ভোট দিলেন মোদি

0

আন্তর্জাতিক ডেস্ক:

ভোটার আইডি সন্ত্রাসবাদের আইইডি (ইমপ্রোভাইজড এক্সপ্লোসিভ ডিভাইস) চেয়ে বেশি শক্তিশালী, ভারতের লোকসভা নির্বাচনের ৩য় দফায় গুজরাটের আহমেদাবাদে ভোট দেয়ার পরে দেশটির ক্ষমতাসীন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি এই কথা বলেন। ভোট দেয়ার পর খোলা একটি জিপে করে মিনি রোডশো করেন, রাস্তায় নেমে যান এবং প্রচার মাধ্যমকে এসব কথা বলেন। ভোটার টানতেই তিনি নতুন এই ‘আইইডি বনাম ভোটার আইডি’ থিমটি নিয়েছেন বলে মনে করা হচ্ছে।
মোদি বলেন, ‘সন্ত্রাসবাদের অস্ত্র হচ্ছে আইইডি, গণতন্ত্রের শক্তি ভোটার আইডি। আমি নিশ্চিতভাবে বলতে পারি যে, ভোটার আইডি অনেক বেশি শক্তিশালী, আইইডির চেয়েও বেশি শক্তিশালী, তাই আমাদের ভোটার আইডিগুলির শক্তি বোঝা উচিত।’
বুলেটপ্রুফ গাড়ি থেকে নেমে প্রধানমন্ত্রী মোদি রনিপের নিশান উচ্চ মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে ভোট কেন্দ্রে একটি খোলা জিপে করে উপস্থিত হন, জিপটি ভিড়ের মধ্যে ধীরে ধীরে এগোচ্ছিল সমাবেশের মতো করে। মোদিকে দেহরক্ষীরা ঘিরে রেখেছিলেন, তিনি তার ভেতর থেকে জনতার উদ্দেশ্যে হাত নাড়ান।
গান্ধীনগর আসনের প্রার্থী বিজেপি সভাপতি অমিত শাহ এবং তার পরিবার মোদিকে অভিনন্দন জানিয়েছেন। ভোটকেন্দ্রে প্রবেশের পূর্বে প্রধানমন্ত্রী মোদি অমিত শাহের নাতনীকে হাতে তুলে নিয়ে ফের ভিড়ের দিকে তাকিয়ে হাত নাড়ান।
ভোট দেয়ার পর প্রধানমন্ত্রী তার কালিযুক্ত আঙ্গুল দেখিয়ে অমিত শাহের পাশাপাশি বিজেপির পতাকা এবং ব্যানারে সিক্ত রাস্তায় হাঁটলেন। ‘মোদি, মোদি’ স্লোগানের মধ্যে তিনি মিডিয়ার কাছে বলেছিলেন, ‘নিজের রাজ্যের গুজরাটের ভোট দেয়ার দায়িত্ব পালন করায় এবং গণতন্ত্রের এই বিশাল উৎসবটিতে অংশ নিতে পেরে গর্ব বোধ করছি। কুম্ভ মেলার সময় নদীর মাঝে গিয়ে ডুব দিলে যেমন আনন্দ লাগে, ভোটের পরে আমিও একই আনন্দ অনুভব করছি। ভোটাররা বুদ্ধিমান। তারা জানে কি সঠিক আর কি ভুল।’
ভারতজুড়ে ৭ দফার লোকসভা নির্বাচনের সবচেয়ে বড় পর্যায়ের ভোট হচ্ছে। দেশটির মোট আসনের এক পঞ্চমাংশের ভোট হচ্ছে আজকে। এই নির্বাচনের মাধ্যমে মোদি ২য় দফায় প্রধানমন্ত্রীত্বের জন্য লড়াই করছেন। মঙ্গলবার সকালে মোদি টুইট করেছেন, ‘২০১৯ সালের লোকসভা নির্বাচনে আজকের তৃতীয় পর্যায়ে রেকর্ড সংখ্যক ভোট পরবে উল্লেখ করে সবাইকে তার মূল্যবান ভোট দিতে আহ্বান জানান। আপনার ভোটটি মূল্যবান এবং আগামী বছরগুলিতে আমাদের দেশ কোনদিকে যাবে তা নির্ধারন করবে। আর কিছুদিনের মধ্যেই আহমেদাবাদে ভোট দেব আমি।’
আহমেদাবাদে যাওয়ার আগে প্রধানমন্ত্রী ২৫ কিলোমিটার দূরে গান্ধীনগরে বসবাসরত ৯৮ বছর বয়সী তার মা হিরাবানের সঙ্গেও সাক্ষাৎ করেন। প্রকাশিত কিছু ছবিতে তাকে তার মায়ের পা স্পর্শ করতে দেখা যায়, তার মা তাকে শাল, মিষ্টি এবং নারকেল দেন

 

নিলা চাকমা/এসএমএইচ/,  মঙ্গলবার ২৩ এপ্রিল ২০১৯, ১০ বৈশাখ ১৪২৬

Share.

About Author

Comments are closed.