অনলাইনে আয়ের সুদিন আসছে নিউজ পোর্টালগুলোর

0

অনলাইন ডেস্ক

দ্রুত এগিয়ে চলছে বিশ্বব্যাপি অনলাইন সংবাদপত্র বা নিউজ পোর্টালের অগ্রযাত্রা।দিন দিন কমছে ইন্টারনেটের ব্যবহার চার্জ ও বাড়ছে সহজ লভ্যতা। বিশ্বের যে কোন প্রান্তে কোন ঘটনা ঘটলেই তাৎক্ষণিক কোন না কোন নিউজ পোর্টাল সর্বপ্রথম তা প্রচার করে সোশ্যাল মিডিয়ায় ছড়িয়ে দিচ্ছে।পাঠক কাগজের পত্রিকায় কখন ছাপা হবে সে জন্য অপেক্ষা না করে অনলাইনে পড়ে নিয়ে থাকছেন নিয়মিত আপডেট। অনলাইন নিউজ পোর্টালগুলোর জন্য আরো সু-সংবাদ হলো ইন্টারন্যাশনাল টেলিকমিউনিকেশন ইউনিয়নের (আইটিইউ) তথ্য অনুযায়ি, চলতি ২০১৯ সালের শেষ নাগাদ পৃথিবীর প্রায় অর্ধেক মানুষ ইন্টারনেটের আওতায় আসছে।

সব সব ভাষায় আজ প্রকাশিত হচ্ছে নিউজ পোর্টাল। হোক তা জাতীয়, আঞ্চলিক কিংবা কমিউনিটি ভিত্তিক।

প্রতি মুহুর্তে কার আগে কে আপডেট নিউজ বা সংবাদ দিতে পারে এখন চলছে বিশ্বব্যাপি সে প্রতিযোগিতা। বিশ্বের বড় বড় বিজ্ঞাপন দাতা প্রতিষ্ঠানগুলো দিন দিন ঝুঁকছে অনলাইনের দিকে। এখন আন্তর্জাতিক প্রতিষ্টানগুলো বিজ্ঞাপনদাতাদের চাহিদা ও দাবি পূরণ করতে গিয়ে অনলাইন নিউজ পোর্টালগুলোকে বেশি বেছে নিচ্ছেন।কারণ এ সব সোশ্যাল মিডিয়া সংশ্লিষ্ট।ব্যবসায়ীরা বিজ্ঞাপন প্রচারের জন্য সবচেয়ে বেশি ব্যয় করবেন অনলাইন নিউজ পোর্টালসহ অন্যান্য প্ল্যাটফর্মগুলোতে।সে সময় দুযোর্গ শুরু হবে ছাপা পত্রিকার জন্য।যে সমস্ত পত্রিকা এখনও অনলাইন ভার্সনে যেতে পারে নি তাদের জন্য দিন দিন ঘনিয়ে আসছে আর্খিক দুযোর্গ।

বিজ্ঞাপনের বিশ্ববাজার নিয়ে জরিপ চালিয়ে লন্ডনভিত্তিক জনপ্রিয় মিডিয়া এজেন্সি জেনিথমিডিয়া  জানাচ্ছে, ২০২১ সাল নাগাদ বিশ্বব্যাপী বিজ্ঞাপনের মাত্র ৬ শতাংশ দৈনিক পত্রিকায় প্রকাশ হবে। এসময় বিজ্ঞাপনের ৫২ শতাংশই প্রচার হবে শুধু অনলাইন প্ল্যাটফর্মে। আর টেলিভিশনে বিজ্ঞাপন যাবে ২৭ শতাংশ। ২০২১ সাল নাগাদ বৈশ্বিক বিজ্ঞাপন বাজারের সিংহভাগ দখল করবে অনলাইন প্ল্যাটফর্ম। সর্বোচ্চ পরিমাণ ৫২ শতাংশ বিজ্ঞাপন প্রচার হবে অনলাইনে।

বিজ্ঞাপন খড়ায় পড়বে প্রিন্ট মিডিয়া : 

জেনিথের গবেষণায় বলা হয়, ২০১৮ সালে অনলাইনে বিজ্ঞাপনের হার ছিল ৪৪ শতাংশ। চলতি বছর তা হতে পারে ৪৭ শতাংশ। এটি বেড়ে ৫২ শতাংশে উন্নীত হতে পারে ২০২১ সাল নাগাদ।

তাছাড়া , এই সময় নাগাদ টেলিভিশনে বিজ্ঞাপন প্রচার হবে প্রায় ২৭ শতাংশ। বিলবোর্ড, পোস্টারিং-এর মতো আউটডোর বিজ্ঞাপন হবে ৭ শতাংশ। সবচেয়ে আশঙ্কাজনক সময় আসবে ছাপা পত্রিকার জন্য।

২০২১ সাল নাগাদ ছাপা পত্রিকায় বিজ্ঞাপন প্রকাশ হবে মাত্র ৬ শতাংশ। একইসময়ে রেডিওতে ৫ শতাংশ, ম্যাগাজিনে ৩ এবং সিনেমার মাধ্যমে বিজ্ঞাপন প্রচার হবে মাত্র ১ শতাংশ। মোবাইল ফোন ও ইন্টারনেটের সহজ লভ্যতায় মোবাইল ইন্টারনেট ব্যবহারকারী দ্রুততারে বাড়ছে সারা বিশ্বে। পঞ্চম প্রযুক্তির মোবাইল নেটওয়ার্ক ফাইভ-জি মানুষকে আরো দ্রুত তথ্য পেতে বহুধাপ এগিয়ে নেবে। ফলে বিভিন্ন ধরনের অনলাইন প্ল্যাটফর্মে, নিউজ পোর্টাল এবং সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে বাড়বে বিজ্ঞাপনের সংখ্যা এবং একই সাথে মূল্যও। সর্বশেষ তথ্য অনুযায়ি বাংলাদেশের তথ্য মন্ত্রাণালয়ের সংশ্লিষ্ট বিভাগে প্রায় ১৫হাজার নিউজ পোর্টাল,আইপি টিভি,অনলাইন টিভি ও কমিউনিটি পোর্টালের জন্য আবেদন জমা পড়েছে।যাচাই বাছাই শেষে মন্ত্রাণালয় আবেদনকারীদের লাইসেন্স ও রেজিস্ট্রেশন দেবে।

০১ অক্টোবর ২০১৯, ১৬ আশ্বিন ১৪২৬

Share.

About Author

Comments are closed.