী ব্যাংকের ব্যবস্থাপনা পরিচালক (এমডি) সৈয়দ আবদুল হামিদকে চূড়ান্তভাবে অপসারণ করে বাংলাদেশ ব্যাংক। ৭৯২ কোটি টাকা ঋণ বিতরণ করার অভিযোগে বাংলাদেশ ব্যাংকের গভর্নর ফজলে কবির স্বাক্ষরিত এক চিঠিতে আবদুল হামিদকে অপসারণের নির্দেশ দেওয়া হয়। এরপর দুপুরের দিকে ব্যাংকের ভারপ্রাপ্ত এমডির দায়িত্ব দেওয়া মিজানুর রহমানকে। কিন্তু ভারপ্রাপ্ত এমডির দায়িত্ব পাওয়ার কয়েক ঘণ্টার মধ্যে মিজানুর রহমানকে গ্রেপ্তার করে দুদক।

বিডিজার্নাল৩৬৫ডটকম// আরডি/ এসএমএইচ //  ১ জুলাই ২০১৬

Share.

About Author

Comments are closed.