জানুয়ারি মাসেই নিয়োগ পাবেন নিবন্ধনধারীরা

0

নিজস্ব প্রতিবেদক:

বেসরকারি শিক্ষক নিয়োগের আবেদন কার্যক্রম শেষ হতে আর মাত্র ছয় দিন বাকি। আবেদন কার্যক্রম শেষে পরবর্তী ১৫ দিনের মধ্যে ফলাফল প্রকাশ ও যোগদান কার্যক্রম শুরু হবে বলে বেসরকারি শিক্ষক নিবন্ধন ও প্রত্যয়ন কর্তৃপক্ষ (এনটিআরসিএ) সূত্রে জানা গেছে।

এনটিআরসিএ’র চেয়ারম্যান এসএম আশফাক হুসেন বলেন, গত ১৯ ডিসেম্বর থেকে বুধবার রাত পর্যন্ত প্রায় ৫ লাখ আবেদন জমা হয়েছে। আগামী ২ জানুয়ারি পর্যন্ত প্রায় ৮ লাখ আবেদন জমা হতে পারে। আবেদন কার্যক্রম শেষে পরবর্তী ১৫ দিন পর চূড়ান্ত প্রার্থী ও সংশ্লিষ্ট শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে জানিয়ে দেয়া হবে। সেদিন থেকে পরবর্তী এক মাসের মধ্যে কেউ যোগদান না করলে সে পদটি শূন্য হয়ে যাবে বলেও জানান তিনি। সারাদেশে স্কুল-কলেজ, মাদরাসা ও কারিগরি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে প্রায় ৪০ হাজার পদের বিপরীতে এসব আবেদন জমা পড়েছে।

বেসরকারি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে শিক্ষক নিয়োগ দিতে গত ১৮ ডিসেম্বর গণবিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করে এনটিআরসিএ। ১৯ ডিসেম্বর থেকে আগামী ২ জানুয়ারি আবেদন কার্যক্রম চলবে। সারাদেশের বেসরকারি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে মোট ৩৯ হাজার ৫৩৫টি পদ শূন্য রয়েছে। এসব পদের জন্য ১ম থেকে ১৪তম নিবন্ধন পরীক্ষায় উত্তীর্ণ নিয়োগপ্রত্যাশীদের প্রতিষ্ঠানভিত্তিক আবেদন করতে বলা হয়। প্রাপ্ত আবেদনগুলো জাতীয় মেধাতালিকার ভিত্তিতে বাছাইপূর্বক বিধি মোতাবেক প্রতিটি পদের বিপরীতে একজন করে নিয়োগের জন্য চূড়ান্ত সুপারিশ করা হবে। এরপর নির্বাচিতদের পাশাপাশি সংশ্লিষ্ট প্রতিষ্ঠানের পরিচালনা কমিটিকে মোবাইল ফোনে ও লিখিতভাবে নির্বাচিত প্রার্থীকে নিয়োগ দিতে নির্দেশ দেয়া হবে। এ ছাড়াও এসএমএস করে নির্বাচিত প্রার্থীকে এ তথ্য জানিয়ে দেয়া হবে।

এবার নতুন নিয়ম শিক্ষক নিবন্ধনধারীদের শূন্য পদের সব প্রতিষ্ঠানে আবেদনের অবারিত সুযোগ সৃষ্টি করলেও প্রতিটি প্রতিষ্ঠানের জন্য আলাদা আলাদা আবেদন করতে হচ্ছে। এতে প্রার্থীদের বিপুল অর্থ খরচ করতে হচ্ছে বলে অভিযোগ করা হয়েছে। নতুন নিয়মে ভোগান্তি বেড়েছে বলেও দাবি করছেন নিয়োগপ্রত্যাশীরা।

হাইকোর্টের নির্দেশে নতুন বিধান চালু করা হয়েছে। আগে যেখানে প্রার্থীরা শুধু নিজ উপজেলার শূন্য পদে আবেদন করতে পারতেন, নতুন নিয়মে এবার সেই বিধিনিষেধ তুলে দেয়া হয়েছে বলে জানিয়েছেন এনটিআরসিএর চেয়ারম্যান এসএম আশফাক হুসেন।

সাব্বির// এসএমএইচ//২৮শে ডিসেম্বর, ২০১৮ ইং ১৪ই পৌষ, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ

Share.

About Author

Comments are closed.