এমপিওভুক্তি: কোন স্তরে কত নতুন প্রতিষ্ঠান

0

নিজস্ব প্রতিবেদক

২ হাজার ৭৩০টি শিক্ষা প্রতিষ্ঠান এমপিওভুক্তির ঘোষণা দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। দুপুরে গণভবনে আয়োজিত অনুষ্ঠানে এ ঘোষণা দেন তিনি। ঘোষণার পর নতুন এমপিওভুক্ত শিক্ষা প্রতিষ্ঠানগুলোকে এমপিও নীতিমালা অনুযায়ী মান ও যোগ্যতা ধরে রাখার আহ্বান জানান প্রধানমন্ত্রী।

এবার ২ হাজার ৭৩০টি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান এমপিওভুক্তির ঘোষণা এলো। এর মধ্যে স্কুল ও কলেজের সংখ্যা ১ হাজার ৬৫১টি, মাদরাসা ৫৫৭টি এবং কারিগরি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান ৫২২টি।

নতুন এমপিওভুক্তির মধ্যে নিম্নমাধ্যমিক বিদ্যালয় ৪৩৯টি, ৬ষ্ঠ-১০ম শ্রেণির মাধ্যমিক বিদ্যালয় ১০৮টি, ৯ম-১০ম শ্রেণির মাধ্যমিক বিদ্যালয় ৮৮৭টি, স্কুল অ্যান্ড কলেজ ৬৮ টি, উচ্চ মাধ্যমিক কলেজ ৯৩টি এবং ডিগ্রি কলেজ ৫৬টি।

আর নতুন এমপিওভুক্ত মাদরাসার মধ্যে দাখিল মাদরাসা সংখ্যা ৩৫৮টি, আলিম মাদরাসার সংখ্যা ১২৮টি, ফাযিল মাদরাসা ৪২টি ও কামিল মাদরাসা ২৯টি।

নতুন এমপিওভুক্ত কারিগরি প্রতিষ্ঠানের মধ্যে কৃষি ৬২টি, ভোকেশনাল স্বতন্ত্র ৪৮টি, ভোকেশনাল সংযুক্ত ১২৯টি, বিএম স্বতন্ত্র ১৭৫টি ও বিএম সংযুক্ত ১০৮টি প্রতিষ্ঠান এমপিওভুক্ত হচ্ছে।

শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের একাধিক বলেছে, অনুসন্ধানে ভুয়া একাডেমিক স্বীকৃতি ধরা পড়েছে ৪০টিরও বেশি। বাস্তবে এ সংখ্যা আরো বেশি। ছয় হাজারেরও বেশি আবেদনের এ ত্রুটি যাচাই করা সম্ভব হয়নি। তবে, তালিকা ঘোষণার পরও যদি ধরা পড়ে তাহলে বাদ পড়বে।

উদাহরণ হিসেবে তারা বলেন, প্রকৃতপক্ষে একটা প্রতিষ্ঠান স্বীকৃতি পেয়েছে ২০১৭ খ্রিষ্টাব্দে কিন্তু জালিয়াতি করে তা দেখানো হয়েছে ২০১২ খ্রিষ্টাব্দে। এভাবে ৪০টিরও বেশি ধরা পড়েছে। আরো হয়তো আছে।

উল্লেখ্য, এমপিওভুক্ত হলে সরকারি কোষাগার থেকে বেতন-ভাতা পান শিক্ষক-কর্মচারীরা। একজন সরকারি শিক্ষকের মূল বেতন স্কেলের সমপরিমাণ ও তার সাথে কিছু বাড়িভাড়া ও চিকিৎসা ভাতা পান এমপিওভুক্তরা। এছাড়া বৈশাখী ভাতা ও পাঁচ শতাংশ বার্ষিক প্রবৃদ্ধি চালু করেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

বুধবার, ২৩ অক্টোবর ২০১৯, ৭ কার্তিক ১৪২৬

Share.

About Author

Comments are closed.