প্রচার-প্রচারণা বন্ধ হলেও ফেসবুকে সরব প্রার্থীরা

0

চট্টগ্রাম ব্যুরো :

আসন্ন একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দী প্রার্থীদের সব ধরণের প্রচার-প্রচারণা গতকাল শুক্রবার সকাল ৮টা থেকে বন্ধ হয়েছে। তবে মাঠ-ঘাটের মিছিল-সমাবেশ বন্ধ হলেও থেমে নেই অনলাইন প্রচারণা। চট্টগ্রামের আওয়ামী লীগ-বিএনপি দুই দলের প্রার্থীই সরব প্রচারণা চালাচ্ছেন সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে। তাদের প্রচার-প্রচারণার বিভিন্ন ছবি পোস্ট করছেন আইডি ও পেজে। আওয়ামী লীগ প্রার্থীরা গত ১০ বছরের সরকারের নানা উন্নয়ন কর্মকা-ের ভিডিও পোস্ট করছেন। উন্নয়নের ধারা বজায় রাখতে তারা আবারো নৌকায় ভোট দেয়ার জন্য আহ্বান জানাচ্ছেন। আর বিএনপি প্রার্থীরা খালেদা জিয়ার মুক্তিসহ প্রকৃত গণতন্ত্র ফিরিয়ে আনতে ধানের শীষ মার্কায় ভোট চাচ্ছেন।
চট্টগ্রাম-৮ আসনের বিএনপি প্রার্থী আবু সুফিয়ান তার সকল প্রচার-প্রচারণার ছবি নিজের ফেসবুক পেজে পোস্ট করেছেন। এছাড়া বৃহস্পতিবার রাত ১০টায় তিনি একটি ভিডিও পোস্ট করেন। সেখানে কারাবন্দী বেগম খালেদা জিয়ার মুক্তির জন্য ৩০ ডিসেম্বর ধানের শীষে ভোট দেয়ার জন্য আহ্বান করেন। তবে এক্ষেত্রে পিছিয়ে আছেন এ আসনের নৌকার প্রার্থী মইনুদ্দিন খান বাদল। ফেসবুকে তেমন সরব নন তিনি। মাঠে-ঘাটের প্রচারণাতেই বেশি সময় কেটেছে তার।
চট্টগ্রাম-৯ আসনের আওয়ামী লীগের প্রার্থী ব্যারিস্টার মহিবুল হাসান চৌধুরী নওফেল তাঁর ফেসবুকে পেজে প্রচার-প্রচারণার বিভিন্ন ছবি পোস্ট করেছেন। এছাড়া দুই সপ্তাহ আগে প্রচারণায় গিয়ে এক বৃদ্ধা ভোটারের সাথে কথোপকথনের একটি ভিডিও পোস্ট করেন তিনি। সেটি ফেসবুকে বেশ সাড়া ফেলেছে। এছাড়া সরকারের নানা উন্নয়নের ভিডিও পোস্ট করেন তিনি পেজে। এ আসনের বিএনপি প্রার্থী ডা. শাহাদাত কারাগারে থাকায় ফেসবুকে তেমন কোন প্রচারণা নেই। তবে তাঁর হয়ে দলের নেতাকর্মীরা মাঠে-ঘাটে প্রচারণা চালিয়ে যাচ্ছেন। এছাড়া শাহাদাতের মা শায়স্তা খানম তাঁর ছেলেকে ভোট দিতে অভিনব এক পন্থা বের করেছেন। তিনি সবার মোবাইল নাম্বারে ডা. শাহাদাতের জন্য ভোট চেয়ে এসএমএস পাঠাচ্ছেন।
চট্টগ্রাম-১০ আসনের বিএনপির প্রার্থী আবদুল্লাহ আল নোমান সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে প্রচার করছেন মন্ত্রীত্ব থাকাকালীন তার অবদানের কথা। দুটি ভিডিও’র মধ্যে তিনি ১৯৯৫ সালে চট্টগ্রাম শিক্ষা বোর্ড স্থাপন ও চট্টগ্রামে ৩য় কর্ণফুলী সেতুর নির্মাণ-পরিকল্পনা ও বাস্তবায়নে অবদানের কথা তুলে ধরেন। এ আসনের আওয়ামী লীগের প্রার্থী ডা. আফসারুল আমিনের নিজস্ব কোন ফেসবুক পেজ না থাকলেও বিভিন্ন পত্র-পত্রিকা ও অনলাইন পোর্টালে দেয়া সাক্ষাতকারগুলো নিজেদের আইডিতে শেয়ার করছেন তাঁর সমর্থকরা।
চট্টগ্রাম-১১ আসনের নৌকার প্রার্থী এম এ লতিফ ফেসবুকে বেশ সক্রিয়। তাঁর নিজস্ব পেজে সমস্ত প্রচার-প্রচারণার ছবি তিনি পোস্ট করেছেন। এছাড়া আওয়ামী লীগের নির্বাচনী ইশতেহারের ভিডিও তিনি পোস্ট করেছেন পেজে। তবে এ আসনের বিএনপি প্রার্থী আমীর খসরু মাহমুদ চৌধুরী সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে তেমন একটা সক্রিয় নন।

সাব্বির// এসএমএইচ//২৮শে ডিসেম্বর, ২০১৮ ইং ১৪ই পৌষ, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ

Share.

About Author

Comments are closed.