তরুণীকে ‘ধর্ষণ’ প্রধান আসামী গ্রেফতার

0

সাভার প্রতিনিধি:

আশু‌লিয়ার দোসাইদে পরিত্যক্ত গোডাউনে নিয়ে এক পোশাক শ্রমিক তরুণীকে সংঘবদ্ধ ধর্ষণের ঘটনায় দায়েরকৃত মামলার প্রধান আসামী ও একই এলাকার হযরত আলী ভূঁইয়ার ছেলে ইস্রারাফিলকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

৩০ সেপ্টেম্বর শ‌নিবার ভোরে আশু‌লিয়ার টঙ্গাবা‌ড়ি এলাকা থে‌কে তাকে গ্রেফতার করা হয়।

বিষয়‌টি নি‌শ্চিত ক‌রে আশু‌লিয়া থানার উপ প‌রিদর্শক(এসআই) স‌হিদুল ইসলাম জানান, ঘটনার পর থে‌কে ইস্রারাফিল পলাতক ছিল। তা‌কে ধর‌তে পু‌লিশ বি‌ভিন্ন জায়গায় অভিযান চালায়। সে ধারাবাহিকতায় আজ ভো‌রে প্রথমে তার বাড়ি দোসাইদে অভিযান চালানো হয়। সেখানে তাকে পাওয়া যায়নি। পরে গোপন সংবা‌দের ‌ভি‌ত্তি‌তে টঙ্গাবা‌ড়ি পু‌লিশ অবস্থান নি‌য়ে তা‌কে গ্রেফতার করা হয়।

এর আগে গত ২৮ সেপ্টেম্বর বৃহস্পতিবার ভোরে একই মামলার আরও দুই আসামি পরিত্যক্ত গোডাউনের নিরাপত্তাকর্মী পলাশ মাহমুদ ও জাহাঙ্গীর হোসেনকে আশুলিয়ার চারাবাগ এলাকা থেকে গ্রেফতার করা হয়েছে।

উল্লেখ্য, নওগাঁর বাসিন্দা ওই তরুণী সাভারে ভাড়া বাসায় থেকে উলাইল প্রতিক নামে একটি পোশাক কারখানায় কাজ করতেন। গত শুক্রবার ২২ সেপ্টেম্বর পূর্ব পরিচয়ের সূত্র ধরে দোসাইদ এলাকার হযরত আলী ভূঁইয়ার ছেলে ইস্রারাফিল ও আব্দুর রাজ্জাকের ছেলে শরিফুল বেড়ানোর কথা বলে ওই তরুণীকে ডেকে নিয়ে যায়।

পরে ঢাকার অদুরে আশুলিয়া এলাকার দোসাইদ ঈদগাহ মাঠ সংলগ্ন র্যাংগস গ্রুপের পরিত্যক্ত গোডাউনে নিয়ে সেখানকার নিরাপত্তা কর্মী জাহাঙ্গীর ও পলাশের সহযোগিতায় ওই নারী শ্রমিককে ধর্ষণ করে তারা। এ ছাড়া মামলায় না জড়ানোর পরামর্শ দিলে স্থানীয় ইউপি সদস্য তাকে ৫০০ টাকা দিয়ে রিকশায় তুলে দেন।

অবশেষে চারদিন পর ওই তরুণীকে উদ্ধার করে আশুলিয়া পুলিশ। উদ্ধারের পরে ওই তরুণী বাদী হয়ে আশুলিয়া থানায় চার জনকে আসামী করে একটি মামলা দায়ের করেন।

 এসএমএইচ//  শনিবার, ৩০ সেপ্টেম্বর ২০১৭ ১৫ আশ্বিন ১৪২৪

Share.

About Author

Comments are closed.