নিউজিল্যান্ডের প্রধানমন্ত্রী আরডার্নের গ্রহণযোগ্যতা আগের চেয়ে বেড়ে ৫১ শতাংশ হয়েছে

0

আন্তর্জাতিক ডেস্ক:

এক মাস আগে বিশ্বের সবগুলো সংবাদমাধ্যমে উঠে এসেছিল নিউজিল্যান্ড। ১৫ মার্চ দেশটির ক্রাইস্টচার্চে দুইটি মসজিদে জুমার নামাযের সময় বর্বর ও নৃশংস হামলা চালায় অস্ট্রেলীয় সন্ত্রাসী ব্রেন্ডন ট্যারেন্ট। ওই হামলায় মারা গিয়েছিল ৫০ জন মুসল্লি। ওই হামলার পরপরই নিউ জিল্যান্ডের প্রধানমন্ত্রী জেসিন্ডা আরডার্ন যেসব পদক্ষেপ নিয়েছিলেন তার প্রত্যেকটিই দেশে-বিদেশে ব্যাপকভাবে প্রশংসিত হয়েছে। তাই এত বড় একটি বিপর্যয়ের এক মাসের মধ্যে দেশটির বাসিন্দাদের কাছে তার জনপ্রিয়তা এখন আগের চেয়ে অনেক বেড়েছে। সম্প্রতি এমন তথ্যই উঠে এসেছে এক জরিপে।

ওয়ান নিউজ পরিচালিত ‘কোলমাল ব্রুনটন জরিপ’-এর ফলে দেখা যায়, প্রধানমন্ত্রী হিসেবে আরডার্নের গ্রহণযোগ্যতা আগের চেয়ে বেড়ে ৫১ শতাংশ হয়েছে। গত ফেব্রুয়ারিতে সর্বশেষ যে জরিপ করা হয়েছিল, তাতে তার গ্রহণযোগ্যতা ছিল ৪৪ শতাংশ। অর্থাৎ এত বড় বিপর্যয় মোকাবেলা করে তার গ্রহণযোগ্যতা আগের চেয়ে সাত শতাংশ বেড়েছে। গত সোমবার এ জরিপ প্রকাশিত হয়।

জরিপের ফল প্রকাশের পর এ ব্যাপারে জেসিন্ডা আরর্ডান শুধু বলেন, আমি শুধু সর্বোচ্চ ক্ষমতা দিয়ে আমার দায়িত্ব পালন করেছি।

এদিকে জরিপের ফলে দেখা গেছে, প্রধান বিরোধীদল ন্যাশনাল পার্টির নেতা সিমন ব্রিজের জনপ্রিয়তা মাত্র পাঁচ শতাংশ।

উল্লেখ্য, ২০১৭ সালে ক্ষমতা গ্রহণের পর জরিপে জনপ্রিয়তার দিক দিয়ে এটিই জেসিন্ডা আরডার্নের সর্বোচ্চ অবস্থান।

১৫ মার্চের ক্রাইস্টচার্চ হামলার পর জেসিন্ডা আরডার্ন তাৎক্ষণিকভাবে যে পদক্ষেপ নেন, তাতে একদিকে যেমন দেশের পরিস্থিতি খুব দ্রুত স্বাভাবিক হয়ে আসে, তেমনি পুরো বিশ্ব তার প্রশংসায় মেতে ওঠে। আর এবারের জরিপে তারই প্রতিফলন ঘটেছে আরেকবার।

 

 

নিলা চাকমা/এসএমএইচ/১৭ এপ্রিল ২০১৯, ৪ বৈশাখ ১৪২৬

Share.

About Author

Comments are closed.