চলার পথে বাবা-ছেলের অদ্ভুত সেলফি

0

নিজস্ব  প্রতিবেদক:

বাবা-ছেলে দুইজনেই রেলওয়েতে কাজ করেন। বাবা সীমান্ত এক্সপ্রেস ট্রেনের গার্ড হলেও ছেলে টিকিট পরীক্ষক (টিটিই)। চলার পথে দুইজনের দেখা হয় না কখনো। তবে অদ্ভুতভাবে চলারপথে এবার বাবা-ছেলের দেখা হয়ে গেলো। আর সেই মুহূর্তটি ধরে রাখার জন্য দুই ট্রেনের দরজায় দাঁড়িয়ে সেলফি তুলেছেন বাবা-ছেলে।

খোঁজ নিয়ে জানা যায়, বাবা সীমান্ত এক্সপ্রেস ট্রেনের গার্ড। তিনি খুলনা থেকে ট্রেন নিয়ে চিলাহাটি যাচ্ছিলেন। পাশাপাশি দিনাজপুর থেকে পার্বতীপুর হয়ে ট্রেন নিয়ে রাজধানী অভিমুখে যাচ্ছিলেন ছেলে। কিন্তু পথেই ডিউটিরত অবস্থায় বাবার সঙ্গে দেখা হয়ে গেলো ছেলের।

তবে এই দেখার সঙ্গে আর দশটা দেখার পার্থক্য রয়েছে অনেক। ট্রেন যখন ফুলবাড়ি রেল স্টেশন অতিক্রম করছিল তখন বাবা ট্রেনের শেষদিকে গার্ডরুমে আর ছেলে ওয়াসিবুর রহমান শুভ তখন দ্রুতযান এক্সপ্রেসের ইঞ্জিনের কাছাকাছি একটি কামরায়। বাবার সঙ্গে চলন্ত পথে হঠাৎ দেখা ছেলের। স্বল্প সময়ের এই কুশল এবং সময়টাকে কাজে লাগিয়ে মোবাইলে বাবাকে ফ্রেমবন্দী করে সেলফি তুলে ফেলেন ছেলে। ফলে চলন্ত পথে বাবা-ছেলের দেখা হওয়ার মুহূর্তটি হয়ে যায় অনন্য।

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে ছবিটি শেয়ার করে ছেলে ওয়াসিবুর রহমান শুভ ক্যাপশন দিয়েছেন, ‘বাবা ও আমি, ফুলবাড়ি স্টেশনে ক্রসিং, চিলাহাটিগামী সীমান্ত এবং ঢাকাগামী দ্রুত যান এক্সপ্রেস। বাবা ডিউটিরত আমিও ডিউটিরত।

ছবিটি ফেসবুকে পোস্ট করার কিছুক্ষণ পরই সবার ফেসবুক ওয়ালে ছড়িয়ে যায়। অনেকেই এই ছবি শেয়ার দিয়ে
বাবা-ছেলের এই অদ্ভুত সুন্দর মুহূর্তটির প্রশংসা করেছেন।

ছবিটি শেয়ার করে খায়রুল ইসলাম নামে একজন লিখেছেন, ‘এমন পিতা-পুত্র হওয়া সৌভাগ্যের। আপনাদের জন্য শুভ কামনা।’

স্বপন আমান নামের একজন লিখেছেন, ‘আমাদের কপালে হয়তো এমন ছবি নেয়ার সৌভাগ্য হবে না, তবে সুন্দর হয়েছে ছবিটা। শুভ কামনা।’

নিলা চাকমা/এসএমএইচ/বুধবার ১৫ মে ২০১৯, ০১ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৬

Share.

About Author

Comments are closed.