বিউটি প্রোডাক্ট কতদিন ব্যবহার করা যাবে?

0

লাইফস্টাইল ডেস্ক :
আপনি কি সাজগোজ করতে ভালোবাসেন? ক্রিম, লোশন, ময়শ্চারাইজার ব্যবহার করে ত্বক উজ্জ্বল রাখা পছন্দ? কিন্তু এই সব বিউটি প্রোডাক্ট কখন ফেলে দিতে হবে সেটা জানেন তো? শুধু অনেকগুলো বিউটি প্রোডাক্ট কিনলেই তো হবে না, সেগুলো কতদিন পর্যন্ত ব্যবহার করা যাবে, সেই বিষয়টাও মাথায় রাখতে হবে। বিউটি প্রোডাক্টেরও এক্সপায়ারি ডেট বা মেয়াদ রয়েছে এবং এক্সপায়ার হয়ে যাওয়ার পরেও তা ব্যবহার করে গেলে উপকাররের চেয়ে অপকারই বেশি হবে।

ফেস ক্লিনজার

ফেস ক্লিনজার এক বছরের বেশি ব্যবহার করা যায় না। ম্যানুফ্যাকচারিং ডেট দেখে রাখুন। এক বছরের বেশি হয়ে গেলে আর ব্যবহার করবেন না। এছাড়া যদি দেখেন ক্লিনজারের রং বদলে যাচ্ছে, তাহলেও ফেলে দিন।

ফেস টোনার

পানি জাতীয় এই বিউটি প্রোডাক্টে বাতাস লাগলে খুব সহজে ব্যাকটেরিয়া ধরে যায়। এমনিতে টোনারের মেয়াদ ছয় থেকে বারো মাস। যদি দেখেন একটু ঘন হয়ে যাচ্ছে, তাহলে বুঝবেন এবার টোনার বদলাতে হবে।

ময়শ্চারাইজার

বেশিরভাগ ময়শ্চারাইজারই এক বছরের বেশি ভাল থাকে না। তাই এক বছর পেরিয়ে গেলেই আর ব্যবহার করবেন না।

পারফিউম

দামী পারফিউম কিনে তা অনেক দিন রেখে ব্যবহার করতে পারেন না। যত দামী পারফিউমই হোক না কেন, আট থেকে দশ বছরের বেশি ভাল থাকে না। এছাড়া পারফিউমকে ভাল রাখতে চাইলে আলো থেকে দূরে অন্ধকার স্থানে রাখুন।

সাব্বির=৬ই জুলাই, ২০১৯ ইং ২২শে আষাঢ়, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

Share.

About Author

Comments are closed.